জেলা সভাপতিরা আর মন্ত্রী থাকতে পারবেন না, নির্দেশ মমতার
jugantor
জেলা সভাপতিরা আর মন্ত্রী থাকতে পারবেন না, নির্দেশ মমতার

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৬ জুন ২০২১, ১২:১৪:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

জেলা সভাপতিরা আর মন্ত্রী থাকতে পারবেন না, নির্দেশ মমতার

যারা মন্ত্রীর পাশাপাশি জেলা সভাপতি পদে রয়েছেন তাদের সেই পদ থেকে ইস্তফা দিতে হবে বলে জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। নেতা ও মন্ত্রীদের জনগণের আরও কাছে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, তৃণমূল কংগ্রেসকে আরও শক্তিশালী করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছেন তৃণমূল প্রধান। এবার কোন কোন জেলায় ফল ভালো হয়নি তার তালিকা নিয়ে বসেন তিনি। সেখানেই ঠিক হয়, এবার থেকে আর কোনো জেলা সভাপতি মন্ত্রী পদে থাকতে পারবেন না।

তৃণমূল ভবনে এদিনের সাংগঠনিক বৈঠকে মমতা বলেন, ‘‌দলে এক ব্যক্তি এক পদ চালু হবে। জেলা সভাপতিরা আর কোনো মন্ত্রী পদে থাকবেন না। একমাসের মধ্যে জেলা ও ব্লকস্তরে সংগঠনে রদবদল করা হবে। সেখান থেকে রিপোর্ট তলব করা হবে।’‌

অন্যদিকে যারা মন্ত্রীর পাশাপাশি জেলা সভাপতি পদে রয়েছেন তাদের সেই পদ থেকে ইস্তফা দিতে হবে বলে জানা গেছে। নেতা–মন্ত্রীদের মানুষের আরও কাছে পৌঁছে যেতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছেন নেত্রী।

মমতা কড়া নির্দেশ দিয়ে বলেন, ‘‌ত্রাণ বণ্টনে স্বচ্ছতা বজায় রাখতে হবে।’‌ তৃণমূল কংগ্রেস নেতাদের যখন তখন ফেসবুক লাইভের ব্যাপারেও সতর্ক করেন তিনি।

জেলা সভাপতিরা আর মন্ত্রী থাকতে পারবেন না, নির্দেশ মমতার

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৬ জুন ২০২১, ১২:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
জেলা সভাপতিরা আর মন্ত্রী থাকতে পারবেন না, নির্দেশ মমতার
ছবি: সংগৃহীত

যারা মন্ত্রীর পাশাপাশি জেলা সভাপতি পদে রয়েছেন তাদের সেই পদ থেকে ইস্তফা দিতে হবে বলে জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। নেতা ও মন্ত্রীদের জনগণের আরও কাছে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। 

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, তৃণমূল কংগ্রেসকে আরও শক্তিশালী করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছেন তৃণমূল প্রধান। এবার কোন কোন জেলায় ফল ভালো হয়নি তার তালিকা নিয়ে বসেন তিনি। সেখানেই ঠিক হয়, এবার থেকে আর কোনো জেলা সভাপতি মন্ত্রী পদে থাকতে পারবেন না। 

তৃণমূল ভবনে এদিনের সাংগঠনিক বৈঠকে মমতা বলেন, ‘‌দলে এক ব্যক্তি এক পদ চালু হবে। জেলা সভাপতিরা আর কোনো মন্ত্রী পদে থাকবেন না। একমাসের মধ্যে জেলা ও ব্লকস্তরে সংগঠনে রদবদল করা হবে। সেখান থেকে রিপোর্ট তলব করা হবে।’‌ 

অন্যদিকে যারা মন্ত্রীর পাশাপাশি জেলা সভাপতি পদে রয়েছেন তাদের সেই পদ থেকে ইস্তফা দিতে হবে বলে জানা গেছে। নেতা–মন্ত্রীদের মানুষের আরও কাছে পৌঁছে যেতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছেন নেত্রী। 

মমতা কড়া নির্দেশ দিয়ে বলেন, ‘‌ত্রাণ বণ্টনে স্বচ্ছতা বজায় রাখতে হবে।’‌ তৃণমূল কংগ্রেস নেতাদের যখন তখন ফেসবুক লাইভের ব্যাপারেও সতর্ক করেন তিনি। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : পশ্চিমবঙ্গ নির্বাচন ২০২১