কানাডায় মুসলিম পরিবারকে গাড়িচাপা নিয়ে মুখ খুললেন এরদোগান
jugantor
কানাডায় মুসলিম পরিবারকে গাড়িচাপা নিয়ে মুখ খুললেন এরদোগান

  অনলাইন ডেস্ক  

১১ জুন ২০২১, ০০:৫৮:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

কানাডায় মুসলিম পরিবারকে গাড়িচাপা নিয়ে মুখ খুললেন এরদোগান

কানাডার পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত এক মুসলিম পরিবারের ৪ সদস্যকে নির্মমভাবে গাড়িচাপা দিয়ে হত্যার ঘটনায় এবার মুখ খুললেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ইসলামফোবিয়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কথা বলেছেন তিনি।

বুধবার ক্ষমতাসীন একে পার্টির সংসদীয় কমিটির বৈঠকে এরদোগান বলেন, কানাডায় মুসলিম পরিবারের ওপর হওয়া সর্বশেষ হামলার প্রধান কারণ হচ্ছে ইসলামফোবিয়া। তুরস্ক অবিরামভাবে ইসলামফোবিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবে এবং নিপীড়িতদের অধিকার রক্ষা করবে। কারণ ইসলামের প্রতি বিদ্বেষ ও ঘৃণা থেকে বিভিন্ন দেশে মুসলিমরা হত্যা ও বৈষম্যের শিকার হন।

প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেন, আগামী সোমবার আসন্ন ন্যাটো শীর্ষ সম্মেলনে বিশ্বনেতাদের সঙ্গে বৈঠককালে এই সমস্যাটির ব্যাপারে আলোচনা এবং এর সমাধান বের করবো।

বৈঠকে তুর্কি নেতারা কানাডায় সাম্প্রতিক হামলার তীব্র নিন্দা জানান।

ইসলামফোবিয়া, বর্ণবাদ এবং জেনোফোবিয়ার ক্রমবর্ধমান প্রবণতা পশ্চিমা দেশগুলোতে, বিশেষত ইউরোপে বসবাসকারী মুসলিম সম্প্রদায়কে বেশ সমস্যায় ফেলছে।

এরদোগানসহ তুর্কি নেতারা প্রায়শই পশ্চিমা নীতিনির্ধারক ও রাজনীতিবিদদেরকে বর্ণবাদ এবং অন্যান্য ধরণের বৈষম্যের বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে আহ্বান জানিয়ে আসছেন। তাদের মতে, এসব বৈষম্য বিভিন্ন দেশে বসবাসকারী লাখ লাখ মুসলমানদের জীবনকে হুমকির মুখে ফেলে দিচ্ছে।


ডেইলি সাবাহ অবলম্বনে- কাজী আব্দুল্লাহ

কানাডায় মুসলিম পরিবারকে গাড়িচাপা নিয়ে মুখ খুললেন এরদোগান

 অনলাইন ডেস্ক 
১১ জুন ২০২১, ১২:৫৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কানাডায় মুসলিম পরিবারকে গাড়িচাপা নিয়ে মুখ খুললেন এরদোগান
ছবি: ডেইলি সাবাহ

কানাডার পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত এক মুসলিম পরিবারের ৪ সদস্যকে নির্মমভাবে গাড়িচাপা দিয়ে হত্যার ঘটনায় এবার মুখ খুললেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ইসলামফোবিয়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কথা বলেছেন তিনি।

বুধবার ক্ষমতাসীন একে পার্টির সংসদীয় কমিটির বৈঠকে এরদোগান বলেন, কানাডায় মুসলিম পরিবারের ওপর হওয়া সর্বশেষ হামলার প্রধান কারণ হচ্ছে ইসলামফোবিয়া। তুরস্ক অবিরামভাবে ইসলামফোবিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবে এবং নিপীড়িতদের অধিকার রক্ষা করবে। কারণ ইসলামের প্রতি বিদ্বেষ ও ঘৃণা থেকে বিভিন্ন দেশে মুসলিমরা হত্যা ও বৈষম্যের শিকার হন। 

প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেন, আগামী সোমবার আসন্ন ন্যাটো শীর্ষ সম্মেলনে বিশ্বনেতাদের সঙ্গে বৈঠককালে এই সমস্যাটির ব্যাপারে আলোচনা এবং এর সমাধান বের করবো। 

বৈঠকে তুর্কি নেতারা কানাডায় সাম্প্রতিক হামলার তীব্র নিন্দা জানান। 

ইসলামফোবিয়া, বর্ণবাদ এবং জেনোফোবিয়ার ক্রমবর্ধমান প্রবণতা পশ্চিমা দেশগুলোতে, বিশেষত ইউরোপে বসবাসকারী মুসলিম সম্প্রদায়কে বেশ সমস্যায় ফেলছে।

এরদোগানসহ তুর্কি নেতারা প্রায়শই পশ্চিমা নীতিনির্ধারক  ও রাজনীতিবিদদেরকে বর্ণবাদ এবং অন্যান্য ধরণের বৈষম্যের বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে আহ্বান জানিয়ে আসছেন। তাদের মতে, এসব বৈষম্য বিভিন্ন দেশে বসবাসকারী লাখ লাখ মুসলমানদের জীবনকে হুমকির মুখে ফেলে দিচ্ছে। 


ডেইলি সাবাহ অবলম্বনে- কাজী আব্দুল্লাহ 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন