এবার কানাডার বন্দরে ইসরাইলি জাহাজ ভিড়তে দিল না বিক্ষোভকারীরা
jugantor
এবার কানাডার বন্দরে ইসরাইলি জাহাজ ভিড়তে দিল না বিক্ষোভকারীরা

  অনলাইন ডেস্ক  

১৫ জুন ২০২১, ১৯:২৪:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

র্বশেষ গাজা যুদ্ধের পর ইহুদি বর্বরতায় ক্ষুব্ধ হয়ে উত্তর আমেরিকার যুদ্ধবিরোধী লোকজন

কানাডার ব্যস্ততম সমুদ্রবন্দর পোর্ট অব প্রিন্স রুপার্টে ইসরাইলের একটি কন্টেইনার জাহাজ ভিড়তে দেননি দেশটির প্রতিবাদকারীরা। এর আগে আমেরিকার ওকল্যান্ড বন্দরে বিক্ষোভকারীরা ইসরাইলের একটি পণ্যবাহী কার্গো জাহাজ ভিড়তে বাধা দেন।

সিবিসির খবরে বলা হয়েছে, কানাডার প্রতিবাদকারীরা যে জাহাজটি ভিড়তে দেননি তার নাম ভোলানসন। কন্টেইনার জাহাজটি ইসরাইলের জেডআইএম কোম্পানির। জাহাজটি রোববার সারাদিন রুপার্ট বন্দরে নোঙর করা ছিল। ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার ওপর সম্প্রতি ইসরাইল যে ধ্বংসযজ্ঞ চালায় তার প্রতিবাদে ১০ জন বিক্ষোভকারী কানাডার এই গুরুত্বপূর্ণ বন্দরে কন্টেইনার জাহাজটি ভিড়তে দেননি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বন্দরে ইসরাইলের জাহাজ যাতে ভিড়তে না পারে সে জন্য বিক্ষোভকারীরা ফেয়ার ভিউ কন্টেইনার টার্মিনালের প্রবেশমুখে পিকেট লাইন তৈরি করে জাহাজটিকে প্রতিহত করেন। উত্তর আমেরিকার দেশগুলোতে ইতোমধ্যে যে ব্লক দ্যা বোট আন্দোলন গড়ে উঠেছে তার সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে ইসরাইলি এই কন্টেইনার জাহাজটি প্রতিহত করা হয়েছে।

সর্বশেষ গাজা যুদ্ধের পর ইহুদি বর্বরতায় ক্ষুব্ধ হয়ে উত্তর আমেরিকার যুদ্ধবিরোধী লোকজন এই আন্দোলন গড়ে তুলেছেন। তারা উত্তর আমেরিকার দেশগুলোর বন্দরে ইসরাইলের পণ্যবাহী জাহাজ প্রতিহত করার কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছেন।

কানাডার বন্দরে ইসরাইলি জাহাজ প্রতিহত করতে আসা ফ্রান্সিস রিলে বলেন, বিশ্ব এখন একে অপরের সঙ্গে সংযুক্ত। ফলে এখানে যে জাহাজ ডক করা প্রতিহত করা হলো তার প্রভাব বিশ্বের অন্য অংশে পড়বে। কাজটি কঠিন হলেও খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এবার কানাডার বন্দরে ইসরাইলি জাহাজ ভিড়তে দিল না বিক্ষোভকারীরা

 অনলাইন ডেস্ক 
১৫ জুন ২০২১, ০৭:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
র্বশেষ গাজা যুদ্ধের পর ইহুদি বর্বরতায় ক্ষুব্ধ হয়ে উত্তর আমেরিকার যুদ্ধবিরোধী লোকজন
সর্বশেষ গাজা যুদ্ধের পর ইহুদি বর্বরতায় ক্ষুব্ধ হয়ে উত্তর আমেরিকার যুদ্ধবিরোধী লোকজন ব্লক দ্যা বোট আন্দোলন গড়ে তুলেছে। ছবি: সিবিসি

কানাডার ব্যস্ততম সমুদ্রবন্দর পোর্ট অব প্রিন্স রুপার্টে ইসরাইলের একটি কন্টেইনার জাহাজ ভিড়তে দেননি দেশটির প্রতিবাদকারীরা। এর আগে আমেরিকার ওকল্যান্ড বন্দরে বিক্ষোভকারীরা ইসরাইলের একটি পণ্যবাহী কার্গো জাহাজ ভিড়তে বাধা দেন।

সিবিসির খবরে বলা হয়েছে, কানাডার প্রতিবাদকারীরা যে জাহাজটি ভিড়তে দেননি তার নাম ভোলানসন। কন্টেইনার জাহাজটি ইসরাইলের জেডআইএম কোম্পানির। জাহাজটি রোববার সারাদিন রুপার্ট বন্দরে নোঙর করা ছিল। ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার ওপর সম্প্রতি ইসরাইল যে ধ্বংসযজ্ঞ চালায় তার প্রতিবাদে ১০ জন বিক্ষোভকারী কানাডার এই গুরুত্বপূর্ণ বন্দরে কন্টেইনার জাহাজটি ভিড়তে দেননি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বন্দরে ইসরাইলের জাহাজ যাতে ভিড়তে না পারে সে জন্য বিক্ষোভকারীরা ফেয়ার ভিউ কন্টেইনার টার্মিনালের প্রবেশমুখে পিকেট লাইন তৈরি করে জাহাজটিকে প্রতিহত করেন। উত্তর আমেরিকার দেশগুলোতে ইতোমধ্যে যে ব্লক দ্যা বোট আন্দোলন গড়ে উঠেছে তার সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে ইসরাইলি এই কন্টেইনার জাহাজটি প্রতিহত করা হয়েছে।

সর্বশেষ গাজা যুদ্ধের পর ইহুদি বর্বরতায় ক্ষুব্ধ হয়ে উত্তর আমেরিকার যুদ্ধবিরোধী লোকজন এই আন্দোলন গড়ে তুলেছেন। তারা উত্তর আমেরিকার দেশগুলোর বন্দরে ইসরাইলের পণ্যবাহী জাহাজ প্রতিহত করার কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছেন।

কানাডার বন্দরে ইসরাইলি জাহাজ প্রতিহত করতে আসা ফ্রান্সিস রিলে বলেন, বিশ্ব এখন একে অপরের সঙ্গে সংযুক্ত। ফলে এখানে যে জাহাজ ডক করা প্রতিহত করা হলো তার প্রভাব বিশ্বের অন্য অংশে পড়বে। কাজটি কঠিন হলেও খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেন তিনি।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন