হজে সাধারণ কাপড় বাদ,আসছে ন্যানোটেকনোলজি যুক্ত ইহরাম
jugantor
হজে সাধারণ কাপড় বাদ,আসছে ন্যানোটেকনোলজি যুক্ত ইহরাম

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৬ জুন ২০২১, ২২:৪৬:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

হজে সাধারণ কাপড় বাদ,আসছে ন্যানোটেকনোলজি যুক্ত ইহরাম

সাধারণ কাপড়ের বদলে ন্যানোটেকনোলজি সংযুক্ত এবং ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধী কাপড় দিয়ে তৈরি করা হবে হজ ও ওমরাহর ইহরাম।

সাধারণত হজ ও ওমরাহর সময় মুসলিমরা যে দুই খণ্ড সেলাইবিহীন সাদা কাপড় পরিধান করেন তাকে ইহরাম বলা হয়। একেবারেই সাধারণ ওই সুতি কাপড় পরে হজের আনুষ্ঠানিকতা সারেন মুসলিমরা।

সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে সেই ইহরাম আধুনিক হচ্ছে খালিজ টাইমস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

পাকিস্তানে তৈরি এ ধরনের ইহরাম প্রথম ব্যবহৃত হয় ২০২০ সালে হজের সময়। সৌদি উদ্ভাবক হামাদ আল-ইয়ামি এই ইহরাম আবিষ্কার করেন।

ন্যানোটেকনোলজি যুক্ত কাপড়টি ব্যাকটেরিয়া বাড়তে দেয় না। শতভাগ সুতার তৈরি ওই ইহরাম ৯০ বারেরও বেশি ধোয়া যাবে বলে খালিজ টাইমস ওই প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

সৌদি স্ট্যান্ডার্ডস, মেট্রোলজি অ্যান্ড কোয়ালিটি অর্গানাইজেশন (এসএএসও)আন্তর্জাতিক মানদণ্ড বজায় রেখে তৈরি ইহরামে ওই কাপড়ের অনুমোদন দিয়েছে।

এবারের হজেও অত্যাধুনিক কাপড়ের ইহরাম ব্যবহৃত হবে বলে খালিজ টাইমস ওই প্রতিবেদনে জানিয়েছে। সাধারণ কাপড়ের বদলে ২০৩০ সাল থেকে বাণিজ্যিকভাবে এই কাপড়ের ইহরামের ব্যবহার শুরু হবে।

হজে সাধারণ কাপড় বাদ,আসছে ন্যানোটেকনোলজি যুক্ত ইহরাম

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৬ জুন ২০২১, ১০:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হজে সাধারণ কাপড় বাদ,আসছে ন্যানোটেকনোলজি যুক্ত ইহরাম
ছবি : সংগৃহীত

সাধারণ কাপড়ের বদলে ন্যানোটেকনোলজি সংযুক্ত এবং ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধী কাপড় দিয়ে তৈরি করা হবে হজ ও ওমরাহর ইহরাম।

সাধারণত হজ ও ওমরাহর সময় মুসলিমরা যে দুই খণ্ড সেলাইবিহীন সাদা কাপড় পরিধান করেন তাকে ইহরাম বলা হয়। একেবারেই সাধারণ ওই সুতি কাপড় পরে হজের আনুষ্ঠানিকতা সারেন মুসলিমরা। 

সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে সেই ইহরাম আধুনিক হচ্ছে খালিজ টাইমস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

পাকিস্তানে তৈরি এ ধরনের ইহরাম প্রথম ব্যবহৃত হয় ২০২০ সালে হজের সময়। সৌদি উদ্ভাবক হামাদ আল-ইয়ামি এই ইহরাম আবিষ্কার করেন।

ন্যানোটেকনোলজি যুক্ত কাপড়টি ব্যাকটেরিয়া বাড়তে দেয় না। শতভাগ সুতার তৈরি ওই ইহরাম ৯০ বারেরও বেশি ধোয়া যাবে বলে খালিজ টাইমস ওই প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

সৌদি স্ট্যান্ডার্ডস, মেট্রোলজি অ্যান্ড কোয়ালিটি অর্গানাইজেশন (এসএএসও)আন্তর্জাতিক মানদণ্ড বজায় রেখে তৈরি ইহরামে ওই কাপড়ের অনুমোদন দিয়েছে।

এবারের হজেও অত্যাধুনিক কাপড়ের ইহরাম ব্যবহৃত হবে বলে খালিজ টাইমস ওই প্রতিবেদনে জানিয়েছে। সাধারণ কাপড়ের বদলে ২০৩০ সাল থেকে বাণিজ্যিকভাবে এই কাপড়ের ইহরামের ব্যবহার শুরু হবে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন