ভূমধ্যসাগর থেকে বাংলাদেশিসহ ২৬৭ জন উদ্ধার
jugantor
ভূমধ্যসাগর থেকে বাংলাদেশিসহ ২৬৭ জন উদ্ধার

  অনলাইন ডেস্ক  

২৫ জুন ২০২১, ১৩:০৭:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

লিবিয়া থেকে ইউরোপ যাওয়ার পথে ভূমধ্যসাগর থেকে ২৬৭ অভিবাসনপ্রত্যাশীকে উদ্ধার করেছে তিউনিশিয়ার কোস্টগার্ড। উদ্ধার হওয়া অভিবাসনপ্রত্যাশীদের অধিকাংশই বাংলাদেশি বলে জানা গেছে।

ইন্টারন্যাশনাল অরগানাইজেশন ফর মাইগ্রেশন (আইওএম) এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। খবর আই২৪নিউজ.টিভির।

তিউনিশিয়ার কোস্টগার্ড জানায়, নৌবাহিনী এসব অভিবাসনপ্রত্যাশীদের উদ্ধার করে উপকূলে নিয়ে আসার পর তাদের আইওএম ও রেড ক্রিসেন্টের হাতে তুলে দিয়েছে।

আইওএম জানায়, তিউনিশিয়ার দ্বীপ জেরবার একটি হোটেলে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে উদ্ধার হওয়া অভিবাসনপ্রত্যাশীদের।

আইওএম আরও জানায়, জানুয়ারি থেকে এক হাজারেরও বেশি অভিবাসনপ্রত্যাশী লিবিয়া থেকে ইউরোপ যাওয়ার চেষ্টা করার সময় তিউনিশিয়ায় ধরা পড়ে। এ সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

জাতিসংঘের তথ্যানুযায়ী, ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ মে পর্যন্ত ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপ যাওয়ার সময় অন্তত ৭৬০ অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যু হয়েছে।

ভূমধ্যসাগর থেকে বাংলাদেশিসহ ২৬৭ জন উদ্ধার

 অনলাইন ডেস্ক 
২৫ জুন ২০২১, ০১:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

লিবিয়া থেকে ইউরোপ যাওয়ার পথে ভূমধ্যসাগর থেকে ২৬৭ অভিবাসনপ্রত্যাশীকে উদ্ধার করেছে তিউনিশিয়ার কোস্টগার্ড। উদ্ধার হওয়া অভিবাসনপ্রত্যাশীদের অধিকাংশই বাংলাদেশি বলে জানা গেছে।

ইন্টারন্যাশনাল অরগানাইজেশন ফর মাইগ্রেশন (আইওএম) এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। খবর আই২৪নিউজ.টিভির।

তিউনিশিয়ার কোস্টগার্ড জানায়, নৌবাহিনী এসব অভিবাসনপ্রত্যাশীদের উদ্ধার করে উপকূলে নিয়ে আসার পর তাদের আইওএম ও রেড ক্রিসেন্টের হাতে তুলে দিয়েছে।

আইওএম জানায়, তিউনিশিয়ার দ্বীপ জেরবার একটি হোটেলে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে উদ্ধার হওয়া অভিবাসনপ্রত্যাশীদের।

আইওএম আরও জানায়, জানুয়ারি থেকে এক হাজারেরও বেশি অভিবাসনপ্রত্যাশী লিবিয়া থেকে ইউরোপ যাওয়ার চেষ্টা করার সময় তিউনিশিয়ায় ধরা পড়ে। এ সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

জাতিসংঘের তথ্যানুযায়ী, ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ মে পর্যন্ত ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপ যাওয়ার সময় অন্তত ৭৬০ অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যু হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন