যেভাবে ধসে পড়ল মায়ামির ১২ তলা ভবনটি (ভিডিও)
jugantor
যেভাবে ধসে পড়ল মায়ামির ১২ তলা ভবনটি (ভিডিও)

  অনলাইন ডেস্ক  

২৫ জুন ২০২১, ১৬:০৬:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার অঙ্গরাজ্যের মায়ামির সার্ফসাইড এলাকায় ১২ তলা একটি ভবনধসে কমপক্ষে একজনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন ৯৯ জন। এর মধ্যে ২০ জন ইহুদি রয়েছেন। যদিও তারা ইসরাইলের নাগরিক কিনা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

শুক্রবার ইসরাইলি গণমাধ্যম জেরুজালেম পোস্ট এসব তথ্য জানায়।

এদিকে টুইটার পোস্টের সৌজন্যে ভবনটি ধসে পড়ার একটি ভিডিও ছড়িয়ে গেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

অ্যান্ডি স্ল্যাটার নামের একজন টিভি হোস্ট ভিডিওটি পোস্ট করেন। ইতোমধ্যে দুই মিলিয়নেরও বেশি মানুষ ভিডিওটি দেখেছেন এবং অসংখ্য মানুষ এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার ধসে যাওয়া ভবনের একটি অংশ এখনও দাঁড়িয়ে রয়েছে। উদ্ধারকর্মীরা ৩৫ জনকে উদ্ধার করেছেন। এদের মধ্যে ১১ জন গুরুতর আহত।

সিএনএনের খবরে বলা হয়, নিখোঁজদের মধ্যে প্যারাগুয়ের ছয়জন, কলম্বিয়ার ছয়, ভেনিজুয়েলার ছয়, আর্জেন্টিনার ৯ জন এবং উরুগুয়ের তিনজন নাগরিক রয়েছেন।

পুলিশ বলেছে, ওই ভবনটি নির্মাণ করা হয়েছিল ১৯৮০ সালে। এতে ১৩০টি ইউনিট ছিল। এই ধসের কারণে অর্ধেক ইউনিট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আর ধসের সময় ঠিক কতজন ভবনে উপস্থিত ছিলেন তা জানা যায়নি।

যেভাবে ধসে পড়ল মায়ামির ১২ তলা ভবনটি (ভিডিও)

 অনলাইন ডেস্ক 
২৫ জুন ২০২১, ০৪:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার অঙ্গরাজ্যের মায়ামির সার্ফসাইড এলাকায় ১২ তলা একটি ভবনধসে কমপক্ষে একজনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন ৯৯ জন। এর মধ্যে ২০ জন ইহুদি রয়েছেন। যদিও তারা ইসরাইলের নাগরিক কিনা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

শুক্রবার ইসরাইলি গণমাধ্যম জেরুজালেম পোস্ট এসব তথ্য জানায়।

এদিকে টুইটার পোস্টের সৌজন্যে ভবনটি ধসে পড়ার একটি ভিডিও ছড়িয়ে গেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

অ্যান্ডি স্ল্যাটার নামের একজন টিভি হোস্ট ভিডিওটি পোস্ট করেন। ইতোমধ্যে দুই মিলিয়নেরও বেশি মানুষ ভিডিওটি দেখেছেন এবং অসংখ্য মানুষ এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছেন। 

বৃহস্পতিবার ধসে যাওয়া ভবনের একটি অংশ এখনও দাঁড়িয়ে রয়েছে। উদ্ধারকর্মীরা ৩৫ জনকে উদ্ধার করেছেন। এদের মধ্যে ১১ জন গুরুতর আহত।

সিএনএনের খবরে বলা হয়, নিখোঁজদের মধ্যে প্যারাগুয়ের ছয়জন, কলম্বিয়ার ছয়, ভেনিজুয়েলার ছয়, আর্জেন্টিনার ৯ জন এবং উরুগুয়ের তিনজন নাগরিক রয়েছেন।

পুলিশ বলেছে, ওই ভবনটি নির্মাণ করা হয়েছিল ১৯৮০ সালে। এতে ১৩০টি ইউনিট ছিল। এই ধসের কারণে অর্ধেক ইউনিট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আর ধসের সময় ঠিক কতজন ভবনে উপস্থিত ছিলেন তা জানা যায়নি।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন