ইরানের প্রশাসনিক ব্যবস্থা ঢেলে সাজাবেন ইব্রাহিম রাইসি
jugantor
ইরানের প্রশাসনিক ব্যবস্থা ঢেলে সাজাবেন ইব্রাহিম রাইসি

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৬ জুন ২০২১, ১২:৩৪:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রশাসনিক ব্যবস্থা ঢেলে সাজাবেন ইব্রাহিম রাইসি

দেশের প্রশাসনিক ব্যবস্থা ঢেলে সাজানোর ঘোষণা দিয়েছেন ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি। এর পাশাপাশি কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করা তার প্রশাসনের অগ্রাধিকার-ভিত্তিক কাজ বলে জানিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার (২৫ জুন) টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচারিত প্রথম সাক্ষাৎকারে রাইসি একথা বলেন। এতে দেশে বিরাজমান বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে জাতীয় ঐক্য ও সংহতিকে গুরুত্বপূর্ণ নিয়ামক শক্তি হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি।

রাইসি বলেন, ইরানের বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং গত দেড় বছরেরও বেশি সময় ধরে চলা করোনাভাইরাস মহামারি থেকে জনগণকে মুক্তি দেওয়াই হবে তার প্রশাসনের অগ্রাধিকার-ভিত্তিক কাজ। বিষয়টি নিয়ে তিনি সারাক্ষণ ভাবছেন। এছাড়া, নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী দেশের সকল নাগরিকের জন্য গৃহায়ণ প্রকল্প বাস্তবায়নেও জোর দেওয়ার আশ্বাস দেন নতুন এ প্রেসিডেন্ট।

রাতারাতি এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা সম্ভব নয় বলেও জানান তিনি। তবে যত দ্রুত সম্ভব তিনি কাজ শুরু করতে চান বলে জানিয়েছেন রাইনি। একইসঙ্গে দেশে বিরাজমান বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে জাতীয় ঐক্য ও সংহতিকে গুরুত্বপূর্ণ নিয়ামক শক্তি হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি।

আগামী ৩ আগস্ট ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ গ্রহণ করবেন কট্টরপন্থি ইব্রাহিম রাইসি। ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইব্রাহিম রাইসি ৬১ দশমিক ৯৫ শতাংশ ভোট পেয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন।

১৯৭৯ সালের ইসলামি বিপ্লবের পর ইরানে এবারের নির্বাচনে সবচেয়ে কম ভোট পড়েছে। মাত্র ৪৮ দশমিক ৮ শতাংশ ভোট পড়েছে। ইব্রাহিম রাইসি দুই কোটি ৮৯ লাখ ৩৩ হাজার ৪ ভোট পেয়েছেন।

ইরানের প্রশাসনিক ব্যবস্থা ঢেলে সাজাবেন ইব্রাহিম রাইসি

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৬ জুন ২০২১, ১২:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
প্রশাসনিক ব্যবস্থা ঢেলে সাজাবেন ইব্রাহিম রাইসি
ছবি: ইরনা

দেশের প্রশাসনিক ব্যবস্থা ঢেলে সাজানোর ঘোষণা দিয়েছেন ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি।  এর পাশাপাশি কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করা তার প্রশাসনের অগ্রাধিকার-ভিত্তিক কাজ বলে জানিয়েছেন তিনি।  

শুক্রবার (২৫ জুন) টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচারিত প্রথম সাক্ষাৎকারে রাইসি একথা বলেন।  এতে দেশে বিরাজমান বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে জাতীয় ঐক্য ও সংহতিকে গুরুত্বপূর্ণ নিয়ামক শক্তি হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি।

রাইসি বলেন, ইরানের বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং গত দেড় বছরেরও বেশি সময় ধরে চলা করোনাভাইরাস মহামারি থেকে জনগণকে মুক্তি দেওয়াই হবে তার প্রশাসনের অগ্রাধিকার-ভিত্তিক কাজ। বিষয়টি নিয়ে তিনি সারাক্ষণ ভাবছেন। এছাড়া, নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী দেশের সকল নাগরিকের জন্য গৃহায়ণ প্রকল্প বাস্তবায়নেও জোর দেওয়ার আশ্বাস দেন নতুন এ প্রেসিডেন্ট।

রাতারাতি এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা সম্ভব নয় বলেও জানান তিনি।  তবে যত দ্রুত সম্ভব তিনি কাজ শুরু করতে চান বলে জানিয়েছেন রাইনি। একইসঙ্গে দেশে বিরাজমান বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে জাতীয় ঐক্য ও সংহতিকে গুরুত্বপূর্ণ নিয়ামক শক্তি হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি।

আগামী ৩ আগস্ট ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ গ্রহণ করবেন কট্টরপন্থি ইব্রাহিম রাইসি। ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইব্রাহিম রাইসি ৬১ দশমিক ৯৫ শতাংশ ভোট পেয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন। 

১৯৭৯ সালের ইসলামি বিপ্লবের পর ইরানে এবারের নির্বাচনে সবচেয়ে কম ভোট পড়েছে। মাত্র ৪৮ দশমিক ৮ শতাংশ ভোট পড়েছে। ইব্রাহিম রাইসি দুই কোটি ৮৯ লাখ ৩৩ হাজার ৪ ভোট পেয়েছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন