টিকটক অ্যাকাউন্ট খুলেছেন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট
jugantor
টিকটক অ্যাকাউন্ট খুলেছেন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট

  অনলাইন ডেস্ক  

১৮ জুলাই ২০২১, ১৯:২৬:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি

পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি টিকটকে অ্যাকাউন্ট খুলেছেন। এটা নিয়ে নেটিজেনরাসামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে।

পাকিস্তানের স্থানীয় গণমাধ্যম ডনের খবরে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট আলভি শুক্রবার টিকটকে অ্যাকাউন্ট খুলেছেন। পাকিস্তানের প্রেসিডেন্টের অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে থেকে এ তথ্য উল্লেখকরা হয়। এতে টিকটক অ্যাকাউন্টের লিংক শেয়ার করে বলা হয়, পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট এখন টিকটকে।

পাকিস্তান প্রেসিডেন্টের এমন উদ্যোগে কেউ কেউ সাধুবাদ জানিয়েছেন আবার কেউ কেউ এটা নিয়ে মজা করেছেন।

একজন টুইটারে লেখেন, এটা বাস্তববাদী ও দারুণ একটি উদ্যোগ।

আরেক টুইটার ব্যবহারকারী লেখেন, প্রেসিডেন্টের এমন উদ্যোগে প্রথমে আমি হতাশ হয়েছিলাম। কিন্তু পরে আমি উপলব্ধি করি যে আমাদের দেশের নিষ্কর্মা তরুণদের বার্তা দিতে এটা মোক্ষম একটি জায়গা। কেননা পাকিস্তানি তরুণ প্রজন্ম বেশির ভাগ সময় এ ধরনের অপ্রয়োজনীয় জিনিস দেখেই কাটায়। তবে প্রেসিডেন্টের এই উদ্যোগ কতটা ফলপ্রসূ তা নিয়ে তিনি সন্দেহ পোষণ করেন।

আরেকজন টুইটার ব্যবহারকারী প্রেসিডেন্ট আলভিকে নাচের আহ্বান জানিয়েছেন। মজা করে তিনি লিখেছেন, আপনি টিকটকে থাকবেন আর নাচের চ্যালেঞ্জ নেবেন না, তা কি হয়?

প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র বলছেন, পাকিস্তানের তরুণদের মধ্যে ইতিবাচক বার্তা ছড়িয়ে দিতে তিনি টুইটারে যুক্ত হয়েছেন। তার (প্রেসিডেন্ট আলভি) টিকটক অ্যাকাউন্ট থেকে গঠনমূলক ভিডিও শেয়ার করা হবে।

প্রেসিডেন্ট আলভির টিকটক অ্যাকাউন্টে এরই মধ্যে তার পুরোনো একটি বক্তব্যের ভিডিও আপলোড করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের অক্টোবরে পাকিস্তানে প্রথমবার টিকটক নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। তখন এই নিষেধাজ্ঞা কয়েক দিন চলে। এরপর চলতি বছরের মার্চ মাসে পেশোয়ার হাইকোর্টের রায়ের পর পাকিস্তানে ফের নিষিদ্ধ করা হয় চীনা অ্যাপ টিকটক। আদালতের মতে, টিকটকে যে ভিডিও আপলোড করা হয়, তা অনৈতিক ও পাকিস্তানের নৈতিক মূল্যবোধ ও মাপদণ্ডের সঙ্গে খাপ খায় না।

পরেটিকটক অশ্লীল ও অনৈতিক পোস্ট যারা দিচ্ছে, তাদের সব অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলে পাকিস্তান ফের টিকটক চালুর অনুমতি দেয়।

টিকটক অ্যাকাউন্ট খুলেছেন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট

 অনলাইন ডেস্ক 
১৮ জুলাই ২০২১, ০৭:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি
পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি। ছবি: আনাদোলু এজেন্সি

পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি টিকটকে অ্যাকাউন্ট খুলেছেন। এটা নিয়ে নেটিজেনরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে।

পাকিস্তানের স্থানীয় গণমাধ্যম ডনের খবরে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট আলভি শুক্রবার টিকটকে অ্যাকাউন্ট খুলেছেন। পাকিস্তানের প্রেসিডেন্টের অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে থেকে এ তথ্য উল্লেখ করা হয়। এতে টিকটক অ্যাকাউন্টের লিংক শেয়ার করে বলা হয়, পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট এখন টিকটকে। 

পাকিস্তান প্রেসিডেন্টের এমন উদ্যোগে কেউ কেউ সাধুবাদ জানিয়েছেন আবার কেউ কেউ এটা নিয়ে মজা করেছেন। 

একজন টুইটারে লেখেন, এটা বাস্তববাদী ও দারুণ একটি উদ্যোগ।

আরেক টুইটার ব্যবহারকারী লেখেন, প্রেসিডেন্টের এমন উদ্যোগে প্রথমে আমি হতাশ হয়েছিলাম। কিন্তু পরে আমি উপলব্ধি করি যে আমাদের দেশের নিষ্কর্মা তরুণদের বার্তা দিতে এটা মোক্ষম একটি জায়গা। কেননা পাকিস্তানি তরুণ প্রজন্ম বেশির ভাগ সময় এ ধরনের অপ্রয়োজনীয় জিনিস দেখেই কাটায়। তবে প্রেসিডেন্টের এই উদ্যোগ কতটা ফলপ্রসূ তা নিয়ে তিনি সন্দেহ পোষণ করেন। 

আরেকজন টুইটার ব্যবহারকারী প্রেসিডেন্ট আলভিকে নাচের আহ্বান জানিয়েছেন। মজা করে তিনি লিখেছেন, আপনি টিকটকে থাকবেন আর নাচের চ্যালেঞ্জ নেবেন না, তা কি হয়?

প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র বলছেন, পাকিস্তানের তরুণদের মধ্যে ইতিবাচক বার্তা ছড়িয়ে দিতে তিনি টুইটারে যুক্ত হয়েছেন। তার (প্রেসিডেন্ট আলভি) টিকটক অ্যাকাউন্ট থেকে গঠনমূলক ভিডিও শেয়ার করা হবে। 

প্রেসিডেন্ট আলভির টিকটক অ্যাকাউন্টে এরই মধ্যে তার পুরোনো একটি বক্তব্যের ভিডিও আপলোড করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের অক্টোবরে পাকিস্তানে প্রথমবার টিকটক নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। তখন এই নিষেধাজ্ঞা কয়েক দিন চলে। এরপর চলতি বছরের মার্চ মাসে পেশোয়ার হাইকোর্টের রায়ের পর পাকিস্তানে ফের নিষিদ্ধ করা হয় চীনা অ্যাপ টিকটক। আদালতের মতে, টিকটকে যে ভিডিও আপলোড করা হয়, তা অনৈতিক ও পাকিস্তানের নৈতিক মূল্যবোধ ও মাপদণ্ডের সঙ্গে খাপ খায় না। 

পরে টিকটক অশ্লীল ও অনৈতিক পোস্ট যারা দিচ্ছে, তাদের সব অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলে পাকিস্তান ফের টিকটক চালুর অনুমতি দেয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন