স্ত্রীর বেশ ধরে ফ্লাইটে উঠলেন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি, অতঃপর..
jugantor
স্ত্রীর বেশ ধরে ফ্লাইটে উঠলেন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি, অতঃপর..

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক  

২৩ জুলাই ২০২১, ০৬:১৪:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

নিজের স্ত্রীর বেশ ধরে একটি অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে চড়েছেন করোনা আক্রান্ত এক ইন্দোনেশিয়ান ব্যক্তি। তবে তাতে শেষ রক্ষা হয়নি। ফ্লাইট অবতরণের পরই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে।

সিটিলিংকের জাকার্তা থেকে টার্নেটগামী একটি ফ্লাইট রোববার এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে মার্কিন বার্তা সংস্থা এসোসিয়েটেড প্রেস (এপি)।

এপি জানায়, হিজাব ও বোরকা পরে আপাদমস্তক ঢেকে হালিম পেরদানা কাসুমা বিমানবন্দরে আসেন ওই ব্যক্তি। এরপর ভুয়া পরিচয়পত্র ও করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট দেখিয়ে বিমানে উঠেন। ফ্লাইট উড্ডয়নের পর এক ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট টয়লেটে ওই ব্যক্তির পোশাক পাল্টানোর বিষয়টি খেয়াল করেন।

টার্নেট পুলিশ প্রধান আদিত্য লাকসিমাদা বলেন, গ্রেফতার ব্যক্তি যে সব কাগজপত্র দেখিয়েছেন সব তার স্ত্রীর নামে। স্ত্রীর পিসিআর পরীক্ষার ফল নেগেভিট এসেছে। সেই রিপোর্টটি নিয়ে আসেন ওই ব্যক্তি। সঙ্গে স্ত্রীর ভ্যাকসিন নেওয়ার কার্ড আনেন।

লাকসিমাদা আরো জানান,গ্রেফতারের পর ওই ব্যক্তির করোনা পরীক্ষায় করানো হয়। এতে ফল পজিটিভ এসেছে।
তাকে সেল্ফ-আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। তিনি কেন এমনটা করেছেন তার তদন্ত করছে পুলিশ।

ইন্দোনেশিয়ায় করোনার সংক্রমণ ফের উর্ধ্বগতি। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে ঈদুল আজহার ছুটিতে ভ্রমণে বিধিনিষেধ কঠোরতা আরোপ কার হয়েছে। কেবল করোনা নেগেটিভ রিপোর্টধারীরাই ঘুরতে পারবেন।

স্ত্রীর বেশ ধরে ফ্লাইটে উঠলেন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি, অতঃপর..

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক 
২৩ জুলাই ২০২১, ০৬:১৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নিজের স্ত্রীর বেশ ধরে একটি অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে চড়েছেন করোনা আক্রান্ত এক ইন্দোনেশিয়ান ব্যক্তি। তবে তাতে শেষ রক্ষা হয়নি। ফ্লাইট অবতরণের পরই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে।

 সিটিলিংকের জাকার্তা থেকে টার্নেটগামী একটি ফ্লাইট রোববার এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে মার্কিন বার্তা সংস্থা এসোসিয়েটেড প্রেস (এপি)।

এপি জানায়, হিজাব ও বোরকা পরে আপাদমস্তক ঢেকে হালিম পেরদানা কাসুমা বিমানবন্দরে আসেন ওই ব্যক্তি। এরপর ভুয়া পরিচয়পত্র ও করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট দেখিয়ে বিমানে উঠেন। ফ্লাইট উড্ডয়নের পর এক ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট টয়লেটে ওই ব্যক্তির পোশাক পাল্টানোর বিষয়টি খেয়াল করেন।

টার্নেট পুলিশ প্রধান আদিত্য লাকসিমাদা বলেন, গ্রেফতার ব্যক্তি যে সব কাগজপত্র দেখিয়েছেন সব তার স্ত্রীর নামে। স্ত্রীর পিসিআর পরীক্ষার ফল নেগেভিট এসেছে। সেই রিপোর্টটি নিয়ে আসেন ওই ব্যক্তি। সঙ্গে স্ত্রীর ভ্যাকসিন নেওয়ার কার্ড আনেন।

লাকসিমাদা আরো জানান,গ্রেফতারের পর ওই ব্যক্তির করোনা পরীক্ষায় করানো হয়। এতে ফল পজিটিভ এসেছে।
তাকে সেল্ফ-আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। তিনি কেন এমনটা করেছেন তার তদন্ত করছে পুলিশ।

ইন্দোনেশিয়ায় করোনার সংক্রমণ ফের উর্ধ্বগতি। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে ঈদুল আজহার ছুটিতে ভ্রমণে বিধিনিষেধ কঠোরতা আরোপ কার হয়েছে। কেবল করোনা নেগেটিভ রিপোর্টধারীরাই ঘুরতে পারবেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন