প্রেমিকার বাড়ির সামনে প্রেমিকের শেষকৃত্য!
jugantor
প্রেমিকার বাড়ির সামনে প্রেমিকের শেষকৃত্য!

  অনলাইন ডেস্ক  

২৫ জুলাই ২০২১, ১৫:১১:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

লাশ

ভারতে এক কিশোরকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে প্রেমিকার পরিবারের বিরুদ্ধে। হত্যার পর ১৭ বছর বয়সী ওই কিশোরের যৌনাঙ্গ কেটে ফেলা হয়েছে।

এ ঘটনার পর হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের বাড়ির বাইরে বিক্ষোভ ও ভাঙচুর করেছে স্থানীয়রা। সেখানে নিহত কিশোরের শেষকৃত্যও করেছে ক্ষুব্ধ জনতা।

গত শুক্রবার রাতে বিহারের মুজফ্ফরপুরের কান্তি থানা এলাকার রেপুরা রামপুরশাহ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর এএনআইয়ের।

স্থানীয়দের অভিযোগ, সৌরভ কুমার নামের ওই কিশোর সোরবারা এলাকায় প্রেমিকার বাড়িতে দেখা করতে গিয়েছিল। এ সময় তাকে সেখানে দেখে বেধড়ক মারধর করেন মেয়েটির বাড়ির লোকেরা।

গুরুতর আহত অবস্থায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই মৃত্যু হয় সৌরভের।

এ ঘটনার পরেই কান্তি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

মুজফ্ফরপুরের পুলিশ সুপার রাজেশ কুমার বলন, প্রাথমিকভাবে দেখে মনে হচ্ছে প্রেমের সম্পর্ক থাকায় ওই কিশোরকে খুন করা হয়েছে। তাকে বেধড়ক মারধর করা হয় ও তার যৌনাঙ্গ কেটে নেয়া হয়।

এদিকে সৌরভের মৃত্যুর পর তার পরিবার ও স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযুক্ত সুশান্ত পাণ্ডের বাড়িতে হামলা চালায়। তার বাড়ির সামনে বিক্ষোভ ও সৌরভের শেষকৃত্য করা হয়।

মূল অভিযুক্ত সুশান্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এছাড়া সুশান্তের বাড়িতে হামলা চালানোর অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই গ্রামে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

প্রেমিকার বাড়ির সামনে প্রেমিকের শেষকৃত্য!

 অনলাইন ডেস্ক 
২৫ জুলাই ২০২১, ০৩:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
লাশ
ছবি-সংগৃহীত

ভারতে এক কিশোরকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে প্রেমিকার পরিবারের বিরুদ্ধে। হত্যার পর ১৭ বছর বয়সী ওই কিশোরের যৌনাঙ্গ কেটে ফেলা হয়েছে। 

এ ঘটনার পর হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের বাড়ির বাইরে বিক্ষোভ ও ভাঙচুর করেছে স্থানীয়রা। সেখানে নিহত কিশোরের শেষকৃত্যও করেছে ক্ষুব্ধ জনতা।

গত শুক্রবার রাতে বিহারের মুজফ্ফরপুরের কান্তি থানা এলাকার রেপুরা রামপুরশাহ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর এএনআইয়ের।

স্থানীয়দের অভিযোগ, সৌরভ কুমার নামের ওই কিশোর সোরবারা এলাকায় প্রেমিকার বাড়িতে দেখা করতে গিয়েছিল। এ সময় তাকে সেখানে দেখে বেধড়ক মারধর করেন মেয়েটির বাড়ির লোকেরা। 

গুরুতর আহত অবস্থায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই মৃত্যু হয় সৌরভের। 

এ ঘটনার পরেই কান্তি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

মুজফ্ফরপুরের পুলিশ সুপার রাজেশ কুমার বলন, প্রাথমিকভাবে দেখে মনে হচ্ছে প্রেমের সম্পর্ক থাকায় ওই কিশোরকে খুন করা হয়েছে। তাকে বেধড়ক মারধর করা হয় ও তার যৌনাঙ্গ কেটে নেয়া হয়। 

এদিকে সৌরভের মৃত্যুর পর তার পরিবার ও স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযুক্ত সুশান্ত পাণ্ডের বাড়িতে হামলা চালায়। তার বাড়ির সামনে বিক্ষোভ ও সৌরভের শেষকৃত্য করা হয়। 

মূল অভিযুক্ত সুশান্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এছাড়া সুশান্তের বাড়িতে হামলা চালানোর অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই গ্রামে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন