পানির নিচের জাদুঘরে মিলছে প্রাচীন সভ্যতা দেখার সুযোগ (ভিডিও)
jugantor
পানির নিচের জাদুঘরে মিলছে প্রাচীন সভ্যতা দেখার সুযোগ (ভিডিও)

  অনলাইন ডেস্ক  

২৬ জুলাই ২০২১, ০৩:৫২:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

গ্রিসের প্রথম সমুদ্রের নিচের জাদুঘরের অবস্থান এজিয়ান সাগরের উত্তরে আলোনিসস দ্বীপের কাছে।

সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য সমুদ্রের নিচের জাদুঘরে প্রাচীন সভ্যতার নিদর্শন দেখার সুযোগ করে দিয়েছে গ্রিস। এর আগে প্রত্নতাত্ত্বিক ও বিশেষজ্ঞরাই সাধারণত এই সুযোগ পেতেন।

গ্রিসের প্রথম সমুদ্রের নিচের জাদুঘরের অবস্থান এজিয়ান সাগরের উত্তরে আলোনিসস দ্বীপের কাছে।

আলোনিসস ও পেরিস্টেরা দ্বীপের মাঝে সমুদ্রের নিচে প্রায় চার হাজার প্রাচীন অ্যাম্ফোরে বা মাটির কলসি ছড়িয়ে রয়েছে৷ এই মূল্যবান সম্পদের যেন ক্ষতি না হয় তাই খুব সতর্কতার সাথে দর্শনার্থীদের জাদুঘর ঘুরে দেখতে হয়।

সমুদ্রের নিচে প্রায় ২৮ মিটার গভীরে প্রাচীন এক জাহাজের ধ্বংসাবশেষ দেখা যায়৷ জাহাজের কাঠ প্রায় পুরোপুরি ক্ষয়ে গেছে, মালপত্র হিসেবে শুধু ওয়াইনের পাত্র দেখা যায়৷ ওই জাহাজটি প্রায় আড়াই হাজার বছর পুরানো এক বাণিজ্য জাহাজ বলে ধারণা করা হয়৷ আগুন লেগে জাহাজটি এথেন্সে ডুবে গিয়েছিল।

এর আগে সেখানে প্রত্নতাত্ত্বিক ও বিশেষজ্ঞরা যাওয়ার সুযোগ পেলেও ২০২০ সালে একটি আইন পাসের পর সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য তা উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

পানির নিচের এই জাদুঘর দেখতে পর্যটকদের গুনতে হয় ৯৫ ইউরো। বিনিময়ে ৪০ মিনিট সেখানে থাকার সুযোগ পান তারা।

পানির নিচের জাদুঘরে মিলছে প্রাচীন সভ্যতা দেখার সুযোগ (ভিডিও)

 অনলাইন ডেস্ক 
২৬ জুলাই ২০২১, ০৩:৫২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
গ্রিসের প্রথম সমুদ্রের নিচের জাদুঘরের অবস্থান এজিয়ান সাগরের উত্তরে আলোনিসস দ্বীপের কাছে।
গ্রিসের সমুদ্রের নিচের জাদুঘরের অবস্থান এজিয়ান সাগরের উত্তরে আলোনিসস দ্বীপের কাছে

সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য সমুদ্রের নিচের জাদুঘরে প্রাচীন সভ্যতার নিদর্শন দেখার সুযোগ করে দিয়েছে গ্রিস। এর আগে প্রত্নতাত্ত্বিক ও বিশেষজ্ঞরাই সাধারণত এই সুযোগ পেতেন।

গ্রিসের প্রথম সমুদ্রের নিচের জাদুঘরের অবস্থান এজিয়ান সাগরের উত্তরে আলোনিসস দ্বীপের কাছে।

আলোনিসস ও পেরিস্টেরা দ্বীপের মাঝে সমুদ্রের নিচে প্রায় চার হাজার প্রাচীন অ্যাম্ফোরে বা মাটির কলসি ছড়িয়ে রয়েছে৷ এই মূল্যবান সম্পদের যেন ক্ষতি না হয় তাই খুব সতর্কতার সাথে দর্শনার্থীদের জাদুঘর ঘুরে দেখতে হয়।

সমুদ্রের নিচে প্রায় ২৮ মিটার গভীরে প্রাচীন এক জাহাজের ধ্বংসাবশেষ দেখা যায়৷ জাহাজের কাঠ প্রায় পুরোপুরি ক্ষয়ে গেছে, মালপত্র হিসেবে শুধু ওয়াইনের পাত্র দেখা যায়৷ ওই জাহাজটি প্রায় আড়াই হাজার বছর পুরানো এক বাণিজ্য জাহাজ বলে ধারণা করা হয়৷ আগুন লেগে জাহাজটি এথেন্সে ডুবে গিয়েছিল।

এর আগে সেখানে প্রত্নতাত্ত্বিক ও বিশেষজ্ঞরা যাওয়ার সুযোগ পেলেও ২০২০ সালে একটি আইন পাসের পর সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য তা উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

পানির নিচের এই জাদুঘর দেখতে পর্যটকদের গুনতে হয় ৯৫ ইউরো। বিনিময়ে ৪০ মিনিট সেখানে থাকার সুযোগ পান তারা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন