লিবিয়ায় নৌকা ডুবে ৫৭ অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যুর আশঙ্কা
jugantor
লিবিয়ায় নৌকা ডুবে ৫৭ অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যুর আশঙ্কা

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৭ জুলাই ২০২১, ০৪:২৫:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

লিবিয়া উপকূলে নৌকা ডুবে ৫৭ জন অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যুর আশঙ্কা করছে জাতিসংঘ।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার (আইওএম) মুখপাত্র সাফা মেহলি জানান,লিবিয়ায় পশ্চিম উপকূলীয় শহর খুমসের কাছে রোববার এই দুর্ঘটনা ঘটে। নৌকাটিতে কমপক্ষে ৭৩ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী ছিলেন বলে আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ওই নৌকা থেকে ১৮ জনকে জেলে আর কোস্টগার্ডরা উদ্ধার করে তীরে নিয়ে আসে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সাফা আরও জানান, নৌকাটিতে নাইজেরিয়া, ঘানা এবং গাম্বিয়ার নাগরিকরা ছিলেন। বেঁচে যাওয়া অভিবাসনপ্রত্যাশীরা জানিয়েছেন, নৌকাটির ইঞ্জিন প্রথমে বন্ধ হয়ে যায়। পরে খারাপ আবহাওয়ার কারণে তা ডুবে যায়।

টুইটারে সাফা জানিয়েছেন, নৌকাটিতে কমপক্ষে ২০ জন নারী ও দু’জন শিশু ছিল।

আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্য থেকে দারিদ্র্যের কারণে হাজার হাজার অভিবাসী সম্প্রতি ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়েছেন। এসব অভিবাসীর বেশিরভাগেরই গন্তব্য ইতালি। ২০২১ সালে অভিবাসীদের যাওয়ার হার আবার বেড়েছে।

ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইতালি যাবার পথে সাগরে ডুবে মৃত্যু ঘটনা থামছেই না। অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ঠেকাতে সাগরে নজরদারি বাড়ালেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অনেকে সাগর পাড়ি দিচ্ছেন।

আইওএম-এর হিসেবে ২০২১ সালের ছয় মাসে আফ্রিকা থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইতালি এবং মল্টা যাবার পথে সাগরে ডুবে পাঁচশ’রবেশি অভিবাসনপ্রত্যাশী মারা গেছে।

লিবিয়ায় নৌকা ডুবে ৫৭ অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যুর আশঙ্কা

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৭ জুলাই ২০২১, ০৪:২৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

লিবিয়া উপকূলে নৌকা ডুবে ৫৭ জন অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যুর আশঙ্কা করছে জাতিসংঘ।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক  সংস্থার  (আইওএম) মুখপাত্র সাফা মেহলি জানান,লিবিয়ায় পশ্চিম উপকূলীয় শহর খুমসের কাছে রোববার এই দুর্ঘটনা ঘটে। নৌকাটিতে কমপক্ষে ৭৩ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী ছিলেন বলে আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ওই নৌকা থেকে ১৮ জনকে জেলে আর কোস্টগার্ডরা উদ্ধার করে তীরে নিয়ে আসে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সাফা আরও জানান, নৌকাটিতে নাইজেরিয়া, ঘানা এবং গাম্বিয়ার নাগরিকরা ছিলেন। বেঁচে যাওয়া অভিবাসনপ্রত্যাশীরা জানিয়েছেন, নৌকাটির ইঞ্জিন প্রথমে বন্ধ হয়ে যায়। পরে খারাপ আবহাওয়ার কারণে তা ডুবে যায়।

টুইটারে সাফা জানিয়েছেন, নৌকাটিতে কমপক্ষে ২০ জন নারী ও দু’জন শিশু ছিল।

আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্য থেকে দারিদ্র্যের কারণে হাজার হাজার অভিবাসী সম্প্রতি ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়েছেন। এসব অভিবাসীর বেশিরভাগেরই গন্তব্য ইতালি। ২০২১ সালে অভিবাসীদের যাওয়ার হার আবার বেড়েছে।

ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইতালি যাবার পথে সাগরে ডুবে মৃত্যু ঘটনা থামছেই না। অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ঠেকাতে সাগরে নজরদারি বাড়ালেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অনেকে সাগর পাড়ি দিচ্ছেন।

আইওএম-এর হিসেবে ২০২১ সালের ছয় মাসে আফ্রিকা থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইতালি এবং মল্টা যাবার পথে সাগরে ডুবে পাঁচশ’র বেশি অভিবাসনপ্রত্যাশী মারা গেছে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন