ইরানে দাঙ্গা সৃষ্টির পরিকল্পনা ছিল মোসাদ এজেন্টদের
jugantor
ইরানে দাঙ্গা সৃষ্টির পরিকল্পনা ছিল মোসাদ এজেন্টদের

  অনলাইন ডেস্ক  

২৮ জুলাই ২০২১, ১৫:৪৬:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ইসরাইলের কুখ্যাত গুপ্তচর সংস্থা মোসাদের কয়েকজন এজেন্টকে গ্রেফতার করেছে বলে দাবি করেছেন ইরানের গোয়েন্দা বাহিনীর সদস্যরা।

আটক এসব এজেন্ট ইরানের বিভিন্ন শহরে দাঙ্গা সৃষ্টি এবং সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনার পরিকল্পনা নিয়েছিল। খবর হারেৎজের।

ইরানের গোয়েন্দা সংস্থা জানায়, ইসরাইলি এজেন্টদের আটকের পর তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়।

মোসাদের এসব এজেন্টকে ইরানের পশ্চিম সীমান্ত এলাকা থেকে আটক করা হয়। ওই এলাকায় ইরানের গোয়েন্দা সংস্থা ও নিরাপত্তা বাহিনীর নজরদারি ছিল।

তবে ঠিক কোথা থেকে এবং কতজনকে আটক করা হয়েছে তার সঠিক সংখ্যা জানায়নি ইরানের গোয়েন্দা সংস্থা।

উদ্ধার করা অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে— পিস্তল, গ্রেনেড, উইনচেস্টার শটগান, কালাশনিকভ রাইফেল এবং প্রচুর পরিমাণ গুলি।

গোয়েন্দা মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক জানান, মোসাদ এজেন্টরা এসব অস্ত্র ব্যবহার করে দেশের বিভিন্ন শহরে দাঙ্গা সৃষ্টি এবং গুপ্তহত্যা পরিচালনার পরিকল্পনা করেছিল।

তিনি আরও জানান, গত জুন মাসে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময়ও ইহুদিবাদী ইসরাইল ইরানের বিভিন্ন স্থানে অন্তর্ঘাতমূলক তৎপরতা পরিচালনার পরিকল্পনা নিয়েছিল; কিন্তু তাদের সে পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হয়নি।

ইরানে দাঙ্গা সৃষ্টির পরিকল্পনা ছিল মোসাদ এজেন্টদের

 অনলাইন ডেস্ক 
২৮ জুলাই ২০২১, ০৩:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইসরাইলের কুখ্যাত গুপ্তচর সংস্থা মোসাদের কয়েকজন এজেন্টকে গ্রেফতার করেছে বলে দাবি করেছেন ইরানের গোয়েন্দা বাহিনীর সদস্যরা।

আটক এসব এজেন্ট ইরানের বিভিন্ন শহরে দাঙ্গা সৃষ্টি এবং সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনার পরিকল্পনা নিয়েছিল। খবর হারেৎজের।

ইরানের গোয়েন্দা সংস্থা জানায়, ইসরাইলি এজেন্টদের আটকের পর তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়।

মোসাদের এসব এজেন্টকে ইরানের পশ্চিম সীমান্ত এলাকা থেকে আটক করা হয়। ওই এলাকায় ইরানের গোয়েন্দা সংস্থা ও নিরাপত্তা বাহিনীর নজরদারি ছিল।

তবে ঠিক কোথা থেকে এবং কতজনকে আটক করা হয়েছে তার সঠিক সংখ্যা জানায়নি ইরানের গোয়েন্দা সংস্থা।

উদ্ধার করা অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে— পিস্তল, গ্রেনেড, উইনচেস্টার শটগান, কালাশনিকভ রাইফেল এবং প্রচুর পরিমাণ গুলি।

গোয়েন্দা মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক জানান, মোসাদ এজেন্টরা এসব অস্ত্র ব্যবহার করে দেশের বিভিন্ন শহরে দাঙ্গা সৃষ্টি এবং গুপ্তহত্যা পরিচালনার পরিকল্পনা করেছিল।

তিনি আরও জানান, গত জুন মাসে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময়ও ইহুদিবাদী ইসরাইল ইরানের বিভিন্ন স্থানে অন্তর্ঘাতমূলক তৎপরতা পরিচালনার পরিকল্পনা নিয়েছিল; কিন্তু তাদের সে পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হয়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ইরানের পরমাণু বিজ্ঞানীকে হত্যা