এবার আইসক্রিম নিয়ে ইসরাইল-ফিলিস্তিনে নতুন দ্বন্দ্ব
jugantor
এবার আইসক্রিম নিয়ে ইসরাইল-ফিলিস্তিনে নতুন দ্বন্দ্ব

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৮ জুলাই ২০২১, ১৯:২৯:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের মধ্যকার সাম্প্রতিক অস্থিরতা দুইদেশের উপরই নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। জীবন ও জীবিকার ক্ষতি ছাড়াও আক্রান্ত অঞ্চলের মানুষ বিভিন্নভাবে এই চলমান অস্থিরতার ফল ভোগ করছে। ইসরাইলি হামলায় ফিলিস্তিনিদের জানমালের ক্ষতি হচ্ছে। এরই মধ্যে আইসক্রিম নিয়ে দুই দেশের মধ্যে শুরু হয়েছে নতুন দ্বন্দ্ব।

চলতি মাসের ১৯ তারিখে ব্রিটিশ বহুজাতিক পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ইউনিলিভারের বেন অ্যান্ড জেরিস পশ্চিম তীরে ইসরাইলের দখলকৃত পশ্চিম তীর ও জেরুজালেমে আইসক্রিম বিক্রি করবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে।

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামীরা বেন অ্যান্ড জেরিসের এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন৷ অন্যদিকে ইসরাইল এ উদ্যোগকে ইহুদিবিদ্বেষী আখ্যা দিয়ে চূড়ান্ত পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে৷

বেন অ্যান্ড জেরিস এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, অধিকৃত ফিলিস্তিনি অঞ্চলগুলোতে (ওপিটি) আইসক্রিম বিক্রি করা আমাদের মূল্যবোধের পরিপন্থি বলে আমরা বিশ্বাস করি।

এর প্রতিক্রিয়ায় বেন অ্যান্ড জেরিসকে চরম পরিণতির ব্যাপারে সর্তক করেছেন ইসরাইলের নতুন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট। বেন অ্যান্ড জেরিসের এই সিদ্ধান্তকে ইহুদিবিরোধী হিসেবে দেখা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। নাফতালি বেনেটের সঙ্গে তাল মিলিয়েছেন ইসরাইলের বেশ কয়েকজন রাজনীতিবিদ।

যদি বেন অ্যান্ড জেরিস আইসক্রিম বিক্রি করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেনি। তবে ইসরাইলের ভিন্ন আঙ্গিকে ব্যবসা চালিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছে তারা।

১৯৬৭ সালে এক যুদ্ধে পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেম দখল করে ইসরাইল। এরপর সেখানকার বাসিন্দাদের উচ্ছেদ করে ইহুদি বসতি স্থাপন করা হয়।

বেন অ্যান্ড জেরিসের আইসক্রিম ইসরাইলে খুব জনপ্রিয়। ইহুদি উৎসব ও জাতীয় দিবসগুলোতে বিশেষ স্বাদের আইসক্রিম বাজারে আনতো বেন অ্যান্ড জেরিস।

২০০০ সালে ইউনিলিভারের সাথে যোগ দেয় বেন অ্যান্ড জেরিস। তবে বেন অ্যান্ড জেরিসের স্বাধীন কমিটি সামাজিক ও পরিবেশগত বিভিন্ন ইস্যুতে সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

এর আগেও বিভিন্ন সামাজিক ও পরিবেশগত ইস্যুতে বেন অ্যান্ড জেরিসকে সোচ্চার হতে দেখা গেছে। কিছুদিন আগে যুক্তরাষ্ট্রের সমকামীদের পক্ষে ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনে সমর্থন দিয়েছিল বেন অ্যান্ড জেরিস।

এবার আইসক্রিম নিয়ে ইসরাইল-ফিলিস্তিনে নতুন দ্বন্দ্ব

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৮ জুলাই ২০২১, ০৭:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের মধ্যকার সাম্প্রতিক অস্থিরতা দুইদেশের উপরই নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। জীবন ও জীবিকার ক্ষতি ছাড়াও আক্রান্ত অঞ্চলের মানুষ বিভিন্নভাবে এই চলমান অস্থিরতার ফল ভোগ করছে। ইসরাইলি হামলায় ফিলিস্তিনিদের জানমালের ক্ষতি হচ্ছে। এরই মধ্যে আইসক্রিম নিয়ে দুই দেশের মধ্যে শুরু হয়েছে নতুন দ্বন্দ্ব।

চলতি মাসের ১৯ তারিখে ব্রিটিশ বহুজাতিক পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ইউনিলিভারের বেন অ্যান্ড জেরিস পশ্চিম তীরে ইসরাইলের দখলকৃত পশ্চিম তীর ও জেরুজালেমে আইসক্রিম বিক্রি করবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে।

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামীরা বেন অ্যান্ড জেরিসের এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন৷ অন্যদিকে ইসরাইল এ উদ্যোগকে ইহুদিবিদ্বেষী আখ্যা দিয়ে চূড়ান্ত পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে৷

বেন অ্যান্ড জেরিস এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, অধিকৃত ফিলিস্তিনি অঞ্চলগুলোতে (ওপিটি) আইসক্রিম বিক্রি করা আমাদের মূল্যবোধের পরিপন্থি বলে আমরা বিশ্বাস করি। 

এর প্রতিক্রিয়ায় বেন অ্যান্ড জেরিসকে চরম পরিণতির ব্যাপারে সর্তক করেছেন ইসরাইলের নতুন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট। বেন অ্যান্ড জেরিসের এই সিদ্ধান্তকে ইহুদিবিরোধী হিসেবে দেখা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। নাফতালি বেনেটের সঙ্গে তাল মিলিয়েছেন ইসরাইলের বেশ কয়েকজন রাজনীতিবিদ।

যদি বেন অ্যান্ড জেরিস আইসক্রিম বিক্রি করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেনি। তবে ইসরাইলের ভিন্ন আঙ্গিকে ব্যবসা চালিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছে তারা।

১৯৬৭ সালে এক যুদ্ধে পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেম দখল করে ইসরাইল। এরপর সেখানকার বাসিন্দাদের উচ্ছেদ করে ইহুদি বসতি স্থাপন করা হয়।  

বেন অ্যান্ড জেরিসের আইসক্রিম ইসরাইলে খুব জনপ্রিয়। ইহুদি উৎসব ও জাতীয় দিবসগুলোতে বিশেষ স্বাদের আইসক্রিম বাজারে আনতো বেন অ্যান্ড জেরিস।

২০০০ সালে ইউনিলিভারের সাথে যোগ দেয় বেন অ্যান্ড জেরিস। তবে বেন অ্যান্ড জেরিসের স্বাধীন কমিটি সামাজিক ও পরিবেশগত বিভিন্ন ইস্যুতে সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

এর আগেও বিভিন্ন সামাজিক ও পরিবেশগত ইস্যুতে বেন অ্যান্ড জেরিসকে সোচ্চার হতে দেখা গেছে। কিছুদিন আগে যুক্তরাষ্ট্রের সমকামীদের পক্ষে ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনে সমর্থন দিয়েছিল বেন অ্যান্ড জেরিস। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন