ডাস্টবিনে মিলল সোনার বার!

  অনলাইন ডেস্ক ০৪ মে ২০১৮, ০০:২৮ | অনলাইন সংস্করণ

সোনা

আলাদিনের চেরাগই যেন পেয়ে বসলেন দক্ষিণ কোরিয়ার একজন পরিচ্ছন্নতা কর্মী। একটি ময়লা ফেলার বাক্সে যা সাত সাতটি সোনার বার পেয়ে প্রায় তারকা বনে গেছেন তিনি। খবর বিবিসির।

আর তাতেই রীতিমত হইচই পড়ে গেছে দেশটির গণমাধ্যমে। একই সঙ্গে পাল্টে গেল তার জীবনও।

মূলত বিমানবন্দরের পরিচ্ছন্নতা কর্মী তিনি। সেখানেই একটি ময়লা ফেলার বাক্সে তিনি সাতটি সোনার বার পান তিনি, যারা বাজার মূল্য প্রায় তিন লাখ ত্রিশ হাজার ডলার।

বারগুলোর প্রতিটির ওজন প্রায় এক কেজি। এগুলো পত্রিকা দিয়ে মোড়ানো ছিলো।

পুলিশের সন্দেহ, ধরা পড়ার ভয়ে কেউ এগুলো ফেলে চলে গেছে। তবে এ মূহুর্তে এসব সোনার বারকে ঘিরে কোন ধরনের অপরাধী বা অপরাধের যোগসূত্র নেই।

আর কাউকে যদি মালিক হিসেবে না পাওয়া যায় - তাহলে নিয়মানুযায়ী ওই পরিচ্ছন্নতাকর্মী নিজেই এগুলোর মালিকানা দাবি করতে পারবেন। দেশটিতে এ ধরনের খুঁজে পাওয়া জিনিসের মালিকানা সংক্রান্ত একটি আইন আছে।

সেই আইন অনুযায়ী আগামী ছয় মাসের মধ্যে কেউ সোনার বারগুলোর মালিকানা দাবি না করলে ওই পরিচ্ছন্নতাকর্মীই এর মালিক হতে পারবেন।

যদিও দ্যা কোরিয়া টাইমস পত্রিকা বলছে, মালিক হওয়ার পর তিনি সোনার মূল্যের সর্বোচ্চ ২০ শতাংশ পর্যন্ত দাবী করতে পারবেন, যা সর্বোচ্চ হবে ৬৫ হাজার ডলার পর্যন্ত।

তবে এটিও পরিষ্কার নয় যে বাকী অর্থের মালিকানা কে পাবে - সরকার নাকি পুলিশ।

কিন্তু পরিমাণ যাই হোক, যেভাবে সোনার বারগুলো পাওয়া গেছে তাতে অনেকটাই নিশ্চিত যে প্রাপ্ত অর্থমূল্যে পাল্টে যাবে ওই পরিচ্ছন্নতা কর্মীর জীবন।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.