চলছে তুমুল লড়াই, ‘৬ মাসের মধ্যে’ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে চান ঘানি
jugantor
চলছে তুমুল লড়াই, ‘৬ মাসের মধ্যে’ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে চান ঘানি

  অনলাইন ডেস্ক  

০২ আগস্ট ২০২১, ১৪:৫১:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

সরকারি বাহিনী এবং তালেবানের মধ্যে চলছে তুমুল লড়াই। এর মধ্যে আফগানিস্তানের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পার্লামেন্টে নিরাপত্তা পরিকল্পনা তুলে ধরেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি।

সোমবার কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আলজাজিরা এ তথ্য জানায়।

সোমবার কাবুলেপার্লামেন্টে নিরাপত্তা পরিকল্পনা তুলে ধরার সময় আশরাফ ঘানি বলেন, ‘ছয় মাসের’ মধ্যে দেশের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসবে।

এ সময় আফগান প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, নিরাপত্তা পরিকল্পনায় ওয়াশিংটনের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। ‘হুট করে’ আফগানিস্তান থেকে বিদেশি সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়ার সিদ্ধান্তের কারণে দেশ আজ সংকটে পড়েছে।

‘দেশের মানুষের নিরাপত্তা দেওয়া’ তার দায়িত্ব হিসেবে অভিহিত করে আফগান প্রেসিডেন্ট বলেন, তিনি এ দায়িত্ব পালন করবেন।

এ সময় আফগান প্রেসিডেন্ট নিরাপত্তা পরিকল্পনার বিষয়ে পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ ও নিম্নকক্ষের সমর্থন চান। এ ছাড়া জনগণের কাছেও এ পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সমর্থন কামনা করেন।

আশরাফ ঘানির আহ্বানের পর পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ ও নিম্নকক্ষ এক যৌথ বিবৃতিতে প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তা পরিকল্পনার প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানায়।

বিবৃতিতে বলা হয়, তারা আফগান ন্যাশনাল সিকিউরিটি ফোর্সের পক্ষে রয়েছেন যারা দেশের জন্য জীবনবাজি রেখে লড়ছেন।

এদিকে কান্দাহার, হেরাত ও লস্করগাহে তীব্র লড়াই চলছে তালেবান ও আফগান যোদ্ধাদের মধ্যে। এর মধ্যে নিরাপত্তা পরিকল্পনা তুলে ধরলেন আফগান প্রেসিডেন্ট।

দীর্ঘ ২০ বছর পর আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করছে যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্ররা। এর মধ্যে দেশের প্রায় অর্ধেকেরও বেশি জেলার দখল নিয়েছে তালেবান। সশস্ত্র গোষ্ঠীটির এ অগ্রযাত্রা রুখতে হিমশিম খাচ্ছে আফগান সরকার।

চলছে তুমুল লড়াই, ‘৬ মাসের মধ্যে’ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে চান ঘানি

 অনলাইন ডেস্ক 
০২ আগস্ট ২০২১, ০২:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সরকারি বাহিনী এবং তালেবানের মধ্যে চলছে তুমুল লড়াই। এর মধ্যে আফগানিস্তানের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পার্লামেন্টে নিরাপত্তা পরিকল্পনা তুলে ধরেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি।

সোমবার কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আলজাজিরা এ তথ্য জানায়।

সোমবার কাবুলে পার্লামেন্টে নিরাপত্তা পরিকল্পনা তুলে ধরার সময় আশরাফ ঘানি বলেন, ‘ছয় মাসের’ মধ্যে দেশের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসবে।

এ সময় আফগান প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, নিরাপত্তা পরিকল্পনায় ওয়াশিংটনের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। ‘হুট করে’ আফগানিস্তান থেকে বিদেশি সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়ার সিদ্ধান্তের কারণে দেশ আজ সংকটে পড়েছে। 

‘দেশের মানুষের নিরাপত্তা দেওয়া’ তার দায়িত্ব হিসেবে অভিহিত করে আফগান প্রেসিডেন্ট বলেন, তিনি এ দায়িত্ব পালন করবেন।

এ সময় আফগান প্রেসিডেন্ট নিরাপত্তা পরিকল্পনার বিষয়ে পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ ও নিম্নকক্ষের সমর্থন চান। এ ছাড়া জনগণের কাছেও এ পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সমর্থন কামনা করেন।

আশরাফ ঘানির আহ্বানের পর পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ ও নিম্নকক্ষ এক যৌথ বিবৃতিতে প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তা পরিকল্পনার প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানায়।

বিবৃতিতে বলা হয়, তারা আফগান ন্যাশনাল সিকিউরিটি ফোর্সের পক্ষে রয়েছেন যারা দেশের জন্য জীবনবাজি রেখে লড়ছেন।

এদিকে কান্দাহার, হেরাত ও লস্করগাহে তীব্র লড়াই চলছে তালেবান ও আফগান যোদ্ধাদের মধ্যে। এর মধ্যে নিরাপত্তা পরিকল্পনা তুলে ধরলেন আফগান প্রেসিডেন্ট।

দীর্ঘ ২০ বছর পর আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করছে যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্ররা। এর মধ্যে দেশের প্রায় অর্ধেকেরও বেশি জেলার দখল নিয়েছে তালেবান। সশস্ত্র গোষ্ঠীটির এ অগ্রযাত্রা রুখতে হিমশিম খাচ্ছে আফগান সরকার। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন