জাপানে মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় আটকে থাকা ৩ বিলিয়ন ডলার চাইল ইরান
jugantor
জাপানে মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় আটকে থাকা ৩ বিলিয়ন ডলার চাইল ইরান

  অনলাইন ডেস্ক  

২৪ আগস্ট ২০২১, ১৩:৩৪:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

মার্কিন নিষেধাজ্ঞার ফলে জাপানের কাছে ইরানের পাওনা ৩০০ কোটি ডলার (৩ বিলিয়ন) ছাড়ের তাগিদ দিয়েছে ইরান।

জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী গত রোববার তেহরান সফরে গেলে ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি তাকে এ অনুরোধ জানান। খবর আরব নিউজের।

ইরানের তেল ও গ্যাস বিক্রির বিপুল পরিমাণ অর্থ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ব্যাংকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার ফলে আটকে আছে।

জাপানের কাছে তেল বিক্রির কমপক্ষে ৩০০ কোটি ডলার পাবে ইরান। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী তশিমিৎসু মতেগি রোববার দুদিনের সফরে তেহরান পৌঁছান।

২০১৫ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ ছয় দেশ ইরানের সঙ্গে পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে চুক্তি করে। ২০১৮ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একতরফাভাবে ওই চুক্তি থেকে বেরিয়ে যায় এবং ইরানের ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

ফলে ইরানের বিপুল পরিমাণ অর্থ বিভিন্ন দেশের ব্যাংকে আটকা পড়ে। এ বছরের এপ্রিল থেকে ভিয়েনায় যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া চুক্তিবদ্ধ বাকি দেশগুলো ইরানকে পরমাণু কর্মসূচি থেকে বিরত রাখার আগের ওই চুক্তিতে ফেরানোর জন্য নতুন করে আলোচনা করছে।

কিন্তু ইরান সাফ বলে দিয়ে, অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞাসহ সব মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পর এ আলোচনায় বসবে তেহরান।

জাপানে মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় আটকে থাকা ৩ বিলিয়ন ডলার চাইল ইরান

 অনলাইন ডেস্ক 
২৪ আগস্ট ২০২১, ০১:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মার্কিন নিষেধাজ্ঞার ফলে জাপানের কাছে ইরানের পাওনা ৩০০ কোটি ডলার (৩ বিলিয়ন) ছাড়ের তাগিদ দিয়েছে ইরান।

জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী গত রোববার তেহরান সফরে গেলে ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি তাকে এ অনুরোধ জানান। খবর আরব নিউজের।

ইরানের তেল ও গ্যাস বিক্রির বিপুল পরিমাণ অর্থ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ব্যাংকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার ফলে আটকে আছে।

জাপানের কাছে তেল বিক্রির কমপক্ষে ৩০০ কোটি ডলার পাবে ইরান। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী তশিমিৎসু মতেগি রোববার দুদিনের সফরে তেহরান পৌঁছান।

২০১৫ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ ছয় দেশ ইরানের সঙ্গে পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে চুক্তি করে। ২০১৮ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একতরফাভাবে ওই চুক্তি থেকে বেরিয়ে যায় এবং ইরানের ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

ফলে ইরানের বিপুল পরিমাণ অর্থ বিভিন্ন দেশের ব্যাংকে আটকা পড়ে।  এ বছরের এপ্রিল থেকে ভিয়েনায় যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া চুক্তিবদ্ধ বাকি দেশগুলো ইরানকে পরমাণু কর্মসূচি থেকে বিরত রাখার আগের ওই চুক্তিতে ফেরানোর জন্য নতুন করে আলোচনা করছে।

কিন্তু ইরান সাফ বলে দিয়ে, অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞাসহ সব মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পর এ আলোচনায় বসবে তেহরান।  

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট