ইসরাইলি মন্ত্রীর সঙ্গে মাহমুদ আব্বাসের বৈঠক
jugantor
ইসরাইলি মন্ত্রীর সঙ্গে মাহমুদ আব্বাসের বৈঠক

  অনলাইন ডেস্ক  

৩০ আগস্ট ২০২১, ১৭:৪২:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস ও ইসরাইলি প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বেনি গান্টজ। ফাইল ছবি

ইসরাইলি প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বেনি গান্টজের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। স্থানীয় সময় রোববার রাতে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

মার্কিন বার্তা সংস্থাএপির খবরে বলা হয়, ইসরাইলের নতুন প্রধানমন্ত্রী বেনেটের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্টের দুই দিন পর রামাল্লায় আলোচিত ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ইসরাইলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, ফিলিস্তিনের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এছাড়াও তারা নিরাপত্তা ইস্যু নিয়েও আলোচনা করেছেন। ২০১৪ সালের পর এটি কোনো উচ্চপর্যায়ের বৈঠক।

এক ফিলিস্তিনি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, পরিস্থিতি উন্নয়নে গান্টজ ও আব্বাস সম্ভাব্য পদক্ষেপ নিয়েও আলোচনা করেছেন।

এপির খবরে বলা হয়, ইসরাইলের নতুন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার একজন কট্টরবিরোধী। তবে তিনি ফিলিস্তিনের অর্থনৈতিক উন্নয়ন সমর্থন করেন। তিনি গাজার শাসক হামাস গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী মাহমুদ আব্বাসকে শক্তিশালী হিসেবে দেখতে চান।

হামাসের প্রতিক্রিয়া
আলোচিত ওই বৈঠক নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠন হামাস। এছাড়াও ফিলিস্তিনের আরেক প্রভাবশালী সংগঠন ইসলামিক জিহাদও ওই বৈঠকের নিন্দা জানিয়েছেন।

সোমবার হামাসের মুখপাত্র সামি আবু জুহরি ওই বৈঠকের তীব্র সমালোচনা করে বলেন, এটা একটা ‘বিপজ্জনক পদক্ষেপ’। এটা ফিলিস্তিনের স্বার্থবিরোধী কাজ।

ইসরাইলি মন্ত্রীর সঙ্গে মাহমুদ আব্বাসের বৈঠক

 অনলাইন ডেস্ক 
৩০ আগস্ট ২০২১, ০৫:৪২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস ও ইসরাইলি প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বেনি গান্টজ। ফাইল ছবি
ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস ও ইসরাইলি প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বেনি গান্টজ। ফাইল ছবি

ইসরাইলি প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বেনি গান্টজের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। স্থানীয় সময় রোববার রাতে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। 

মার্কিন বার্তা সংস্থা এপির খবরে বলা হয়,  ইসরাইলের নতুন প্রধানমন্ত্রী বেনেটের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্টের দুই দিন পর রামাল্লায় আলোচিত ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ইসরাইলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, ফিলিস্তিনের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

এছাড়াও তারা নিরাপত্তা ইস্যু নিয়েও আলোচনা করেছেন। ২০১৪ সালের পর এটি কোনো উচ্চপর্যায়ের বৈঠক। 

এক ফিলিস্তিনি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, পরিস্থিতি উন্নয়নে গান্টজ ও আব্বাস সম্ভাব্য পদক্ষেপ নিয়েও আলোচনা করেছেন। 

এপির খবরে বলা হয়, ইসরাইলের নতুন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার একজন কট্টরবিরোধী। তবে তিনি ফিলিস্তিনের অর্থনৈতিক উন্নয়ন সমর্থন করেন। তিনি গাজার শাসক হামাস গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী মাহমুদ আব্বাসকে শক্তিশালী হিসেবে দেখতে চান।

হামাসের প্রতিক্রিয়া
আলোচিত ওই বৈঠক নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠন হামাস। এছাড়াও ফিলিস্তিনের আরেক প্রভাবশালী সংগঠন ইসলামিক জিহাদও ওই বৈঠকের নিন্দা জানিয়েছেন। 

সোমবার হামাসের মুখপাত্র সামি আবু জুহরি ওই বৈঠকের তীব্র সমালোচনা করে বলেন, এটা একটা  ‘বিপজ্জনক পদক্ষেপ’। এটা ফিলিস্তিনের স্বার্থবিরোধী কাজ।   

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ

আরও খবর