বিশ্ব এখন তুর্কি ড্রোনের প্রশংসা করে: এরদোগান
jugantor
বিশ্ব এখন তুর্কি ড্রোনের প্রশংসা করে: এরদোগান

  অনলাইন ডেস্ক  

০১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৪৩:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেছেন, বিশ্বের বড় বড় দেশ এখন তুর্কি ড্রোনের প্রশংসা করছে।

ড্রোনের আরও উন্নয়ন নিয়ে আমাদের হাতে নেওয়া প্রকল্প আগামী ৩-৫ বছরের মধ্যে শেষ হবে। তখন বিশ্বে সবচেয়ে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ড্রোন হবে আমাদের নির্মিত এ চালকবিহীন বিমান।

জাতীয় প্রতিরক্ষা দিবস উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার এক ভাষণে এরদোগান এসব কথা বলেন।

তুরস্কে আকিঞ্চি নামে যে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ড্রোন আছে, তা আর মাত্র দুটি দেশের হাতে রয়েছে।

এরদোগান বলেন, সিরিয়া থেকে শুরু করে কারাবাখ যুদ্ধেও সন্ত্রাসীদের নির্মূলে তুর্কি ড্রোনের সাফল্য দেখেছে বিশ্ববাসী।

তিনি আরও বলেন, তুরস্ক কামান থেকে শুরু করে ক্ষেপণাস্ত্র, বোমা থেকে শুরু করে বন্দুক, রাডার ও ড্রোন যে কোনো ধরনের অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র এখন নিজ দেশেই তৈরি করছে।

তুরস্কের তৈরি বারাকাত আকিঞ্চি নামের ড্রোনটি গত ৮ জুলাই ৩৮ হাজার ৩৯ ফুট ওপর দিয়ে টানা ২৫ ঘণ্টা ৪৬ মিনিট উড্ডয়ন করে বিশ্বরেকর্ড সৃষ্টি করে। নিখুঁতভাবে এ ড্রোনটি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে।

বিশ্ব এখন তুর্কি ড্রোনের প্রশংসা করে: এরদোগান

 অনলাইন ডেস্ক 
০১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেছেন, বিশ্বের বড় বড় দেশ এখন তুর্কি ড্রোনের প্রশংসা করছে।

ড্রোনের আরও উন্নয়ন নিয়ে আমাদের হাতে নেওয়া প্রকল্প আগামী ৩-৫ বছরের মধ্যে শেষ হবে। তখন বিশ্বে সবচেয়ে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ড্রোন হবে আমাদের নির্মিত এ চালকবিহীন বিমান।

জাতীয় প্রতিরক্ষা দিবস উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার এক ভাষণে এরদোগান এসব কথা বলেন।

তুরস্কে আকিঞ্চি নামে যে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ড্রোন আছে, তা আর মাত্র দুটি দেশের হাতে রয়েছে।

এরদোগান বলেন, সিরিয়া থেকে শুরু করে কারাবাখ যুদ্ধেও সন্ত্রাসীদের নির্মূলে তুর্কি ড্রোনের সাফল্য দেখেছে বিশ্ববাসী।

তিনি আরও বলেন, তুরস্ক কামান থেকে শুরু করে ক্ষেপণাস্ত্র, বোমা থেকে শুরু করে বন্দুক, রাডার ও ড্রোন যে কোনো ধরনের অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র এখন নিজ দেশেই তৈরি করছে।

তুরস্কের তৈরি বারাকাত আকিঞ্চি নামের ড্রোনটি গত ৮ জুলাই ৩৮ হাজার ৩৯ ফুট ওপর দিয়ে টানা ২৫ ঘণ্টা ৪৬ মিনিট উড্ডয়ন করে বিশ্বরেকর্ড সৃষ্টি করে।  নিখুঁতভাবে এ ড্রোনটি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন