সৌদি-মিসরের সমালোচনা, বাইডেনকে সতর্ক করল ইসরাইল
jugantor
সৌদি-মিসরের সমালোচনা, বাইডেনকে সতর্ক করল ইসরাইল

  অনলাইন ডেস্ক  

০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:২৫:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

মানবাধিকার লঙ্ঘন ইস্যুতে সৌদি আরব এবং মিশর সরকারের সমালোচনা না করার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসনকে সতর্ক করে দিয়েছে ইসরাইলের কর্মকর্তারা।

ইসরাইলি কর্মকর্তারা মনে করছেন, আরব এই দুটি দেশের মানবাধিকার ইস্যুতে বাইডেন প্রশাসন যদি সমালোচনা করে তাহলে তারা ইরান-রাশিয়া এবং চীনের সঙ্গে সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ করার উদ্যোগ নেবে। সেক্ষেত্রে বিপদে ইসরাইল। খবর টাইমস অব ইসরাইল ও মিডলইস্ট আইয়ের।

ক্ষমতায় আসার পর প্রথমদিকে সৌদি আরব এবং মিসরের মতো দেশগুলোর বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘন ইস্যুতে কঠোর অবস্থান গ্রহণ করেছিলেন জো বাইডেন। কিন্তু পরবর্তীতে জাতীয় স্বার্থের দোহাই দিয়ে রিয়াদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রক্ষা করে চলেছে ওয়াশিংটন।

বাইডেনের কঠোর অবস্থান এবং সমালোচনার কারণে ইসরাইলি কর্মকর্তারা বেশ উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছিলেন। কারণ এর ফলে এসব দেশ ইরান, রাশিয়া এবং চীনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠতে পারে।

মিসরের প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আস-সিসি এবং সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে ইসরাইল সম্পর্ক করতে চায় কিন্তু বাইডেনের সমালোচনার কারণে সে উদ্যোগ বাধাগ্রস্ত হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে, বিভিন্ন সময় ইসরাইল তার উদ্বেগের কথা নানা চ্যানেলে আমেরিকোকে জানিয়েছে। এরপর মিশর ও সৌদি আরবের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রক্ষার ঘোষণা দেন জো বাইডেন।

সৌদি-মিসরের সমালোচনা, বাইডেনকে সতর্ক করল ইসরাইল

 অনলাইন ডেস্ক 
০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মানবাধিকার লঙ্ঘন ইস্যুতে সৌদি আরব এবং মিশর সরকারের সমালোচনা না করার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসনকে সতর্ক করে দিয়েছে ইসরাইলের কর্মকর্তারা।

ইসরাইলি কর্মকর্তারা মনে করছেন, আরব এই দুটি দেশের মানবাধিকার ইস্যুতে বাইডেন প্রশাসন যদি সমালোচনা করে তাহলে তারা ইরান-রাশিয়া এবং চীনের সঙ্গে সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ করার উদ্যোগ নেবে। সেক্ষেত্রে বিপদে ইসরাইল। খবর টাইমস অব ইসরাইল ও মিডলইস্ট আইয়ের।

ক্ষমতায় আসার পর প্রথমদিকে সৌদি আরব এবং মিসরের মতো দেশগুলোর বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘন ইস্যুতে কঠোর অবস্থান গ্রহণ করেছিলেন জো বাইডেন। কিন্তু পরবর্তীতে জাতীয় স্বার্থের দোহাই দিয়ে রিয়াদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রক্ষা করে চলেছে ওয়াশিংটন।

বাইডেনের কঠোর অবস্থান এবং সমালোচনার কারণে ইসরাইলি কর্মকর্তারা বেশ উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছিলেন। কারণ এর ফলে এসব দেশ ইরান, রাশিয়া এবং চীনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠতে পারে।

মিসরের প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আস-সিসি এবং সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে ইসরাইল সম্পর্ক করতে চায় কিন্তু বাইডেনের সমালোচনার কারণে সে উদ্যোগ বাধাগ্রস্ত হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে, বিভিন্ন সময় ইসরাইল তার উদ্বেগের কথা নানা চ্যানেলে আমেরিকোকে জানিয়েছে। এরপর মিশর ও সৌদি আরবের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রক্ষার ঘোষণা দেন জো বাইডেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ