১০ বছর পর দক্ষিণাঞ্চলীয় শহরের নিয়ন্ত্রণ নিলেন সিরীয় সেনারা
jugantor
১০ বছর পর দক্ষিণাঞ্চলীয় শহরের নিয়ন্ত্রণ নিলেন সিরীয় সেনারা

  অনলাইন ডেস্ক  

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:১৬:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় দারা প্রদেশের আল-ইয়াদুদাহ শহরে ১০ বছর পর প্রবেশ করেছেন দেশটির সরকারি সেনারা।

স্থানীয় গোত্র নেতাদের সঙ্গে এক সমঝোতার পরিপ্রেক্ষিতে এটি সম্ভব হয়েছে। সমঝোতা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে রাশিয়া মধ্যস্থতা করে। খবর এপির।

রুশ সেনাদের সঙ্গে সিরিয়ার সেনা কর্মকর্তারা রোববার শহরটিতে যান। এর আগপর্যন্ত শহরটি বিদেশি মদদপুষ্ট ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের দখলে ছিল।

রোববার রাশিয়ার মধ্যস্থতায় গোত্র নেতাদের সঙ্গে চুক্তি হয়। শহরে অস্ত্রধারী গোষ্ঠীগুলো সরকারি সেনাদের কাছে অস্ত্র সমর্পণ করবে এবং আল-ইয়াদুদাহ শহরের নিয়ন্ত্রণ থাকবে সেনাদের হাতে। এর বিনিময়ে সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো সাধারণ ক্ষমা লাভ করবে।

সিরিয়ার সেনাদের শহরে প্রবেশের পর আনুষ্ঠানিকভাবে অস্ত্র সমর্পণ ও শহরের নিয়ন্ত্রণ বুঝে নেওয়ার জন্য রোববার সেখানে একটি কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করা হয়। এসব বিষয় দেখভাল করেন রুশ সেনা কর্মকর্তা ও গোত্র নেতারা।

প্রচণ্ড যুদ্ধের পর সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো অস্ত্র সমর্পণ ও শহরের নিয়ন্ত্রণ ছাড়তে রাজি হয়। তবে এখনও কিছু গোষ্ঠী চুক্তি মানতে চাইছে না। তাদের ওপর নজরদারি করার জন্য সিরিয়ার সেনারা শহরে কয়েকটি চেকপয়েন্ট বসিয়েছে।

১০ বছর পর দক্ষিণাঞ্চলীয় শহরের নিয়ন্ত্রণ নিলেন সিরীয় সেনারা

 অনলাইন ডেস্ক 
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় দারা প্রদেশের আল-ইয়াদুদাহ শহরে ১০ বছর পর প্রবেশ করেছেন দেশটির সরকারি সেনারা।

স্থানীয় গোত্র নেতাদের সঙ্গে এক সমঝোতার পরিপ্রেক্ষিতে এটি সম্ভব হয়েছে। সমঝোতা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে রাশিয়া মধ্যস্থতা করে। খবর এপির।

রুশ সেনাদের সঙ্গে সিরিয়ার সেনা কর্মকর্তারা রোববার শহরটিতে যান। এর আগপর্যন্ত শহরটি বিদেশি মদদপুষ্ট ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের দখলে ছিল।

রোববার রাশিয়ার মধ্যস্থতায় গোত্র নেতাদের সঙ্গে চুক্তি হয়। শহরে অস্ত্রধারী গোষ্ঠীগুলো সরকারি সেনাদের কাছে অস্ত্র সমর্পণ করবে এবং আল-ইয়াদুদাহ শহরের নিয়ন্ত্রণ থাকবে সেনাদের হাতে। এর বিনিময়ে সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো সাধারণ ক্ষমা লাভ করবে।   

সিরিয়ার সেনাদের শহরে প্রবেশের পর আনুষ্ঠানিকভাবে অস্ত্র সমর্পণ ও শহরের নিয়ন্ত্রণ বুঝে নেওয়ার জন্য রোববার সেখানে একটি কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করা হয়। এসব বিষয় দেখভাল করেন রুশ সেনা কর্মকর্তা ও গোত্র নেতারা।

প্রচণ্ড যুদ্ধের পর সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো অস্ত্র সমর্পণ ও শহরের নিয়ন্ত্রণ ছাড়তে রাজি হয়। তবে এখনও কিছু গোষ্ঠী চুক্তি মানতে চাইছে না। তাদের ওপর নজরদারি করার জন্য সিরিয়ার সেনারা শহরে কয়েকটি চেকপয়েন্ট বসিয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : সিরিয়া যুদ্ধ