তালেবানের ওপর বোমা হামলার দায় স্বীকার করল আইএস
jugantor
তালেবানের ওপর বোমা হামলার দায় স্বীকার করল আইএস

  অনলাইন ডেস্ক  

২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:১৫:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

তালেবান

আফগানিস্তানের নানগরহার প্রদেশের রাজধানী জালালাবাদে তালেবান সদস্যদের ওপর বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। রোববার আইএসের বার্তা সংস্থা আমাক এ কথা জানায়।

শনিবার জালালাবাদে বোমা হামলায় কমপক্ষে ৭ জন নিহত ও ৩০ জন আহত হন। রোববারও শহরটিতে হামলার ঘটনা ঘটে।

আইএস এই হামলার দায় স্বীকার করে বলেছে, তাদের হামলায় ৩৫ জন তালেবান সদস্য হতাহত হয়েছেন।

আইএসের এই দাবি প্রসঙ্গে তালেবানের কোনো প্রতিক্রিয়া না জানালে তালেবানের একজন কর্মকর্তা এএফপিকে বলেন, টহলরত তালেবান সদস্যদের গাড়ি লক্ষ্য করে ওই হামলা চালানো হয়। এই ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে রিপোর্ট জানানো হবে।

জালালাবাদে গতকালের হামলা সম্পর্কে বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, তিনটি হামলার মধ্যে একটি হামলা সরাসরি তালেবানের টহল গাড়িকে লক্ষ্য করে চালানো হয়। ইমপ্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইসের (আইইডি) বিস্ফোরণের মাধ্যমে হামলা করা হয়।

রয়টার্সের খবরে এই ঘটনাকে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর তালেবানের ওপর বড় ধরনের হামলা বলে উল্লেখ করা হয়।

ঘটনার পর প্রত্যক্ষদর্শীরা স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেন, রোববারের হামলায় বেশ কয়েকজন তালেবান সদস্য আহত হন। তাদের হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

গত মাসে কাবুল বিমানবন্দরের কাছে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ১৩ মার্কিন সেনাসহ ২০০ জনের বেশি নিহত হন। এর দায়ও স্বীকার করেছিল আইএস।

গত ১৫ আগস্ট তালেবান মার্কিন সমর্থিত আশরাফ গনি সরকারকে হটিয়ে কাবুলের প্রেসিডেন্ট প্যালেস দখল করে। এর দুই সপ্তাহ পর সরকার গঠন করে। তালেবান সরকারের সামনে অর্থনৈতিক ও আইএস জঙ্গি গোষ্টী চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা দিয়েছে।

তালেবানের ওপর বোমা হামলার দায় স্বীকার করল আইএস

 অনলাইন ডেস্ক 
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:১৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
তালেবান
স্থানীয় লোকজন তালেবান সদস্যদের লক্ষ্য করে চালানো হামলাস্থল দেখছেন ছবি: এএফপি

আফগানিস্তানের নানগরহার প্রদেশের রাজধানী জালালাবাদে তালেবান সদস্যদের ওপর বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। রোববার আইএসের বার্তা সংস্থা আমাক এ কথা জানায়।

শনিবার জালালাবাদে বোমা হামলায় কমপক্ষে ৭ জন নিহত ও ৩০ জন আহত হন। রোববারও শহরটিতে হামলার ঘটনা ঘটে।

আইএস এই হামলার দায় স্বীকার করে বলেছে, তাদের হামলায় ৩৫ জন তালেবান সদস্য হতাহত হয়েছেন।

আইএসের এই দাবি প্রসঙ্গে তালেবানের কোনো প্রতিক্রিয়া না জানালে তালেবানের একজন কর্মকর্তা এএফপিকে বলেন, টহলরত তালেবান সদস্যদের গাড়ি লক্ষ্য করে ওই হামলা চালানো হয়। এই ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে রিপোর্ট জানানো হবে। 

জালালাবাদে গতকালের হামলা সম্পর্কে বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, তিনটি হামলার মধ্যে একটি হামলা সরাসরি তালেবানের টহল গাড়িকে লক্ষ্য করে চালানো হয়। ইমপ্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইসের (আইইডি) বিস্ফোরণের মাধ্যমে হামলা করা হয়।

রয়টার্সের খবরে এই ঘটনাকে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর তালেবানের ওপর বড় ধরনের হামলা বলে উল্লেখ করা হয়।

ঘটনার পর প্রত্যক্ষদর্শীরা স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেন, রোববারের হামলায় বেশ কয়েকজন তালেবান সদস্য আহত হন। তাদের হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

গত মাসে কাবুল বিমানবন্দরের কাছে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ১৩ মার্কিন সেনাসহ ২০০ জনের বেশি নিহত হন। এর দায়ও স্বীকার করেছিল আইএস।

গত ১৫ আগস্ট তালেবান মার্কিন সমর্থিত আশরাফ গনি সরকারকে হটিয়ে কাবুলের প্রেসিডেন্ট প্যালেস দখল করে। এর দুই সপ্তাহ পর সরকার গঠন করে। তালেবান সরকারের সামনে অর্থনৈতিক ও আইএস জঙ্গি গোষ্টী চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা দিয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আফগানিস্তানে তালেবানের পুনরুত্থান