পশ্চিমাদের রাজনীতি ইসলামবিদ্বেষের কাছে জিম্মি: এরদোগান
jugantor
পশ্চিমাদের রাজনীতি ইসলামবিদ্বেষের কাছে জিম্মি: এরদোগান

  যুগান্তর ডেস্ক  

২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৪৫:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

পশ্চিমাদের রাজনীতি ইসলামবিদ্বেষের কাছে জিম্মি: এরদোগান

মুসলিমবিদ্বেষ এবং বিদেশিদের বিরুদ্ধে অসহিষ্ণু মনোভাব পশ্চিমের রাজনীতিকে জিম্মি করে রেখেছে বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। এই বিদ্বেষ ও অসহিষ্ণুতা মুসলমানদের দৈনন্দিন জীবনকে ব্যাহত করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

রোববার নিউইয়র্কে তার্কিশ আমেরিকান ন্যাশনাল স্টিয়ারিং কমিটি (টিএএসসি) আয়োজিত এক সম্মেলনে অংশ নিয়ে তুর্কি প্রেসিডেন্ট এসব কথা বলেন। খবর ডেইলি সাবাহর।

এরদোগান বলেন, আমরা একটি মারাত্মক ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করছি। কোভিডের মতোই বিপজ্জনক এই ভাইরাসের নাম ইসলামোফোবিয়া। যেসব দেশ বহু বছর ধরে গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার গহ্বর হিসেবে চিত্রিত হয়েছে সেসব দেশেই এই ভাইরাস অত্যন্ত দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে।

তিনি আরও বলেন, ইসলামোফোবিয়া এবং বর্ণবিদ্বেষ এই উভয় মতাদর্শই রাষ্ট্রীয় নীতি ঠিক করে দিচ্ছে। এটি একটি ধ্বংসাত্মক প্রবণতায় পরিণত হয়েছে যা সামাজিক শান্তির জন্য সরাসরি হুমকি।

প্রসঙ্গত, ইসলামফোবিয়া ও বর্ণবিদ্বেষ নিয়ে বিশ্বমঞ্চে বরাবরই সোচ্চার ভূমিকা রাখেন তুর্কি প্রেসিডের্ট এরদোগান। ইসলামফোবিয়া ও বর্ণবিদ্বেষ প্রতিরোধে বিশ্বের সবাইকে এক হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

পশ্চিমাদের রাজনীতি ইসলামবিদ্বেষের কাছে জিম্মি: এরদোগান

 যুগান্তর ডেস্ক 
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পশ্চিমাদের রাজনীতি ইসলামবিদ্বেষের কাছে জিম্মি: এরদোগান
ছবি: ডেইলি সাবাহ

মুসলিমবিদ্বেষ এবং বিদেশিদের বিরুদ্ধে অসহিষ্ণু মনোভাব পশ্চিমের রাজনীতিকে জিম্মি করে রেখেছে বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। এই বিদ্বেষ ও অসহিষ্ণুতা মুসলমানদের দৈনন্দিন জীবনকে ব্যাহত করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। 

রোববার নিউইয়র্কে তার্কিশ আমেরিকান ন্যাশনাল স্টিয়ারিং কমিটি (টিএএসসি) আয়োজিত এক সম্মেলনে অংশ নিয়ে তুর্কি প্রেসিডেন্ট এসব কথা বলেন। খবর ডেইলি সাবাহর। 

এরদোগান বলেন, আমরা একটি মারাত্মক ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করছি। কোভিডের মতোই বিপজ্জনক এই ভাইরাসের নাম ইসলামোফোবিয়া। যেসব দেশ বহু বছর ধরে গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার গহ্বর হিসেবে চিত্রিত হয়েছে সেসব দেশেই এই ভাইরাস অত্যন্ত দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে।

তিনি আরও বলেন, ইসলামোফোবিয়া এবং বর্ণবিদ্বেষ এই উভয় মতাদর্শই রাষ্ট্রীয় নীতি ঠিক করে দিচ্ছে। এটি একটি ধ্বংসাত্মক প্রবণতায় পরিণত হয়েছে যা সামাজিক শান্তির জন্য সরাসরি হুমকি।

প্রসঙ্গত, ইসলামফোবিয়া ও বর্ণবিদ্বেষ নিয়ে বিশ্বমঞ্চে বরাবরই সোচ্চার ভূমিকা রাখেন তুর্কি প্রেসিডের্ট এরদোগান। ইসলামফোবিয়া ও বর্ণবিদ্বেষ প্রতিরোধে বিশ্বের সবাইকে এক হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর