আফগানিস্তান নিয়ে যেসব আশংকা করছেন ইমরান খান
jugantor
আফগানিস্তান নিয়ে যেসব আশংকা করছেন ইমরান খান

  অনলাইন ডেস্ক  

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১০:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ফাইল ছবি

আফগানিস্তানে যদি সব গোষ্ঠীর প্রতিনিধিত্বমূলক সরকার না হয় তাহলে দেশটিকে ঘিরে নানা আশংকার কথা জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

তালেবাননিয়ন্ত্রিত আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধের আশঙ্কা রয়েছে বলে অভিমত মুসলিম বিশ্বের একমাত্র পরমাণু শক্তিধর দেশটির প্রধানমন্ত্রীর।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির সঙ্গে মঙ্গলবার এক আলাপচারিতায় ইমরান খান বলেন, আফগানিস্তানে যদি সবাইকে নিয়ে সরকার গঠন করা সম্ভব না হয়, তবে সেখানকার পরিস্থিতি দিন দিন গৃহযুদ্ধের দিকে মোড় নিতে পারে। এর প্রভাব পাকিস্তানের ওপরেও পড়বে। আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধ শুরু হলে মানবিক ও শরণার্থী সংকট দেখা দেবে। এ ছাড়া তখন আফগানিস্তানের মাটি ব্যবহার করবে বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠী। পাকিস্তানের উদ্বেগ এসব নিয়ে। কারণ, এসব সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে মোকাবিলা করতে হচ্ছে তাঁর সরকারকে। তিনি আরও বলেন, এর অর্থ হলো আফগানিস্তানে অস্থিতিশীল ও বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কোনো নিয়ন্ত্রণ না থাকলে অথবা সংঘাত চললে আফগানিস্তান সন্ত্রাসীদের জন্য একটি উপযুক্ত স্থান হবে। আর সেটাই আমাদের জন্য শঙ্কার বিষয়। দ্বিতীয়ত, সেখানে মানবিক সংকট বা গৃহযুদ্ধ দেখা দিলে তা আমাদের জন্য শরণার্থী সংকট ডেকে আনবে।’

আফগানিস্তান নিয়ে যেসব আশংকা করছেন ইমরান খান

 অনলাইন ডেস্ক 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ফাইল ছবি
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ফাইল ছবি

আফগানিস্তানে যদি সব গোষ্ঠীর প্রতিনিধিত্বমূলক সরকার না হয় তাহলে দেশটিকে ঘিরে নানা আশংকার কথা জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। 

তালেবাননিয়ন্ত্রিত আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধের আশঙ্কা রয়েছে বলে অভিমত মুসলিম বিশ্বের একমাত্র পরমাণু শক্তিধর দেশটির প্রধানমন্ত্রীর।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির সঙ্গে মঙ্গলবার এক আলাপচারিতায় ইমরান খান বলেন, আফগানিস্তানে যদি সবাইকে নিয়ে সরকার গঠন করা সম্ভব না হয়, তবে সেখানকার পরিস্থিতি দিন দিন গৃহযুদ্ধের দিকে মোড় নিতে পারে। এর প্রভাব পাকিস্তানের ওপরেও পড়বে। আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধ শুরু হলে মানবিক ও শরণার্থী সংকট দেখা দেবে। এ ছাড়া তখন আফগানিস্তানের মাটি ব্যবহার করবে বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠী। পাকিস্তানের উদ্বেগ এসব নিয়ে। কারণ, এসব সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে মোকাবিলা করতে হচ্ছে তাঁর সরকারকে। তিনি আরও বলেন, এর অর্থ হলো আফগানিস্তানে অস্থিতিশীল ও বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কোনো নিয়ন্ত্রণ না থাকলে অথবা সংঘাত চললে আফগানিস্তান সন্ত্রাসীদের জন্য একটি উপযুক্ত স্থান হবে। আর সেটাই আমাদের জন্য শঙ্কার বিষয়। দ্বিতীয়ত, সেখানে মানবিক সংকট বা গৃহযুদ্ধ দেখা দিলে তা আমাদের জন্য শরণার্থী সংকট ডেকে আনবে।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আফগানিস্তানে তালেবানের পুনরুত্থান