যে শর্তে তালেবান সরকারের সঙ্গে কাজ করবেন এরদোগান 
jugantor
যে শর্তে তালেবান সরকারের সঙ্গে কাজ করবেন এরদোগান 

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:০৩:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

যে শর্তে তালেবান সরকারের সঙ্গে কাজ করবেন এরদোগান 

তালেবানের প্রস্তাবিত সরকারকে ‘অন্তর্ভুক্তিমূলক’ নয় বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান। তিনি বলেছেন, কেবল অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠন করলেই তুরস্ক আফগানিস্তানের সঙ্গে কাজ করতে রাজি আছে।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ এক সভাশেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে তালেবান ইস্যুতে আলাপকালে এই শর্তের কথা জানান তুরস্কের প্রেসিডেন্ট। খবর আলজাজিরার।
তালেবান আফগানিস্তান দখলে নেওয়ার পর সে দেশ থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করে নেন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিদেশিরা। এর পর কাবুল বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট সচল করতে কাতারের সঙ্গে কাজ করছে ন্যাটোর সদস্য তুরস্ক।

কাবুল দখলে নেওয়ার পর সেখানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় তালেবানের ঘোষণাকে স্বাগত জানায় তুরস্ক। সেই সঙ্গে তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেওয়া ও প্রস্তাবিত সরকারের সঙ্গে কাজ করার বিষয়টি বিবেচনায় রেখেছে তুরস্ক।

এরদোগান গতকাল বলেন, কাবুলে অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার প্রতিষ্ঠা হয়নি।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, এখন কিছু পরিবর্তনের সম্ভাবনা সম্পর্কে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। তালেবান হয়তো অধিক অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠন করবে।

এরদোগান জানান, যদিও এমন পরিবর্তন তারা এখনও দেখতে পাননি, তবে তালেবান এমন পদক্ষেপ নিলে তারা হয়তো তাদের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে অগ্রসর হবেন।
সম্প্রতি তালেবানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন আফগানিস্তানে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত সিহাদ এরগিনে। এই সাক্ষাতের পরই এরদোগানের কাছ থেকে তালেবান সরকার সম্পর্কে মন্তব্য এলো।

যদিও ওই সাক্ষাতের পর তুরস্কের রাষ্ট্রদূত এক টুইটবার্তায় বলেছিলেন, আফগান জনগণের প্রতি তুরস্কের অব্যাহত সমর্থনের ব্যাপারে তিনি অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন। পাশাপাশি দেশটির সঙ্গে ঐতিহাসিক সম্পর্ক গড়ে তোলার অঙ্গীকার করেছেন।

যে শর্তে তালেবান সরকারের সঙ্গে কাজ করবেন এরদোগান 

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
যে শর্তে তালেবান সরকারের সঙ্গে কাজ করবেন এরদোগান 
ফাইল ছবি

তালেবানের প্রস্তাবিত সরকারকে ‘অন্তর্ভুক্তিমূলক’ নয় বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান।  তিনি বলেছেন, কেবল অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠন করলেই তুরস্ক আফগানিস্তানের সঙ্গে কাজ করতে রাজি আছে।  

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ এক সভাশেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে তালেবান ইস্যুতে আলাপকালে এই শর্তের কথা জানান তুরস্কের প্রেসিডেন্ট।  খবর আলজাজিরার।
তালেবান আফগানিস্তান দখলে নেওয়ার পর সে দেশ থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করে নেন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিদেশিরা। এর পর কাবুল বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট সচল করতে কাতারের সঙ্গে কাজ করছে ন্যাটোর সদস্য তুরস্ক। 

কাবুল দখলে নেওয়ার পর সেখানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় তালেবানের ঘোষণাকে স্বাগত জানায় তুরস্ক।  সেই সঙ্গে তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেওয়া ও প্রস্তাবিত সরকারের সঙ্গে কাজ করার বিষয়টি বিবেচনায় রেখেছে তুরস্ক। 

এরদোগান গতকাল বলেন, কাবুলে অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার প্রতিষ্ঠা হয়নি। 

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, এখন কিছু পরিবর্তনের সম্ভাবনা সম্পর্কে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। তালেবান হয়তো অধিক অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠন করবে।

এরদোগান জানান, যদিও এমন পরিবর্তন তারা এখনও দেখতে পাননি, তবে তালেবান এমন পদক্ষেপ নিলে তারা হয়তো তাদের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে অগ্রসর হবেন।
সম্প্রতি তালেবানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন আফগানিস্তানে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত সিহাদ এরগিনে। এই সাক্ষাতের পরই এরদোগানের কাছ থেকে তালেবান সরকার সম্পর্কে মন্তব্য এলো।

যদিও ওই সাক্ষাতের পর তুরস্কের রাষ্ট্রদূত এক টুইটবার্তায় বলেছিলেন, আফগান জনগণের প্রতি তুরস্কের অব্যাহত সমর্থনের ব্যাপারে তিনি অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন। পাশাপাশি দেশটির সঙ্গে ঐতিহাসিক সম্পর্ক গড়ে তোলার অঙ্গীকার করেছেন।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন