হেয়ার ট্রিটমেন্ট দিতে গিয়ে পুড়ে গেল মাথার চামড়া, ২ কোটি টাকা জরিমানা
jugantor
হেয়ার ট্রিটমেন্ট দিতে গিয়ে পুড়ে গেল মাথার চামড়া, ২ কোটি টাকা জরিমানা

  হিন্দুস্তান টাইমস  

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:১৪:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রতীকী ছবি

ভারতের এক নারী মডেলকে হেয়ার ট্রিমমেন্ট দিতে গিয়ে এক পর্যায়ে মাথার চামড়াই পুড়িয়ে ফেলে সেলুন কর্মীরা। এ ঘটনায় ওই সেলুনকে দুই কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের নির্দেশ দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

শুক্রবার প্রকাশিত খবরে বলা হয়, জাতীয় ক্রেতা সুরক্ষা কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছিলেন আশানা রয় নামের এক নারী মডেল।

তিনি জানান, ২০১৮ সালে দিল্লির এক পাঁচ তারা হোটেলের (ITC Maurya) সেলুনে তিনি চুলের কাটাতে যান। তিনি ডগা থেকে সামান্য কাটতে বলেছিলেন। কিন্তু চুলের কাটার সময়ে তার চুল সামনে থেকে ৪ ইঞ্চি মাত্র রেখে কেটে ফেলেন সেলুন কর্মীরা। এর পরেই সেলুন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তার বচসা হয়। সেলুন কর্তৃপক্ষ ভুল স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করে। ক্ষতিপূরণ হিসাবে তাকে ফ্রি হেয়ার ট্রিটমেন্ট অফার করা হয়। কিন্তু তাতেই যে বিপত্তি বাড়বে, তা কল্পনাও করেননি আশানা।

হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়, হেয়ার ট্রিটমেন্ট করাতে গিয়েই আরও চরম ক্ষতি হয় তার। অতিরিক্ত অ্যামোনিয়ার প্রভাবে তার মাথার ত্বকে চিরস্থায়ী ক্ষতি হয়।

তিনি ভারতের ন্যাশানাল কনজিউমার ডিসপুটস রিড্রেশাল কমিশনে অভিযোগ করেন। সভাপতি আরকে আগরওয়াল এবং সদস্য ড. এসএম কান্তিকর তার সমস্যার নিস্পত্তি করেন।

তারা জানান, চুল হারানোয় আশানার পেশায় চরম ক্ষতি হয়েছে। বিশেষত, ঘন চুলের মডেলিংয়ের বিভিন্ন অ্যাসাইনমেন্ট ছিল তার হাতে। কিন্তু মাথার চামড়া পুড়ে যাওয়ায় তার বেশিরভাগ চুল ঝড়ে যায়। ফলে সমস্ত কাজের চুক্তি ভেঙে যায়।
এর পাশাপাশি এক বেসরকারি সংস্থায় আধিকারিকের কাজও করতেন ওই মহিলা। মানসিকভাবে ভেঙে পড়ায় তার সেই চাকরিও চলে যায়। তার কারণও ছিল। একজন মহিলার কাছে তার চুলের সঙ্গে অনেক বেশি আবেগ জড়িয়ে। সেখানে আশানার শুধু চুলই পড়েনি। তার মাথার চামড়াই পুড়ে যায়। এখনও সেখানে অ্যালার্জি, লাল ভাব রয়েছে।

এর ভিত্তিতে হোটেল কর্তৃপক্ষকে তাঁকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ২ কোটি টাকা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

হেয়ার ট্রিটমেন্ট দিতে গিয়ে পুড়ে গেল মাথার চামড়া, ২ কোটি টাকা জরিমানা

 হিন্দুস্তান টাইমস 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

ভারতের এক নারী মডেলকে হেয়ার ট্রিমমেন্ট দিতে গিয়ে এক পর্যায়ে মাথার চামড়াই পুড়িয়ে ফেলে সেলুন কর্মীরা। এ ঘটনায় ওই সেলুনকে দুই কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের নির্দেশ দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

শুক্রবার প্রকাশিত খবরে বলা হয়, জাতীয় ক্রেতা সুরক্ষা কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছিলেন আশানা রয় নামের এক নারী মডেল।

তিনি জানান, ২০১৮ সালে দিল্লির এক পাঁচ তারা হোটেলের (ITC Maurya) সেলুনে তিনি চুলের কাটাতে যান। তিনি ডগা থেকে সামান্য কাটতে বলেছিলেন। কিন্তু চুলের কাটার সময়ে তার চুল সামনে থেকে ৪ ইঞ্চি মাত্র রেখে কেটে ফেলেন সেলুন কর্মীরা। এর পরেই সেলুন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তার বচসা হয়। সেলুন কর্তৃপক্ষ ভুল স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করে। ক্ষতিপূরণ হিসাবে তাকে ফ্রি হেয়ার ট্রিটমেন্ট অফার করা হয়। কিন্তু তাতেই যে বিপত্তি বাড়বে, তা কল্পনাও করেননি আশানা।

হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়, হেয়ার ট্রিটমেন্ট করাতে গিয়েই আরও চরম ক্ষতি হয় তার। অতিরিক্ত অ্যামোনিয়ার প্রভাবে তার মাথার ত্বকে চিরস্থায়ী ক্ষতি হয়।

তিনি ভারতের ন্যাশানাল কনজিউমার ডিসপুটস রিড্রেশাল কমিশনে অভিযোগ করেন। সভাপতি আরকে আগরওয়াল এবং সদস্য ড. এসএম কান্তিকর তার সমস্যার নিস্পত্তি করেন।

তারা জানান, চুল হারানোয় আশানার পেশায় চরম ক্ষতি হয়েছে। বিশেষত, ঘন চুলের মডেলিংয়ের বিভিন্ন অ্যাসাইনমেন্ট ছিল তার হাতে। কিন্তু মাথার চামড়া পুড়ে যাওয়ায় তার বেশিরভাগ চুল ঝড়ে যায়। ফলে সমস্ত কাজের চুক্তি ভেঙে যায়।
এর পাশাপাশি এক বেসরকারি সংস্থায় আধিকারিকের কাজও করতেন ওই মহিলা। মানসিকভাবে ভেঙে পড়ায় তার সেই চাকরিও চলে যায়। তার কারণও ছিল। একজন মহিলার কাছে তার চুলের সঙ্গে অনেক বেশি আবেগ জড়িয়ে। সেখানে আশানার শুধু চুলই পড়েনি। তার মাথার চামড়াই পুড়ে যায়। এখনও সেখানে অ্যালার্জি, লাল ভাব রয়েছে।

এর ভিত্তিতে হোটেল কর্তৃপক্ষকে তাঁকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ২ কোটি টাকা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন