তালেবান শাসনের মধ্যেও কাবুলে আফগান নারী মডেলের ফ্যাশন শো 
jugantor
তালেবান শাসনের মধ্যেও কাবুলে আফগান নারী মডেলের ফ্যাশন শো 

  অনলাইন ডেস্ক  

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:১৪:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

তালেবান দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতা দখলের পর আফগানিস্তান জুড়ে চলমান অস্থিরতার মধ্যেই জনপ্রিয় এক জনপ্রিয় আফগান গায়িকা তার নতুন পোশাকের দোকানের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজন করেছেন এক ফ্যাশন শো’য়ের।

আফগানিস্তানের একটি স্থানীয় গণমাধ্যম শুক্রবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আফগানিস্তানের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আরিয়ানা সায়েদ বুধবার কাবুলে তার পোশাকের দোকানের উদ্বোধন উপলক্ষে ওই ফ্যাশন শো’য়ের আয়োজন করেন। ফ্যাশন শো’য়ে কয়েকজন নারী মডেল লাল গালিচায় হাঁটেন বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

আরিয়ানা জানান, পোশাক তৈরির জন্য কাবুলে ৮০ লাখ আফগানি ব্যয়ে তিনি একটি কারখানা খুলেছেন। সেখান থেকেই তার দোকানের পোশাক তৈরি হয়।
আরিয়ানার দোকানে আফগান নারীদের জন্য আধুনিক ঘরনার তৈরি পোশাক বিক্রি করা হয়।

আফগানিস্তান জুড়ে চলমান অস্থিতিশীল পরিস্থিতির মধ্যেই আরিয়ানা নারীদের জন্য আধুনিক ঘরনার পোশাকের দোকান চালু করলেন। ক্ষমতা দখলের পর তালেবানের গঠিত অন্তর্বর্তীকালীন সরকারে কোনো নারী পদ না পাওয়ায় আফগানিস্তান জুড়ে নারীরা বিক্ষোভ করেছে।

দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতা দখলের পর রক্ষণশীল হিসেবে পরিচিত তালেবান নারীদের কর্মক্ষেত্র ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়ার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। আফগান নারী কর্মীদের অনেকেই কাজ হারিয়েছেন। আফগান নারীরা তাদের অধিকার নিয়ে শঙ্কিত।

গত মঙ্গলবার হাই কাউন্সিল ফর ন্যাশনাল রিকনসিলিয়েশনের (এইচসিএনআর) জানায়, আফগান নারীদের অধিকার বা জাতির সংবিধানের প্রতি তালেবানের কোনো অঙ্গীকার নেই।

তালেবান শাসনের মধ্যেও কাবুলে আফগান নারী মডেলের ফ্যাশন শো 

 অনলাইন ডেস্ক 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:১৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

তালেবান দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতা দখলের পর আফগানিস্তান জুড়ে চলমান অস্থিরতার মধ্যেই জনপ্রিয় এক জনপ্রিয় আফগান গায়িকা তার নতুন পোশাকের দোকানের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজন করেছেন এক ফ্যাশন শো’য়ের।

আফগানিস্তানের একটি স্থানীয় গণমাধ্যম শুক্রবার এক প্রতিবেদনে  জানিয়েছে, আফগানিস্তানের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আরিয়ানা সায়েদ বুধবার কাবুলে তার পোশাকের দোকানের উদ্বোধন উপলক্ষে ওই ফ্যাশন শো’য়ের আয়োজন করেন। ফ্যাশন শো’য়ে কয়েকজন নারী মডেল লাল গালিচায় হাঁটেন বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

আরিয়ানা জানান, পোশাক তৈরির জন্য কাবুলে ৮০ লাখ আফগানি ব্যয়ে তিনি একটি কারখানা খুলেছেন। সেখান থেকেই তার দোকানের পোশাক তৈরি হয়।
আরিয়ানার দোকানে আফগান নারীদের জন্য আধুনিক ঘরনার তৈরি পোশাক বিক্রি করা হয়।

আফগানিস্তান জুড়ে চলমান অস্থিতিশীল পরিস্থিতির মধ্যেই আরিয়ানা নারীদের জন্য আধুনিক ঘরনার পোশাকের দোকান চালু করলেন। ক্ষমতা দখলের পর তালেবানের গঠিত অন্তর্বর্তীকালীন সরকারে কোনো নারী পদ না পাওয়ায় আফগানিস্তান জুড়ে নারীরা বিক্ষোভ করেছে।

দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতা দখলের পর রক্ষণশীল হিসেবে পরিচিত তালেবান নারীদের কর্মক্ষেত্র ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়ার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। আফগান নারী কর্মীদের অনেকেই কাজ হারিয়েছেন। আফগান নারীরা তাদের অধিকার নিয়ে শঙ্কিত।

গত মঙ্গলবার হাই কাউন্সিল ফর ন্যাশনাল রিকনসিলিয়েশনের (এইচসিএনআর) জানায়, আফগান নারীদের অধিকার বা জাতির সংবিধানের প্রতি তালেবানের কোনো অঙ্গীকার নেই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন