৪ অপহরণকারীকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখল তালেবান
jugantor
৪ অপহরণকারীকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখল তালেবান

  অনলাইন ডেস্ক  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০৩:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর হেরাতে বন্দুকযুদ্ধে চার অপহরণকারী নিহত হওয়ার পর তাদের লাশ ক্রেনে ঝুলিয়ে শহরের বিভিন্ন স্থানে প্রদর্শন করেছে তালেবান।

শনিবার চারজনের লাশ শহরের গুরুত্বপূর্ণ চারটি স্কয়ারে ঝুলিয়ে রাখা হয়। হেরাতের যে চারটি স্কয়ারে লাশগুলো প্রদর্শন করা হয়, সেগুলো হচ্ছে— মোস্তোফিয়্যাত, গোলহা, দারবে মালাক ও দারবে ইরাক। খবর ডয়েচে ভেলে ও টোলো নিউজের।

স্থানীয় তালেবান কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে আফগানিস্তানের গণমাধ্যমগুলো জানায়, এসব অপহরণকারী প্রথমে তালেবানের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন এবং এর পর তাদের লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়।

তালেবান কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে টোলো নিউজ জানায়, অপহরণকারীরা এক ব্যবসায়ী ও তার ছেলেকে অপহরণ করে পরিবারটির কাছে মুক্তিপণ দাবি করেছিল।

হেরাতের ডেপুটি গভর্নর মৌলভি শির আহমেদ মুহাজির বলেন, আফগানিস্তানে অপহরণের মতো অপরাধ কোনোভাবেই সহ্য করা হবে না, সাধারণ মানুষকে এই শিক্ষা দিতেই এমনটি করা হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা গেছে, একটি ট্রাকের পেছনে লাশগুলো রাখা রয়েছে। সেখান থেকে ক্রেন দিয়ে একজনের লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়। বাকি তিনজনের লাশ অন্যত্র নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় ট্রাকটির চারপাশে তালেবান সদস্যদের পাহারা দিতে দেখা যায়। তা দেখতে ভিড় করেন সাধারণ মানুষ।

৪ অপহরণকারীকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখল তালেবান

 অনলাইন ডেস্ক 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর হেরাতে বন্দুকযুদ্ধে চার অপহরণকারী নিহত হওয়ার পর তাদের লাশ ক্রেনে ঝুলিয়ে শহরের বিভিন্ন স্থানে প্রদর্শন করেছে তালেবান।

শনিবার চারজনের লাশ শহরের গুরুত্বপূর্ণ চারটি স্কয়ারে ঝুলিয়ে রাখা হয়। হেরাতের যে চারটি স্কয়ারে লাশগুলো প্রদর্শন করা হয়, সেগুলো হচ্ছে— মোস্তোফিয়্যাত, গোলহা, দারবে মালাক ও দারবে ইরাক। খবর ডয়েচে ভেলে ও টোলো নিউজের।

স্থানীয় তালেবান কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে আফগানিস্তানের গণমাধ্যমগুলো জানায়, এসব অপহরণকারী প্রথমে তালেবানের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন এবং এর পর তাদের লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়।

তালেবান কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে টোলো নিউজ জানায়, অপহরণকারীরা এক ব্যবসায়ী ও তার ছেলেকে অপহরণ করে পরিবারটির কাছে মুক্তিপণ দাবি করেছিল।

হেরাতের ডেপুটি গভর্নর মৌলভি শির আহমেদ মুহাজির বলেন, আফগানিস্তানে অপহরণের মতো অপরাধ কোনোভাবেই সহ্য করা হবে না, সাধারণ মানুষকে এই শিক্ষা দিতেই এমনটি করা হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা গেছে, একটি ট্রাকের পেছনে লাশগুলো রাখা রয়েছে। সেখান থেকে ক্রেন দিয়ে একজনের লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়। বাকি তিনজনের লাশ অন্যত্র নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় ট্রাকটির চারপাশে তালেবান সদস্যদের পাহারা দিতে দেখা যায়। তা দেখতে ভিড় করেন সাধারণ মানুষ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আফগানিস্তানে তালেবানের পুনরুত্থান