শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ‘ব্লুটুথ স্যান্ডেল’ পরে জালিয়াতির চেষ্টা!
jugantor
শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ‘ব্লুটুথ স্যান্ডেল’ পরে জালিয়াতির চেষ্টা!

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৪৯:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্লুটুথ স্যান্ডেল

শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ব্লুটুথ ডিভাইসে ভর্তি ‘ব্লুটুথ স্যান্ডেল’ পরে জালিয়াতির চেষ্টা করায় পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই পরীক্ষার্থীরা স্যান্ডেলের সোলের ভেতর ব্লুটুথ ডিভাইস ঢুকিয়েছিলেন বলে জানা গেছে। এই ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।

ভারতের রাজস্থানে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক সরকারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় এই ঘটনা ঘটছে বলে রোববার একটি ভারতীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, প্রথমে এক ব্যক্তিকে এই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়। পরে এর সঙ্গে জড়িত চক্রটিকেও গ্রেফতার করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে পুলিশ কর্মকর্তা রতন লাল ভার্গব জানান, স্যান্ডেলের মধ্যে আস্ত একটা ফোন আর ব্লুটুথ ডিভাইস বসানো হয়েছিল। পরীক্ষার্থীর কানে আরেকটি ডিভাইস ছিল। বাইরে থেকে পরীক্ষার্থীকে ব্লুটুথ ডিভাইসের মাধ্যমে সাহায্য করার পরিকল্পনা করা হয়েছিল।

পুলিশ এখনো এই জালিয়াতির ব্যাপারে অনুসন্ধান চালাচ্ছে। এর সঙ্গে জড়িতদের অন্যদের খোঁজা হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে অল্প কয়েকজন ব্যক্তি মিলে জালিয়াতির এই অভিনব উপায় বের করেছেন। ওই ‘ব্লুটুথ স্যান্ডেল’ ভীষণ চতুরতার সঙ্গে তৈরি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এসব স্যান্ডেল দুই লাখ রুপিতে বিক্রি করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাত দিয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পরীক্ষা শুরুর আগেই ব্লুটুথ স্যান্ডেল পরা একজনকে ধরা হয়। এরপর পুলিশ প্রত্যেক পরীক্ষার্থীর স্যান্ডেল, জুতা ও মোজা পরীক্ষা করার নির্দেশ দেওয়া হয়।

শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ‘ব্লুটুথ স্যান্ডেল’ পরে জালিয়াতির চেষ্টা!

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ব্লুটুথ স্যান্ডেল
ছবি : সংগৃহীত

শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ব্লুটুথ ডিভাইসে ভর্তি ‘ব্লুটুথ স্যান্ডেল’ পরে জালিয়াতির চেষ্টা করায় পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই পরীক্ষার্থীরা স্যান্ডেলের সোলের ভেতর ব্লুটুথ ডিভাইস ঢুকিয়েছিলেন বলে জানা গেছে। এই ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।

ভারতের রাজস্থানে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক সরকারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় এই ঘটনা ঘটছে বলে রোববার একটি ভারতীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানা গেছে। 

পুলিশ জানায়, প্রথমে এক ব্যক্তিকে এই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়। পরে এর সঙ্গে জড়িত চক্রটিকেও গ্রেফতার করে পুলিশ। 

এ ব্যাপারে পুলিশ কর্মকর্তা রতন লাল ভার্গব জানান, স্যান্ডেলের মধ্যে আস্ত একটা ফোন আর ব্লুটুথ ডিভাইস বসানো হয়েছিল। পরীক্ষার্থীর কানে আরেকটি ডিভাইস ছিল। বাইরে থেকে পরীক্ষার্থীকে ব্লুটুথ ডিভাইসের মাধ্যমে  সাহায্য করার পরিকল্পনা করা হয়েছিল। 

পুলিশ এখনো এই জালিয়াতির ব্যাপারে অনুসন্ধান চালাচ্ছে। এর সঙ্গে জড়িতদের অন্যদের খোঁজা হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে অল্প কয়েকজন ব্যক্তি মিলে জালিয়াতির এই অভিনব উপায় বের করেছেন। ওই ‘ব্লুটুথ স্যান্ডেল’ ভীষণ চতুরতার সঙ্গে তৈরি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।  এসব স্যান্ডেল দুই লাখ রুপিতে বিক্রি করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাত দিয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পরীক্ষা শুরুর আগেই ব্লুটুথ স্যান্ডেল পরা একজনকে ধরা হয়। এরপর পুলিশ প্রত্যেক পরীক্ষার্থীর স্যান্ডেল, জুতা ও মোজা পরীক্ষা করার নির্দেশ দেওয়া হয়।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন