কাবুলে বন্ধ হচ্ছে নারীদের ড্রাইভিং প্রশিক্ষণকেন্দ্র
jugantor
কাবুলে বন্ধ হচ্ছে নারীদের ড্রাইভিং প্রশিক্ষণকেন্দ্র

  অনলাইন ডেস্ক  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩৩:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে এক বছর আগে নারীদের জন্য চালু হওয়া একটি ড্রাইভিং প্রশিক্ষণকেন্দ্র বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। প্রশিক্ষণকেন্দ্রটি বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নারী উদ্যোক্তা নীলাভ।

আফগানিস্তানের গণমাধ্যম টোলো নিউজ এ তথ্য জানায়।

উদ্যোক্তা নীলাভ বলেন, ৩০-এর বেশি নারীর আগ্রহ থাকলেও গত এক মাসে কেউই ড্রাইভিং শেখার জন্য প্রশিক্ষণকেন্দ্রে আসেননি।

‘আমি অনিশ্চিত ভবিষ্যতের মুখোমুখি হয়েছি’, যোগ করেন এই উদ্যোক্তা।

মুগ্ধা। যিনি এক মাস আগে এ প্রশিক্ষণকেন্দ্র থেকে প্রশিক্ষণ নেন। তিনি বলেন, নারীদের কাজ ও দক্ষতা তৈরির কাজ চালিয়ে যেতে হবে। আমি নিজের পায়ে দাঁড়ানো এবং কারও ওপর যেন নির্ভর করতে না হয় সে জন্য গাড়ি চালানো শিখেছি।

গীতি নামের এক নারী বলেন, শুধু আমি নই, সব আফগান নারীর কিছু লক্ষ্য রয়েছে। তারা অভাবী হতে চান না।

এদিকে আফগানিস্তানের বর্তমান শাসকগোষ্ঠী তালেবান বলছে— তারা ইসলামি শরিয়ত অনুযায়ী নারীদের কাজ ও শিক্ষা অর্জনের অনুমতি দেবে।

তালেবানের সাংস্কৃতিক কমিশনের সদস্য সৈয়দ খোস্তি বলেন, ইসলামিক কাঠামোর ওপর ভিত্তি করে নারীরা যে কোনো জায়গায় কাজ করতে পারবেন।

কাবুলে বন্ধ হচ্ছে নারীদের ড্রাইভিং প্রশিক্ষণকেন্দ্র

 অনলাইন ডেস্ক 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে এক বছর আগে নারীদের জন্য চালু হওয়া একটি ড্রাইভিং প্রশিক্ষণকেন্দ্র বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।  প্রশিক্ষণকেন্দ্রটি বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নারী উদ্যোক্তা নীলাভ।

আফগানিস্তানের গণমাধ্যম টোলো নিউজ এ তথ্য জানায়।

উদ্যোক্তা নীলাভ বলেন, ৩০-এর বেশি নারীর আগ্রহ থাকলেও গত এক মাসে কেউই ড্রাইভিং শেখার জন্য প্রশিক্ষণকেন্দ্রে আসেননি।

‘আমি অনিশ্চিত ভবিষ্যতের মুখোমুখি হয়েছি’, যোগ করেন এই উদ্যোক্তা।

মুগ্ধা। যিনি এক মাস আগে এ প্রশিক্ষণকেন্দ্র থেকে প্রশিক্ষণ নেন। তিনি বলেন, নারীদের কাজ ও দক্ষতা তৈরির কাজ চালিয়ে যেতে হবে। আমি নিজের পায়ে দাঁড়ানো এবং কারও ওপর যেন নির্ভর করতে না হয় সে জন্য গাড়ি চালানো শিখেছি।

গীতি নামের এক নারী বলেন, শুধু আমি নই, সব আফগান নারীর কিছু লক্ষ্য রয়েছে। তারা অভাবী হতে চান না।

এদিকে আফগানিস্তানের বর্তমান শাসকগোষ্ঠী তালেবান বলছে— তারা ইসলামি শরিয়ত অনুযায়ী নারীদের কাজ ও শিক্ষা অর্জনের অনুমতি দেবে।

তালেবানের সাংস্কৃতিক কমিশনের সদস্য সৈয়দ খোস্তি বলেন, ইসলামিক কাঠামোর ওপর ভিত্তি করে নারীরা যে কোনো জায়গায় কাজ করতে পারবেন।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন