তালেবানকে যে শর্ত দিলেন এরদোগান
jugantor
তালেবানকে যে শর্ত দিলেন এরদোগান

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:৩১:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান

আফগানিস্তানের নতুন সরকারের সঙ্গে কাজ করার জন্য তালেবানকে শর্ত দিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান।

তিনি বলেছেন, তালেবান সরকারের মন্ত্রিসভায় অবশ্যই নারীদের অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। এই অন্তর্ভুক্তির পরই তুরস্ক আফগানিস্তানের নতুন সরকারের সঙ্গে কাজ করবে বলে জানিয়েছেন এরদোগান।

এছাড়া তালেবান আন্তর্জাতিক মহলে স্বীকৃতি না পেলে তুরস্ক তাদের সঙ্গে কাজ করবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন এরদোগান।

এক মার্কিন গণমাধ্যমকে এরদোগান বলেন, নারীদের প্রতি তুরস্কের মনোভাব সবারই জানা। সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রেই নারীদের উপস্থিতি রয়েছে। আমাদের মতাদর্শ আফগানিস্তানের ওপর প্রয়োগ করা উচিত। নারীরা বেশি করে কাজ করবে, সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রেই তারা অংশগ্রহণ করবে। স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা কিংবা অন্য যেকোনো প্রয়োজনে আমরা তাদের পাশে দাঁড়াব।

তিনি আরও বলেন, যদি তাদের (তালেবান) গ্রহণ করা ও স্বীকৃতি দেওয়া হয় তাহলে আমরা তাদের সঙ্গে কাজ করব। কিন্তু তারা স্বীকৃতি না পেলে তাদের সঙ্গে আমাদের কোনো লেনদেন থাকবে না।

কাবুল বিমানবন্দর পরিচালনার ক্ষেত্রে তুরস্ক তালেবানকে সাহায্য করার পরিকল্পনা করেছে। এরই মধ্যে এরদোগানের এই মন্তব্য সামনে এলো।

এদিকে, কাবুল বিমানবন্দরের সব সমস্যা সমাধান করা হয়েছে বলে সোমবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে আফগানিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তারা কাবুল বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু করার আহ্বান জানিয়েছেন।

তালেবানকে যে শর্ত দিলেন এরদোগান

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান
ছবি : সংগৃহীত

আফগানিস্তানের নতুন সরকারের সঙ্গে কাজ করার জন্য তালেবানকে শর্ত দিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান। 

তিনি বলেছেন, তালেবান সরকারের মন্ত্রিসভায় অবশ্যই নারীদের অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।  এই অন্তর্ভুক্তির পরই তুরস্ক আফগানিস্তানের নতুন সরকারের সঙ্গে কাজ করবে বলে জানিয়েছেন এরদোগান। 

এছাড়া তালেবান আন্তর্জাতিক মহলে স্বীকৃতি না পেলে তুরস্ক তাদের সঙ্গে কাজ করবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন এরদোগান। 

এক মার্কিন গণমাধ্যমকে এরদোগান বলেন,  নারীদের প্রতি তুরস্কের মনোভাব সবারই জানা।  সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রেই নারীদের উপস্থিতি রয়েছে। আমাদের মতাদর্শ আফগানিস্তানের ওপর প্রয়োগ করা উচিত। নারীরা বেশি করে কাজ করবে, সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রেই তারা অংশগ্রহণ করবে। স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা কিংবা অন্য যেকোনো প্রয়োজনে আমরা তাদের পাশে দাঁড়াব।

তিনি আরও বলেন, যদি তাদের (তালেবান) গ্রহণ করা ও স্বীকৃতি দেওয়া হয় তাহলে আমরা তাদের সঙ্গে কাজ করব। কিন্তু তারা স্বীকৃতি না পেলে তাদের সঙ্গে আমাদের কোনো লেনদেন থাকবে না। 

কাবুল বিমানবন্দর পরিচালনার ক্ষেত্রে তুরস্ক তালেবানকে সাহায্য করার পরিকল্পনা করেছে। এরই মধ্যে এরদোগানের এই মন্তব্য সামনে এলো।

এদিকে,  কাবুল বিমানবন্দরের সব সমস্যা সমাধান করা হয়েছে বলে সোমবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে আফগানিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।  তারা কাবুল বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু করার আহ্বান জানিয়েছেন।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন