কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়াকে সতর্ক করল আজারবাইজান
jugantor
কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়াকে সতর্ক করল আজারবাইজান

  অনলাইন ডেস্ক  

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৫৬:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বিতর্কিত নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে দুই প্রতিবেশী আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের যুদ্ধের বর্ষপূর্তিতে আবারও উত্তেজনা ছড়াল দেশ দুটিতে।

গত বছব দুই দেশের মধ্যে চলা ৪৪ দিনের যুদ্ধে ৬ হাজার ৬০০ মানুষ প্রাণ হারান। খবর ফ্রান্স২৪ নিউজের।

যুদ্ধের প্রথম বর্ষপূর্তিতে আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ তার প্রতিবেশী দেশ আর্মেনিয়াকে যে কোনো ধরনের সামরিক হঠকারিতার ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছেন।

তিনি মঙ্গলবার ফ্রান্স২৪ নিউজ চ্যানেলকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, আর্মেনিয়ার সঙ্গে একটি শান্তিচুক্তিতে উপনীত হতে তার সরকার সব রকম প্রচেষ্টা চালাতে প্রস্তুত রয়েছে।

কিন্তু গত বছরের সংঘর্ষে নিজের হারানো ভূখণ্ড ফিরে পাওয়ার জন্য আর্মেনিয়া যদি কোনো ধরনের সামরিক তৎপরতা চালায় তা হলে বাকু তার কঠোর জবাব দেবে।

আলিয়েভ বলেন, গত সপ্তাহে নিউইয়র্কে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা যে বৈঠক করেছেন, তাকে আদর্শ হিসেবে গ্রহণ করে দুই দেশের মধ্যে এ ধরনের আরও আলোচনা অনুষ্ঠিত হতে পারে।

আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট বলেন, নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে সাংঘর্ষিক অবস্থান একবার চিরতরে সমাধান হয়ে গেছে, কাজেই এ বিষয়ে আগের উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে ফিরে যাওয়া ঠিক হবে না।

তিনি এমন সময় এ বক্তব্য দিলেন যখন আর্মেনিয়ার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা আরমান গ্রেগরিয়ান সম্প্রতি বলেছিলেন, এখনও আজারবাইজানের সঙ্গে তার দেশের কারাবাখ সংকটের সমাধান হয়নি।

তার এ বক্তব্যের জের ধরে বাকুতে এ ধারণা সৃষ্টি হয়েছে যে, নাগোরনো-কারাবাখের হাতছাড়া হয়ে যাওয়া ভূখণ্ড পুনরুদ্ধারের জন্য আর্মেনিয়ার আবার হামলা চালাতে পারে।

২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে ৬ সপ্তাহব্যাপী যুদ্ধ চলে। পরে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় দেশ দুটি শান্তিচুক্তিতে আসে।

ওই যুদ্ধে আজারবাইজানের সেনাবাহিনী ১৯৯০-এর দশকে আর্মেনিয়ার দখলে যাওয়া বেশ কিছু ভূখণ্ড পুনরুদ্ধার করে।

কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়াকে সতর্ক করল আজারবাইজান

 অনলাইন ডেস্ক 
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৫৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বিতর্কিত নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে দুই প্রতিবেশী আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের যুদ্ধের বর্ষপূর্তিতে আবারও উত্তেজনা ছড়াল দেশ দুটিতে।

গত বছব দুই দেশের মধ্যে চলা ৪৪ দিনের যুদ্ধে ৬ হাজার ৬০০ মানুষ প্রাণ হারান। খবর  ফ্রান্স২৪ নিউজের।

যুদ্ধের প্রথম বর্ষপূর্তিতে আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ তার প্রতিবেশী দেশ আর্মেনিয়াকে যে কোনো ধরনের সামরিক হঠকারিতার ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছেন।

তিনি মঙ্গলবার ফ্রান্স২৪ নিউজ চ্যানেলকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, আর্মেনিয়ার সঙ্গে একটি শান্তিচুক্তিতে উপনীত হতে তার সরকার সব রকম প্রচেষ্টা চালাতে প্রস্তুত রয়েছে।

কিন্তু গত বছরের সংঘর্ষে নিজের হারানো ভূখণ্ড ফিরে পাওয়ার জন্য আর্মেনিয়া যদি কোনো ধরনের সামরিক তৎপরতা চালায় তা হলে বাকু তার কঠোর জবাব দেবে।

আলিয়েভ বলেন, গত সপ্তাহে নিউইয়র্কে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা যে বৈঠক করেছেন, তাকে আদর্শ হিসেবে গ্রহণ করে দুই দেশের মধ্যে এ ধরনের আরও আলোচনা অনুষ্ঠিত হতে পারে।

আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট বলেন, নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে সাংঘর্ষিক অবস্থান একবার চিরতরে সমাধান হয়ে গেছে, কাজেই এ বিষয়ে আগের উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে ফিরে যাওয়া ঠিক হবে না।

তিনি এমন সময় এ বক্তব্য দিলেন যখন আর্মেনিয়ার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা আরমান গ্রেগরিয়ান সম্প্রতি বলেছিলেন, এখনও আজারবাইজানের সঙ্গে তার দেশের কারাবাখ সংকটের সমাধান হয়নি।

তার এ বক্তব্যের জের ধরে বাকুতে এ ধারণা সৃষ্টি হয়েছে যে, নাগোরনো-কারাবাখের হাতছাড়া হয়ে যাওয়া ভূখণ্ড পুনরুদ্ধারের জন্য আর্মেনিয়ার আবার হামলা চালাতে পারে।

২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে ৬ সপ্তাহব্যাপী যুদ্ধ চলে। পরে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় দেশ দুটি শান্তিচুক্তিতে আসে।

ওই যুদ্ধে আজারবাইজানের সেনাবাহিনী ১৯৯০-এর দশকে আর্মেনিয়ার দখলে যাওয়া বেশ কিছু ভূখণ্ড পুনরুদ্ধার করে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাত