সু চির সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না আসিয়ান প্রতিনিধি দল
jugantor
সু চির সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না আসিয়ান প্রতিনিধি দল

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৪ অক্টোবর ২০২১, ১৫:৩৩:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

সু চির সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না আসিয়ান প্রতিনিধি দল

দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর জোট আসিয়ানের দূত মিয়ানমান সফরে যেতে পারলেও দেশটির কারাবন্দি নেতা অং সান সু চির সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না।

মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন জান্তা সরকারের মুখপাত্র জাও মিন তুন এ তথ্য জানিয়েছেন বলে রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে।

বিভিন্ন অপরাধের অভিযোগ থাকায় অং সান সু চি’র সঙ্গে আসিয়ান প্রতিনিধিদের দেখা করার অনুমতি দেওয়া হবে না বলে জানান তিনি।

মুখপাত্র জাও মিন তুন জানান, রাজনৈতিক কারণে জাতিসংঘে সামরিক সরকারের মনোনীত প্রতিনিধির অনুমোদনে দীর্ঘ সময় নেওয়া হয়েছে। জাতিসংঘ এবং অন্যান্য দেশ ও সংস্থার উচিৎ আন্তর্জাতিক বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে দ্বিমুখী নীতি এড়িয়ে চলা।

তিনি জোর দিয়ে বলেন, মিয়ানমারের বিচার ব্যবস্থা নিরপেক্ষ ও স্বাধীন এবং তারা অং সান সু চি’র মামলাগুলো সেভাবেই পরিচালনা করবে।

গত এপ্রিলে মিয়ানমারে গণতন্ত্র ফেরাতে আসিয়ানের সঙ্গে পাঁচ দফা শান্তি পরিকল্পনায় সম্মত হয় শীর্ষ জেনারেল মিন অং হ্লাইং। ওই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে মিয়ানমার সরকারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়তে থাকায় বুধবার ওই বিবৃতি প্রকাশ করে জান্তা সরকারের মুখপাত্র।

গত সপ্তাহে আসিয়ানের বিশেষ দূত আরিয়ান ইউসুফ বলেন, আসিয়ানের সঙ্গে সম্মত হওয়া পরিকল্পনা বাস্তবায়নে পিছু হটছে জান্তা সরকার।

আর এই মাসে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া আসিয়ান সম্মেলনে মিয়ানমারের সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইংকে আমন্ত্রণ না জানানোর বিষয়ে গভীর আলোচনা চালাচ্ছে কয়েকটি সদস্য দেশ।

সু চির সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না আসিয়ান প্রতিনিধি দল

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৪ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সু চির সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না আসিয়ান প্রতিনিধি দল
ফাইল ছবি

দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর জোট আসিয়ানের দূত মিয়ানমান সফরে যেতে পারলেও দেশটির কারাবন্দি নেতা অং সান সু চির সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না।

মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন জান্তা সরকারের মুখপাত্র জাও মিন তুন এ তথ্য জানিয়েছেন বলে রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে। 

বিভিন্ন অপরাধের অভিযোগ থাকায় অং সান সু চি’র সঙ্গে আসিয়ান প্রতিনিধিদের দেখা করার অনুমতি দেওয়া হবে না বলে জানান তিনি। 

মুখপাত্র জাও মিন তুন জানান, রাজনৈতিক কারণে জাতিসংঘে সামরিক সরকারের মনোনীত প্রতিনিধির অনুমোদনে দীর্ঘ সময় নেওয়া হয়েছে। জাতিসংঘ এবং অন্যান্য দেশ ও সংস্থার উচিৎ আন্তর্জাতিক বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে দ্বিমুখী নীতি এড়িয়ে চলা।

তিনি জোর দিয়ে বলেন, মিয়ানমারের বিচার ব্যবস্থা নিরপেক্ষ ও স্বাধীন এবং তারা অং সান সু চি’র মামলাগুলো সেভাবেই পরিচালনা করবে।

গত এপ্রিলে মিয়ানমারে গণতন্ত্র ফেরাতে আসিয়ানের সঙ্গে পাঁচ দফা শান্তি পরিকল্পনায় সম্মত হয় শীর্ষ জেনারেল মিন অং হ্লাইং। ওই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে মিয়ানমার সরকারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়তে থাকায় বুধবার ওই বিবৃতি প্রকাশ করে জান্তা সরকারের মুখপাত্র।

গত সপ্তাহে আসিয়ানের বিশেষ দূত আরিয়ান ইউসুফ বলেন, আসিয়ানের সঙ্গে সম্মত হওয়া পরিকল্পনা বাস্তবায়নে পিছু হটছে জান্তা সরকার। 

আর এই মাসে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া আসিয়ান সম্মেলনে মিয়ানমারের সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইংকে আমন্ত্রণ না জানানোর বিষয়ে গভীর আলোচনা চালাচ্ছে কয়েকটি সদস্য দেশ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন