আমলারা জনগণের নয় রাজনৈতিক নেতাদের সেবা করেন: পশ্চিমবঙ্গ গভর্নর
jugantor
আমলারা জনগণের নয় রাজনৈতিক নেতাদের সেবা করেন: পশ্চিমবঙ্গ গভর্নর

  অনলাইন ডেস্ক  

১৪ অক্টোবর ২০২১, ২১:২৫:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বৈঠকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের গভর্নর জগদীপ ধনখড়। ফাইল ছবি: টুইটার

আমলারা জনগণের নয় রাজনৈতিক নেতাদের সেবা করতে কাজ করেন বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের গভর্নর জগদীপ ধনখড়।

তিনি বলেন, রাজ্যে ভেঙে পড়েছে গণতন্ত্রের আদর্শ ও মূল্যবোধ। এই রাজ্যে মানবাধিকার বলে কিছু নেই। আমি ব্যথিত এবং চিন্তিত। এখানে আমলারা জনতার সেবা করতে নয়, রাজনৈতিক নেতাদের সেবা করতে কাজ করেন।

মঙ্গলবার তিনি এসব কথা বলেন। খবর এএনআইয়ের।

বৃহস্পতিবার টুইটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ট্যাগ করে পশ্চিমবঙ্গ গভর্নর বলেন, ‘গণতন্ত্র রক্ষায় হিংসা বন্ধ হওয়া জরুরি।

উত্তরবঙ্গে বিমানবন্দরে প্রশাসনের তরফে কেউ রাজ্যপালকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত না থাকায় তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, 'মুখ্যমন্ত্রী এলে লাইন লাগিয়ে সকাল থেকে দাঁড়িয়ে থাকেন। আপনার গভর্নর এসেছে সবাই অনুপস্থিত।'

রাজ্যপাল হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই রাজ্য প্রশাসনের বিরুদ্ধে একের পর এক ইস্যুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইঙ্গিত করে নানা বক্তব্য দিয়েছেন।

তৃতীয়বার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই রাজভবন নবান্ন সংঘাত আরও চরমে উঠেছে।

'গ্লোবাল বিজনেস সামিট'-এ খরচ নিয়েও তোপ দেগেছিলেন রাজ্যপাল। জগদীপ ধনখড় টুইট করে বলেন, '২০২০ সালে ২৫ অগাস্ট পঞ্চম বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিটে ১২ লাখ কোটি টাকারও বেশি বিনিয়োগ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের থেকে তথ্য চেয়েছিলাম। কিন্তু, এক বছর হয়ে গেল কোনও তথ্য দেওয়া হয়নি। শিল্পায়নের আদর্শ পরিবেশ তৈরি করতে গেলে স্বচ্ছতা এবং দায়বদ্ধতা থাকা প্রয়োজন।’

আমলারা জনগণের নয় রাজনৈতিক নেতাদের সেবা করেন: পশ্চিমবঙ্গ গভর্নর

 অনলাইন ডেস্ক 
১৪ অক্টোবর ২০২১, ০৯:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বৈঠকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের গভর্নর জগদীপ ধনখড়। ফাইল ছবি: টুইটার
বৈঠকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের গভর্নর জগদীপ ধনখড়। ফাইল ছবি: টুইটার

আমলারা জনগণের নয় রাজনৈতিক নেতাদের সেবা করতে কাজ করেন বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের গভর্নর জগদীপ ধনখড়।

তিনি বলেন, রাজ্যে ভেঙে পড়েছে গণতন্ত্রের আদর্শ ও মূল্যবোধ। এই রাজ্যে মানবাধিকার বলে কিছু নেই। আমি ব্যথিত এবং চিন্তিত। এখানে আমলারা জনতার সেবা করতে নয়, রাজনৈতিক নেতাদের সেবা করতে কাজ করেন। 

মঙ্গলবার তিনি এসব কথা বলেন। খবর এএনআইয়ের।

বৃহস্পতিবার টুইটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ট্যাগ করে পশ্চিমবঙ্গ গভর্নর বলেন, ‘গণতন্ত্র রক্ষায় হিংসা বন্ধ হওয়া জরুরি।

উত্তরবঙ্গে বিমানবন্দরে প্রশাসনের তরফে কেউ রাজ্যপালকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত না থাকায় তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, 'মুখ্যমন্ত্রী এলে লাইন লাগিয়ে সকাল থেকে দাঁড়িয়ে থাকেন। আপনার গভর্নর এসেছে সবাই অনুপস্থিত।'

রাজ্যপাল হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই রাজ্য প্রশাসনের বিরুদ্ধে একের পর এক ইস্যুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইঙ্গিত করে নানা বক্তব্য দিয়েছেন। 

তৃতীয়বার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই রাজভবন নবান্ন সংঘাত আরও চরমে উঠেছে।  

'গ্লোবাল বিজনেস সামিট'-এ খরচ নিয়েও তোপ দেগেছিলেন রাজ্যপাল। জগদীপ ধনখড় টুইট করে বলেন, '২০২০ সালে ২৫ অগাস্ট পঞ্চম বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিটে ১২ লাখ কোটি টাকারও বেশি বিনিয়োগ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের থেকে তথ্য চেয়েছিলাম। কিন্তু, এক বছর হয়ে গেল কোনও তথ্য দেওয়া হয়নি। শিল্পায়নের আদর্শ পরিবেশ তৈরি করতে গেলে স্বচ্ছতা এবং দায়বদ্ধতা থাকা প্রয়োজন।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন