ইয়েমেনে সৌদি জোটের হামলায় নিহত ১৬০
jugantor
ইয়েমেনে সৌদি জোটের হামলায় নিহত ১৬০

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:১৬:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বধীন আরব জোটের হামলায় ১৬০ জন হুথি বিদ্রোহী নিহত হয়েছেন। ইয়েমেনের কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ মারিব প্রদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় এই প্রাণহারির ঘটনা ঘটে বলে শনিবার বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

আরব জোটের সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে সৌদি প্রেস এজেন্সি জানায়, মারিবের আবদিয়া জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৩২টি হামলা চালানো হয়েছে। এতে ১১টি সামরিক যান বিধ্বস্ত হয়েছে। নিহত হয়েছেন ১৬০ হুথি বিদ্রোহী।

তবে হামলায় হতাহতের ব্যাপারে হুথি বিদ্রোহীরা খুব একটা মুখ খোলেন না। তাই নিহতের সংখ্যা যাচাই করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছে এএফপি।

গত মাসেই মারিবে ইয়েমেনের সরকারি বাহিনী এবং হুথি বিদ্রোহীদের মধ্যে সংঘর্ষে গত সপ্তাহে কমপক্ষে ১৪০ জন নিহত হয়।

ইয়েমেনের তেল ও গ্যাস সমৃদ্ধ মারিব শহরকে নিয়ন্ত্রণে নিতে ইরান-সমর্থিত হুথি মিলিশিয়ারা ফেব্রুয়ারি থেকে তাদের ওপর হামলা চালানো শুরু করে।

২০১৪ সালে সংঘাত শুরুর পর যুদ্ধ থেকে পালিয়ে আসা হাজার হাজার অভ্যন্তরীণ বাস্তুচ্যুত ব্যক্তিদের নিরাপদ আশ্রয়স্থল মারিব। এসব কারণে মারিককে কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

ইয়েমেনে সৌদি জোটের হামলায় নিহত ১৬০

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৯:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বধীন আরব জোটের হামলায় ১৬০ জন হুথি বিদ্রোহী নিহত হয়েছেন। ইয়েমেনের কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ মারিব প্রদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় এই প্রাণহারির ঘটনা ঘটে বলে শনিবার বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। 

আরব জোটের সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে সৌদি প্রেস এজেন্সি জানায়, মারিবের আবদিয়া জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৩২টি হামলা চালানো হয়েছে। এতে ১১টি সামরিক যান বিধ্বস্ত হয়েছে। নিহত হয়েছেন ১৬০ হুথি বিদ্রোহী।

তবে হামলায় হতাহতের ব্যাপারে হুথি বিদ্রোহীরা খুব একটা মুখ খোলেন না। তাই নিহতের সংখ্যা যাচাই করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছে এএফপি। 

গত মাসেই মারিবে ইয়েমেনের সরকারি বাহিনী এবং হুথি বিদ্রোহীদের মধ্যে সংঘর্ষে গত সপ্তাহে কমপক্ষে ১৪০ জন নিহত হয়। 

ইয়েমেনের তেল ও গ্যাস সমৃদ্ধ মারিব শহরকে নিয়ন্ত্রণে নিতে ইরান-সমর্থিত হুথি মিলিশিয়ারা ফেব্রুয়ারি থেকে তাদের ওপর হামলা চালানো শুরু করে।

২০১৪ সালে সংঘাত শুরুর পর যুদ্ধ থেকে পালিয়ে আসা হাজার হাজার অভ্যন্তরীণ বাস্তুচ্যুত ব্যক্তিদের নিরাপদ আশ্রয়স্থল মারিব। এসব কারণে মারিককে কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন