আফগানিস্তানকে জরুরি মানবিক সহায়তা দিতে ইমরান খানের আহ্বান 
jugantor
আফগানিস্তানকে জরুরি মানবিক সহায়তা দিতে ইমরান খানের আহ্বান 

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৯ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৮:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানকে জরুরি মানবিক সহায়তা দিতে ইমরান খানের আহ্বান 

আফগানিস্তানের জব্দ করা সম্পদ মুক্ত করে দিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সেই সঙ্গে তালেবান শাসিত আফগানিস্তানে জরুরি মানবিক সহায়তা দেওয়ার আহ্বানও জানান তিনি।

সোমবার ইসলামাবাদে নিযুক্ত জাপানি রাষ্ট্রদূত কুনিনরি ম্যাৎসুদা বিদায়ী সাক্ষাৎ করতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে গেলে এক বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। খবর দ্য ডনের।

ইমরান খান এ সময় অর্থনৈতিক ধ্বংসযজ্ঞ ঠেকাতে কাবুল পুনর্গঠন ও জরুরি অর্থনৈতিক সহায়তা দেওয়ার আহ্বান জানান।

আঞ্চলিক পরিসরে আফগানিস্তানে শান্তি ও স্থিতি পাকিস্তানের জন্য খুবই জরুরি, কারণ দুই দেশ পাশাপাশি অবস্থান করছে। অংশগ্রহণমূলক রাজনৈতিক কাঠামোর আলোকে আফগানিস্তানের পুনর্গঠন দাবি করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হুশিয়ার করে বলেন, আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি না পেলে আগের রূপে ফিরতে পারে আফগানিস্তানের তালেবান।

তিনি বলেন, বিশ্বকে অবশ্যই আফগানিস্তানের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করতে হবে। তা না হলে তালেবানের ভেতরে থাকা উগ্রপন্থিরা ২০ বছর আগের শাসনে ফিরে যেতে পারে। আর এটি হলে এ অঞ্চলে বিপর্যয় নেমে আসবে। আফগানিস্তানের একটি স্থিতিশীল সরকারই পারে আইএসকে ঠেকাতে। এ ছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই।

প্রসঙ্গত ১৫ আগস্ট কাবুল দখল করে নেয় তালেবান।

আফগানিস্তানকে জরুরি মানবিক সহায়তা দিতে ইমরান খানের আহ্বান 

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৯ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আফগানিস্তানকে জরুরি মানবিক সহায়তা দিতে ইমরান খানের আহ্বান 
ফাইল ছবি

আফগানিস্তানের জব্দ করা সম্পদ মুক্ত করে দিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সেই সঙ্গে তালেবান শাসিত আফগানিস্তানে জরুরি মানবিক সহায়তা দেওয়ার আহ্বানও জানান তিনি।  

সোমবার ইসলামাবাদে নিযুক্ত জাপানি রাষ্ট্রদূত কুনিনরি ম্যাৎসুদা বিদায়ী সাক্ষাৎ করতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে গেলে এক বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। খবর দ্য ডনের। 

ইমরান খান এ সময় অর্থনৈতিক ধ্বংসযজ্ঞ ঠেকাতে কাবুল পুনর্গঠন ও জরুরি অর্থনৈতিক সহায়তা দেওয়ার আহ্বান জানান।

আঞ্চলিক পরিসরে আফগানিস্তানে শান্তি ও স্থিতি পাকিস্তানের জন্য খুবই জরুরি, কারণ দুই দেশ পাশাপাশি অবস্থান করছে। অংশগ্রহণমূলক রাজনৈতিক কাঠামোর আলোকে আফগানিস্তানের পুনর্গঠন দাবি করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হুশিয়ার করে বলেন, আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি না পেলে আগের রূপে ফিরতে পারে আফগানিস্তানের তালেবান। 

তিনি বলেন, বিশ্বকে অবশ্যই আফগানিস্তানের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করতে হবে। তা না হলে তালেবানের ভেতরে থাকা উগ্রপন্থিরা ২০ বছর আগের শাসনে ফিরে যেতে পারে। আর এটি হলে এ অঞ্চলে বিপর্যয় নেমে আসবে। আফগানিস্তানের একটি স্থিতিশীল সরকারই পারে আইএসকে ঠেকাতে। এ ছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই।

প্রসঙ্গত ১৫ আগস্ট কাবুল দখল করে নেয় তালেবান।  

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন