প্রথমবারের মতো রাশিয়া-চীন যৌথ মহড়া
jugantor
প্রথমবারের মতো রাশিয়া-চীন যৌথ মহড়া

  অনলাইন ডেস্ক  

২৪ অক্টোবর ২০২১, ০০:০৪:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রথমবারের মতো রাশিয়া ও চীনের রণতরী যৌথ মহড়া দিয়েছে বলে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় শনিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে। ১৭ থেকে ২৩ অক্টোবর প্রশান্ত মহাসাগরের পশ্চিম অংশে এই মহড়া হয় বলে জানা গেছে।

এই মহড়া সাম্প্রতিক সময়ে মস্কো ও বেইজিংয়ের মধ্যকার সামরিক ও কূটনৈতিক সম্পর্ক আরও জোরদারের বিষয়টিই সামনে নিয়ে এলো। যদিও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক মজবুত হলেও পশ্চিমা বিশ্বের সঙ্গে এই দুই দেশের সম্পর্কের অবনতি হয়েছে।

এদিকে, চীন আর রাশিয়ার এই সামরিক মহড়া গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করেছে জাপান। চলতি সপ্তাহের শুরুতে জাপান জানিয়েছিল চীন ও রাশিয়ার অন্তত ১০টি নৌযান সুগারু প্রণালী অতিক্রম করেছে।
রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, টহলের অংশ হিসেবে কয়েকটি জাহাজ প্রথমবারের মতো সুগারু প্রণালী অতিক্রম করেছে। ওই প্রণালীকে আন্তর্জাতিক জলসীমার অংশ মনে করা হয়।

তিনি বলেন, এই টহলের উদ্দেশ ছিল রাশিয়ান ও চীনা রাষ্ট্রীয় পতাকা প্রদর্শন, এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখা এবং দুই দেশের মেরিটাইম অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের সুরক্ষা নিশ্চিত করা।

প্রথমবারের মতো রাশিয়া-চীন যৌথ মহড়া

 অনলাইন ডেস্ক 
২৪ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রথমবারের মতো রাশিয়া ও চীনের রণতরী যৌথ মহড়া দিয়েছে বলে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় শনিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে। ১৭ থেকে ২৩ অক্টোবর প্রশান্ত মহাসাগরের পশ্চিম অংশে এই মহড়া হয় বলে জানা গেছে।

এই মহড়া সাম্প্রতিক সময়ে মস্কো ও বেইজিংয়ের মধ্যকার সামরিক ও কূটনৈতিক সম্পর্ক আরও জোরদারের বিষয়টিই সামনে নিয়ে এলো। যদিও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক মজবুত হলেও পশ্চিমা বিশ্বের সঙ্গে এই দুই দেশের সম্পর্কের অবনতি হয়েছে।

এদিকে, চীন আর রাশিয়ার এই সামরিক মহড়া গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করেছে জাপান।  চলতি সপ্তাহের শুরুতে জাপান জানিয়েছিল চীন ও রাশিয়ার অন্তত ১০টি নৌযান সুগারু প্রণালী অতিক্রম করেছে। 
রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, টহলের অংশ হিসেবে কয়েকটি জাহাজ প্রথমবারের মতো সুগারু প্রণালী অতিক্রম করেছে। ওই প্রণালীকে আন্তর্জাতিক জলসীমার অংশ মনে করা হয়।

তিনি বলেন, এই টহলের উদ্দেশ ছিল রাশিয়ান ও চীনা রাষ্ট্রীয় পতাকা প্রদর্শন, এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখা এবং দুই দেশের মেরিটাইম অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের সুরক্ষা নিশ্চিত করা।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন