আফগান ত্যাগ করতে উদগ্রীব ২০০ মার্কিন নাগরিক
jugantor
আফগান ত্যাগ করতে উদগ্রীব ২০০ মার্কিন নাগরিক

  অনলাইন ডেস্ক  

২৫ অক্টোবর ২০২১, ১০:২০:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানে এখনও আটকা পড়ে আছেন ৩৬৩ মার্কিন নাগরিক। এদের মধ্যে ১৭৬ জন দ্রুত দেশটি ছাড়তে উদগ্রীব বলে জানিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেশটির সংসদ সদস্যদের জানায়, এখন পর্যন্ত যেসব মার্কিন নাগরিক আফগানিস্তানে রয়ে গেছেন, তারা দ্রুত দেশটি ত্যাগ করতে চাচ্ছেন। খবর সিএনএনের।

৩১ আগস্টের পর আফগানিস্তান থেকে আটকেপড়া মার্কিন নাগরিকসহ পশ্চিমা দেশগুলোর নাগরিকদের ফেরত আনা বেশ কষ্টসাধ্য বিষয় হয়ে দাঁড়ায়।

শেষ মুহুর্তে বেশ তড়িঘড়ি করে বাইডেন প্রশাসন আফগান ত্যাগ করায় অনেক মার্কিন আটকা পড়েন সেখানে।

তারা গত দুই মাস ধরে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তাদের উদ্ধারে আকুতি জানিয়ে আসছেন।

তালেবানের বেঁধে দেওয়া সময়ের আগেই আফগানিস্তান ত্যাগ করেছে মার্কিন বাহিনী। ৩১ আগস্টের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রসহ সব পশ্চিমা দেশকে আফগান ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছিল তালেবান।

এ বছরের ৩০ আগস্ট মার্কিন সামরিক বাহিনীর সর্বশেষ ফ্লাইটটি আফগানিস্তান ত্যাগ করেছে।

১৫ আগস্ট তালেবান কাবুল দখল করার পর অল্প সময়ের মধ্যে সব মিলিয়ে কাবুল থেকে ১ লাখ ২৩ হাজার সাধারণ মানুষকে বিভিন্ন দেশ নিয়ে গেছে।


২০ বছর ধরে চলা যুদ্ধেরও সমাপ্তি, যে যুদ্ধ আফগানিস্তানে ২০০১ সালের ১ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছিল।

গত এপ্রিলেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আফগানিস্তান থেকে ৩১ আগস্টের মধ্যে সৈন্য পুরোপুরি প্রত্যাহারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সেই ঘোষণা অনুযায়ী সৈন্য প্রত্যাহার শেষ করলেন মার্কিনিরা।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর টুইন টাওয়ারে আল-কায়েদার জঙ্গি হামলার পর আফগানিস্তানে মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা সামরিক বাহিনী অভিযান শুরু করে। অবশেষে সেই আফগান যুদ্ধের অবসান হলো।

মার্কিন অভিযানে ২০০১ সালে ক্ষমতাচ্যুত ইসলামি কট্টরপন্থি গোষ্ঠী তালেবান আবারও ক্ষমতায় ফিরেছে গত ১৫ আগস্ট।

আফগান ত্যাগ করতে উদগ্রীব ২০০ মার্কিন নাগরিক

 অনলাইন ডেস্ক 
২৫ অক্টোবর ২০২১, ১০:২০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানে এখনও আটকা পড়ে আছেন ৩৬৩ মার্কিন নাগরিক। এদের মধ্যে ১৭৬ জন দ্রুত দেশটি ছাড়তে উদগ্রীব বলে জানিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেশটির সংসদ সদস্যদের জানায়, এখন পর্যন্ত যেসব মার্কিন নাগরিক আফগানিস্তানে রয়ে গেছেন, তারা দ্রুত দেশটি ত্যাগ করতে চাচ্ছেন। খবর সিএনএনের।
 
৩১ আগস্টের পর আফগানিস্তান থেকে আটকেপড়া মার্কিন নাগরিকসহ পশ্চিমা দেশগুলোর নাগরিকদের ফেরত আনা বেশ কষ্টসাধ্য বিষয় হয়ে দাঁড়ায়।

শেষ মুহুর্তে বেশ তড়িঘড়ি করে বাইডেন প্রশাসন আফগান ত্যাগ করায় অনেক মার্কিন আটকা পড়েন সেখানে।

তারা গত দুই মাস ধরে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তাদের উদ্ধারে আকুতি জানিয়ে আসছেন।

তালেবানের বেঁধে দেওয়া সময়ের আগেই আফগানিস্তান ত্যাগ করেছে মার্কিন বাহিনী। ৩১ আগস্টের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রসহ সব পশ্চিমা দেশকে আফগান ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছিল তালেবান।

এ বছরের ৩০ আগস্ট মার্কিন সামরিক বাহিনীর সর্বশেষ ফ্লাইটটি আফগানিস্তান ত্যাগ করেছে।

১৫ আগস্ট তালেবান কাবুল দখল করার পর অল্প সময়ের মধ্যে সব মিলিয়ে কাবুল থেকে ১ লাখ ২৩ হাজার সাধারণ মানুষকে বিভিন্ন দেশ নিয়ে গেছে।


২০ বছর ধরে চলা যুদ্ধেরও সমাপ্তি, যে যুদ্ধ আফগানিস্তানে ২০০১ সালের ১ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছিল।

গত এপ্রিলেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আফগানিস্তান থেকে ৩১ আগস্টের মধ্যে সৈন্য পুরোপুরি প্রত্যাহারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সেই ঘোষণা অনুযায়ী সৈন্য প্রত্যাহার শেষ করলেন মার্কিনিরা।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর টুইন টাওয়ারে আল-কায়েদার জঙ্গি হামলার পর আফগানিস্তানে মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা সামরিক বাহিনী অভিযান শুরু করে। অবশেষে সেই আফগান যুদ্ধের অবসান হলো।

মার্কিন অভিযানে ২০০১ সালে ক্ষমতাচ্যুত ইসলামি কট্টরপন্থি গোষ্ঠী তালেবান আবারও ক্ষমতায় ফিরেছে গত ১৫ আগস্ট।    

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আফগানিস্তানে তালেবানের পুনরুত্থান