পশ্চিমতীরে আরও ১৩শ’ বসতি স্থাপন করবে ইসরাইল
jugantor
পশ্চিমতীরে আরও ১৩শ’ বসতি স্থাপন করবে ইসরাইল

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৪:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

পশ্চিম তীরে আরও ১৩শ’ বসতি স্থাপন করবে ইসরাইল

অধিকৃত পশ্চিম তীরে আরও ১৩৫৫ ইহুদি বসতি স্থাপনের কথা জানিয়েছে ইসরাইল। রোববার ইসরাইলের গৃহায়ণ মন্ত্রণালয়ের এ ঘোষণায় ফুসে উঠেছে ফিলিস্তিন।

গৃহায়ণমন্ত্রী জিভ এলকিন এক বিবৃতিতে বলেন, ইহুদিবাদী দৃষ্টিভঙ্গি কার্যকরের জন্যই পশ্চিম তীরে ইহুদি উপস্থিতি জোরদার করা জরুরি। খবর আল জাজিরা ও টিআরটির।

ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শাতায়াহ এর নিন্দা জানিয়েছেন। ইসরাইলের এই বসতি নির্মাণকে ফিলিস্তিনিদের ওপর ‘আগ্রাসন’ বলেও বর্ণনা করেছেন।

এদিকে ইসরাইলের গৃহায়ণ ও আবাসন মন্ত্রণালয় বিবৃতি দেওয়ার অল্প সময়ের মধ্যেই এ বিষয়ে ‘গভীর উদ্বেগ’ জানিয়ে পাল্টা বিবৃতি দিয়েছে জাতিসংঘ।

ইসরাইল সরকারের এই প্রকল্পকে ‘অবৈধ’ হিসেবে উল্লেখ করে জাতিসংঘের মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি প্রক্রিয়া বিষয়ক দূত টর ওয়েনেসল্যান্ড বিবৃতিতে বলেন, পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেম এলাকায় ইহুদি জনসংখ্যা বাড়ানোর জন্য ইসরাইল প্রতিনিয়ত বিভিন্ন পদ্ধতি অনুসরণ করে আসছে। সেসবের মধ্যে সাম্প্রতিকতম পদক্ষেপ এই আবাসিক প্রকল্প।

১৯৬৭ সালে ৬ দিনের আরব-ইসরাইল যুদ্ধের সময় পশ্চিম তীর দখল করে ইসরাইল। পশ্চিম তীরে প্রায় পৌনে পাঁচ লাখ ইহুদির বাস। আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী এটাকে অবৈধ বলে বিবেচনা করা হয়। এ ছাড়া এই পশ্চিম তীর নিয়ে ফিলিস্তিনিরা তাদের ভবিষ্যৎ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখে।

পশ্চিমতীরে আরও ১৩শ’ বসতি স্থাপন করবে ইসরাইল

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পশ্চিম তীরে আরও ১৩শ’ বসতি স্থাপন করবে ইসরাইল
ছবি: টিআরটি

অধিকৃত পশ্চিম তীরে আরও ১৩৫৫ ইহুদি বসতি স্থাপনের কথা জানিয়েছে ইসরাইল। রোববার ইসরাইলের গৃহায়ণ মন্ত্রণালয়ের এ ঘোষণায় ফুসে উঠেছে ফিলিস্তিন। 

গৃহায়ণমন্ত্রী জিভ এলকিন এক বিবৃতিতে বলেন, ইহুদিবাদী দৃষ্টিভঙ্গি কার্যকরের জন্যই পশ্চিম তীরে ইহুদি উপস্থিতি জোরদার করা জরুরি। খবর আল জাজিরা ও টিআরটির। 

ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শাতায়াহ এর নিন্দা জানিয়েছেন। ইসরাইলের এই বসতি নির্মাণকে ফিলিস্তিনিদের ওপর ‘আগ্রাসন’ বলেও বর্ণনা করেছেন। 

এদিকে ইসরাইলের গৃহায়ণ ও আবাসন মন্ত্রণালয় বিবৃতি দেওয়ার অল্প সময়ের মধ্যেই এ বিষয়ে ‘গভীর উদ্বেগ’ জানিয়ে পাল্টা বিবৃতি দিয়েছে জাতিসংঘ।

ইসরাইল সরকারের এই প্রকল্পকে ‘অবৈধ’ হিসেবে উল্লেখ করে জাতিসংঘের মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি প্রক্রিয়া বিষয়ক দূত টর ওয়েনেসল্যান্ড বিবৃতিতে বলেন, পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেম এলাকায় ইহুদি জনসংখ্যা বাড়ানোর জন্য ইসরাইল প্রতিনিয়ত বিভিন্ন পদ্ধতি অনুসরণ করে আসছে। সেসবের মধ্যে সাম্প্রতিকতম পদক্ষেপ এই আবাসিক প্রকল্প।

১৯৬৭ সালে ৬ দিনের আরব-ইসরাইল যুদ্ধের সময় পশ্চিম তীর দখল করে ইসরাইল। পশ্চিম তীরে প্রায় পৌনে পাঁচ লাখ ইহুদির বাস। আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী এটাকে অবৈধ বলে বিবেচনা করা হয়। এ ছাড়া এই পশ্চিম তীর নিয়ে ফিলিস্তিনিরা তাদের ভবিষ্যৎ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ