প্রথমবারের মতো তুর্কি ড্রোন ব্যবহার করল ইউক্রেন
jugantor
প্রথমবারের মতো তুর্কি ড্রোন ব্যবহার করল ইউক্রেন

  অনলাইন ডেস্ক  

২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৩:১৪:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের কাছ থেকে কেনা অত্যাধুনিক বায়রাকতার টিবি-২ ড্রোন প্রথমবারের মতো ব্যবহার করল ইউক্রেন।

মঙ্গলবার দেশটির ডোনবাস এলাকায় রুশ চরমপন্থিদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযানে এ ড্রোন ব্যবহার করা হয়। খবর আনাদোলুর।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ ড্রোন মোতায়েনে ছবি পোস্ট করেছে ইউক্রেনের সেনাবাহিনী।

সম্প্রতি তুরস্কের কাছ থেকে অত্যাধুনিক বায়রাকতার টিবি-২ ড্রোন ও সামরিক যান কিনছে ইউক্রেন।

২০২১-২২ সালের মধ্যে ইউক্রেন ২৪টিরও বেশি বায়রাকতার ড্রোন ক্রয়ের পরিকল্পনা করেছে।

বর্তমানে দেশটিতে ১২টি বায়রাকতার ড্রোন রয়েছে। এগুলো ইউক্রেন বিমানবাহিনী ও নৌবাহিনী ব্যবহার করছে।

ভবিষ্যতে নিজেদের প্রয়োজনে এ ধরনের ড্রোন নিজেরাই তৈরি করবে বলে ইউক্রেনের সেনাপ্রধান ঘোষণা দেন।

দেশটির সেনা কর্মকর্তা ভেলেরিয়ে জালুজনি বলেন, তুরস্ক থেকে শুধু এসব অত্যাধুনিক ড্রোন কিনলেই হবে না, এগুলো যথাযথভাবে চালনাও শিখতে হবে।

তুরস্কের কাছ থেকে ২০১৯ সালে প্রথমে ছয়টি বায়রাকতার ড্রোন ক্রয় করে ইউক্রেন। তুরস্কের সেনাবাহিনী ২০১৪ সাল থেকে অত্যাধুনিক এ ড্রোন ব্যবহার করছে।

তুরস্ক ছাড়া এ ড্রোনটি ব্যবহার করছে ইউক্রেন, কাতার ও আজারবাইজান।

ডোনবাসে ২০১৪ সাল থেকে ইউক্রেন সেনাবাহিনীর সঙ্গে রুশ বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সংঘর্ষে এ পর্যন্ত ১৩ হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

প্রথমবারের মতো তুর্কি ড্রোন ব্যবহার করল ইউক্রেন

 অনলাইন ডেস্ক 
২৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের কাছ থেকে কেনা অত্যাধুনিক বায়রাকতার টিবি-২ ড্রোন প্রথমবারের মতো ব্যবহার করল ইউক্রেন।

মঙ্গলবার দেশটির ডোনবাস এলাকায় রুশ চরমপন্থিদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযানে এ ড্রোন ব্যবহার করা হয়। খবর আনাদোলুর।
 
সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ ড্রোন মোতায়েনে ছবি পোস্ট করেছে ইউক্রেনের সেনাবাহিনী।  
 
সম্প্রতি তুরস্কের কাছ থেকে অত্যাধুনিক বায়রাকতার টিবি-২ ড্রোন ও সামরিক যান কিনছে ইউক্রেন।

২০২১-২২ সালের মধ্যে ইউক্রেন ২৪টিরও বেশি বায়রাকতার ড্রোন ক্রয়ের পরিকল্পনা করেছে।  
 
বর্তমানে দেশটিতে ১২টি বায়রাকতার ড্রোন রয়েছে। এগুলো ইউক্রেন বিমানবাহিনী ও নৌবাহিনী ব্যবহার করছে।

ভবিষ্যতে নিজেদের প্রয়োজনে এ ধরনের ড্রোন নিজেরাই তৈরি করবে বলে ইউক্রেনের সেনাপ্রধান ঘোষণা দেন।

দেশটির সেনা কর্মকর্তা ভেলেরিয়ে জালুজনি বলেন, তুরস্ক থেকে শুধু এসব অত্যাধুনিক ড্রোন কিনলেই হবে না, এগুলো যথাযথভাবে চালনাও শিখতে হবে।

তুরস্কের কাছ থেকে ২০১৯ সালে প্রথমে ছয়টি বায়রাকতার ড্রোন ক্রয় করে ইউক্রেন। তুরস্কের সেনাবাহিনী ২০১৪ সাল থেকে অত্যাধুনিক এ ড্রোন ব্যবহার করছে।

তুরস্ক ছাড়া এ ড্রোনটি ব্যবহার করছে ইউক্রেন, কাতার ও আজারবাইজান।  

ডোনবাসে ২০১৪ সাল থেকে ইউক্রেন সেনাবাহিনীর সঙ্গে রুশ বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সংঘর্ষে এ পর্যন্ত ১৩ হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।   

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-তুরস্ক এস-৪০০ বিতর্ক