প্রথমবার জনসম্মুখে এসে যা বললেন আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী 
jugantor
প্রথমবার জনসম্মুখে এসে যা বললেন আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী 

  অনলাইন ডেস্ক  

২৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:৫২:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানে তালেবান সরকারের ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মোহাম্মদ ইয়াকুব প্রথমবারের মতো জনসম্মুখে এসেছেন।

বুধবার এক সমাবেশে উপস্থিত হয়ে আফগানিস্তানের এই প্রতিরক্ষা মন্ত্রী দেশের স্বাস্থ্যখাত শক্তিশালী করতে প্রাইভেট সেক্টরকে অবদান রাখার আহ্বান জানান।

তালেবানের ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মোহাম্মদ ইয়াকুব তালেবানের প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা ওমরের ছেলে। মোল্লা ওমর খুব কমই জনসম্মুখে আসতেন।

বুধবার আফগানিস্তানের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন দাউদ খান হাসপাতালে এক সভায় উপস্থিত মোহাম্মদ ইয়াকুব বলেন, আল্লাহর ইচ্ছায় আগামী এক-দুই বছর পর আফগানদের চিকিৎসা গ্রহণের জন্য দেশের বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন হবে না।

১৫ আগস্ট তালেবান আশরাফ গনি সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করে। এর দুই সপ্তাহ পর তারা অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করে।

গত ২০ বছরের যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে স্বাস্থ্যখাত ধসে পড়ার উপক্রম হয়েছে।

আফগানিস্তানের স্বাস্থ্য খাত পুরোপুরি ভেঙে পড়তে পারে এমন আশঙ্কায় দেশটিতে ৪৫ মিলিয়ন ডলারের জরুরি সহায়তা পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছে জাতিসংঘ। সম্প্রতি বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুসের একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি আফগানিস্তান সফরের পরেই এমন ঘোষণা দেয়।

এ প্রসঙ্গে জাতিসংঘের শীর্ষ কর্মকর্তা মার্টিন গ্রিফিথ বলেন, আফগানিস্তানের স্বাস্থ্য সেবা ভেঙে পড়তে দেওয়াটা খুব বিপর্যয়কর হবে। দেশটির অনেক মানুষ প্রসূতি ও যুদ্ধাহতদের চিকিৎসার মতো জরুরি সেবা থেকে বঞ্চিত হতে পারেন।

প্রথমবার জনসম্মুখে এসে যা বললেন আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী 

 অনলাইন ডেস্ক 
২৭ অক্টোবর ২০২১, ১০:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানে তালেবান সরকারের ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মোহাম্মদ ইয়াকুব প্রথমবারের মতো জনসম্মুখে এসেছেন। 

বুধবার এক সমাবেশে উপস্থিত হয়ে আফগানিস্তানের এই প্রতিরক্ষা মন্ত্রী দেশের স্বাস্থ্যখাত শক্তিশালী করতে প্রাইভেট সেক্টরকে অবদান রাখার আহ্বান জানান।

তালেবানের ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মোহাম্মদ ইয়াকুব তালেবানের প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা ওমরের ছেলে। মোল্লা ওমর খুব কমই জনসম্মুখে আসতেন। 

বুধবার আফগানিস্তানের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন দাউদ খান হাসপাতালে এক সভায় উপস্থিত মোহাম্মদ ইয়াকুব বলেন, আল্লাহর ইচ্ছায় আগামী এক-দুই বছর পর আফগানদের চিকিৎসা গ্রহণের জন্য দেশের বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন হবে না। 

১৫ আগস্ট তালেবান আশরাফ গনি সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করে। এর দুই সপ্তাহ পর তারা অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করে।

গত ২০ বছরের যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে স্বাস্থ্যখাত ধসে পড়ার উপক্রম হয়েছে।

আফগানিস্তানের স্বাস্থ্য খাত পুরোপুরি ভেঙে পড়তে পারে এমন আশঙ্কায় দেশটিতে ৪৫ মিলিয়ন ডলারের জরুরি সহায়তা পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছে জাতিসংঘ। সম্প্রতি বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুসের একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি আফগানিস্তান সফরের পরেই এমন ঘোষণা দেয়।

এ প্রসঙ্গে জাতিসংঘের শীর্ষ কর্মকর্তা মার্টিন গ্রিফিথ বলেন, আফগানিস্তানের স্বাস্থ্য সেবা ভেঙে পড়তে দেওয়াটা খুব বিপর্যয়কর হবে। দেশটির অনেক মানুষ প্রসূতি ও যুদ্ধাহতদের চিকিৎসার মতো জরুরি সেবা থেকে বঞ্চিত হতে পারেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন