আমাদের বিশাল সামরিক বাহিনীর প্রয়োজন নেই: তালেবান পররাষ্ট্রমন্ত্রী
jugantor
আমাদের বিশাল সামরিক বাহিনীর প্রয়োজন নেই: তালেবান পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৩ নভেম্বর ২০২১, ১৩:৪৮:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

কেমন হবে আফগান সামরিক বাহিনী, জানালেন তালেবান পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আফগানিস্তানে বিশাল সামরিক বাহিনীর প্রয়োজন নেই বলে মন্তব্য করেছেন তালেবান সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের ছোট একটি সেনাবাহিনীর প্রয়োজন যাদের অন্তর বিশ্বস্ততা ও প্রতিশ্রুতি এবং দেশপ্রেমে পূর্ণ। বিদেশী হস্তক্ষেপে যে সেনাবাহিনী তৈরি করা হয়েছিল আমাদের আর সেই বিশাল সংখ্যক সেনার প্রয়োজন নেই।

শুক্রবার পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে এক আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে এ মন্তব্য করেন তালেবানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। খবর ভয়েস অব আমেরিকার।

তালেবান যোদ্ধা এবং এএনডিএসএফ সদস্যদের একীভূত করে একটি একক সামরিক বাহিনী গঠন করা বিষয়ক তালেবানের কৌশল সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে আমির খান মুত্তাকি বলেন, পূর্ববর্তী প্রশাসনের অধীনে যারা আফগান জাতীয় প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা বাহিনীতে (এএন্ডএসএফ) কাজ করেছেন তাদের সবাইকেও রাখা হবে না।

এদিন পাকিস্তান সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত একটি নীতি নির্ণায়ক সংস্থা, ইনস্টিটিউট অফ স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজের এক প্রকাশ্য আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশ নেন মুত্তাকি।

পাকিস্তানে বাণিজ্যের পথ খোলাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার জন্য তালেবান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ২০ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল নিয়ে সফরে যান।

বৃহস্পতিবার তিনি যুক্তরাষ্ট্র, চীন এবং রাশিয়ার আফগানিস্তান বিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধিদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। তারা আফগানিস্তান বিষয়ক আলোচনার লক্ষ্যে ট্রইকা প্লাস ফরম্যাটের অধীনে পাকিস্তানে অবস্থান করছিলেন।


আমাদের বিশাল সামরিক বাহিনীর প্রয়োজন নেই: তালেবান পররাষ্ট্রমন্ত্রী

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৩ নভেম্বর ২০২১, ০১:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কেমন হবে আফগান সামরিক বাহিনী, জানালেন তালেবান পররাষ্ট্রমন্ত্রী
তালেবান সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি। ছবি: এএফপি

আফগানিস্তানে বিশাল সামরিক বাহিনীর প্রয়োজন নেই বলে মন্তব্য করেছেন তালেবান সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি। 

তিনি বলেন, আমাদের দেশের ছোট একটি সেনাবাহিনীর প্রয়োজন যাদের অন্তর বিশ্বস্ততা ও প্রতিশ্রুতি এবং দেশপ্রেমে পূর্ণ। বিদেশী হস্তক্ষেপে যে সেনাবাহিনী তৈরি করা হয়েছিল আমাদের আর সেই বিশাল সংখ্যক সেনার প্রয়োজন নেই।

শুক্রবার পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে এক আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে এ মন্তব্য করেন তালেবানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। খবর ভয়েস অব আমেরিকার। 

তালেবান যোদ্ধা এবং এএনডিএসএফ সদস্যদের একীভূত করে একটি একক সামরিক বাহিনী গঠন করা বিষয়ক তালেবানের কৌশল সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে আমির খান মুত্তাকি বলেন, পূর্ববর্তী প্রশাসনের অধীনে যারা আফগান জাতীয় প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা বাহিনীতে (এএন্ডএসএফ) কাজ করেছেন তাদের সবাইকেও রাখা হবে না।

এদিন পাকিস্তান সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত একটি নীতি নির্ণায়ক সংস্থা, ইনস্টিটিউট অফ স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজের এক প্রকাশ্য আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশ নেন মুত্তাকি।

পাকিস্তানে বাণিজ্যের পথ খোলাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার জন্য তালেবান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ২০ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল নিয়ে সফরে যান। 

বৃহস্পতিবার তিনি যুক্তরাষ্ট্র, চীন এবং রাশিয়ার আফগানিস্তান বিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধিদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। তারা আফগানিস্তান বিষয়ক আলোচনার লক্ষ্যে ট্রইকা প্লাস ফরম্যাটের অধীনে পাকিস্তানে অবস্থান করছিলেন।


 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আফগানিস্তানে তালেবানের পুনরুত্থান