ইসরাইলি হামলার প্রতিশোধ নিতে মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ড্রোন হামলা
jugantor
ইসরাইলি হামলার প্রতিশোধ নিতে মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ড্রোন হামলা

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৯ নভেম্বর ২০২১, ১৭:৫৯:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ইসরাইলের বিমান হামলার প্রতিশোধ নিতে মার্কিন ঘাঁটিতে ড্রোন হামলা চালিয়েছিল ইরান। শুক্রবার জেরুজালেম পোস্ট এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

জেরুজালেম পোস্ট জানায়, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মার্কিন ও ইসরাইলের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা বৃহস্পতিবার দ্য নিউইয়র্ক টাইমসকে জানিয়েছেন যে গত ২০ অক্টোবর সিরিয়ায় মার্কিন আল তানফ ঘাঁটিতে পাঁচটি আত্মঘাতী ড্রোন হামলা চালিয়েছিল ইরান।

অবশ্য ওই হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। ইসরাইলি গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অধিকাংশ সেনাদের আগে থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল বলে কর্মকর্তারা নিউইয়র্ক টাইমসকে জানিয়েছেন।

গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের ওই দাবি সত্যি হলে ইসরাইলের কর্মকাণ্ডের প্রতিশোধ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে এটিই ইরানের প্রথম কোনো প্রত্যক্ষ হামলা বলে জেরুজালেম পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ওই হামলার সঙ্গে ইরানের সংশ্লিষ্টতার ব্যাপারে মার্কিন ও ইসরাইলি গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের কাছে প্রমাণ আছে বলে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। হামলায় ব্যবহৃত অবিস্ফোরিত ড্রোনগুলো পরীক্ষা করে তারা ইরান সমর্থিত ইরাকি মিলিশিয়াদের ড্রোনের মিল খুঁজে পেয়েছে বলে জানা গেছে।

ইরানের সঙ্গে শুরু হতে যাওয়া পরমাণু চুক্তি আলোচনাকে ঝুঁকিতে চায় না যুক্তরাষ্ট্র। তাই এ ব্যাপারে ওই দুই দেশের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা বিস্তারিত কিছু জানাননি বলে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ইরান এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ডস কর্পস পরিচালিত টেলিগ্রাম চ্যানেল জানিয়েছে, সিরিয়ায় ইসরাইলি বিমান হামলার প্রতিশোধ হিসেবে ওই হামলা চালানো হয়েছে।

ইসরাইলি হামলার প্রতিশোধ নিতে মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ড্রোন হামলা

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৯ নভেম্বর ২০২১, ০৫:৫৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইসরাইলের বিমান হামলার প্রতিশোধ নিতে মার্কিন ঘাঁটিতে ড্রোন হামলা চালিয়েছিল ইরান। শুক্রবার জেরুজালেম পোস্ট এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

জেরুজালেম পোস্ট জানায়, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মার্কিন ও ইসরাইলের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা বৃহস্পতিবার দ্য নিউইয়র্ক টাইমসকে জানিয়েছেন যে গত ২০ অক্টোবর সিরিয়ায় মার্কিন আল তানফ ঘাঁটিতে পাঁচটি আত্মঘাতী ড্রোন হামলা চালিয়েছিল ইরান। 

অবশ্য ওই হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। ইসরাইলি গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অধিকাংশ সেনাদের আগে থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল বলে কর্মকর্তারা নিউইয়র্ক টাইমসকে জানিয়েছেন।

গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের ওই দাবি সত্যি হলে ইসরাইলের কর্মকাণ্ডের প্রতিশোধ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে এটিই ইরানের প্রথম কোনো প্রত্যক্ষ হামলা বলে জেরুজালেম পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ওই হামলার সঙ্গে ইরানের সংশ্লিষ্টতার ব্যাপারে মার্কিন ও ইসরাইলি গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের কাছে প্রমাণ আছে বলে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। হামলায় ব্যবহৃত অবিস্ফোরিত ড্রোনগুলো পরীক্ষা করে তারা ইরান সমর্থিত ইরাকি মিলিশিয়াদের ড্রোনের মিল খুঁজে পেয়েছে বলে জানা গেছে।

ইরানের সঙ্গে শুরু হতে যাওয়া পরমাণু চুক্তি আলোচনাকে ঝুঁকিতে চায় না যুক্তরাষ্ট্র। তাই  এ ব্যাপারে ওই দুই দেশের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা বিস্তারিত কিছু জানাননি বলে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ইরান এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ডস কর্পস পরিচালিত টেলিগ্রাম চ্যানেল জানিয়েছে, সিরিয়ায় ইসরাইলি বিমান হামলার প্রতিশোধ হিসেবে ওই হামলা চালানো হয়েছে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন