কারাবাখ নিয়ে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় শুক্রবার আবারও চুক্তি
jugantor
কারাবাখ নিয়ে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় শুক্রবার আবারও চুক্তি

  অনলাইন ডেস্ক  

২৪ নভেম্বর ২০২১, ০৯:৩২:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ার সোচি অবকাশকেন্দ্রে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় মঙ্গলবার আলোচনায় বসেছিলেন আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ এবং আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিয়ান।

কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে নতুন করে সংঘাত সৃষ্টি হওয়ায় রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এ উদ্যোগ নিয়েছেন। খবর আনাদোলুর।

এতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, আগামী শুক্রবার কারাবাখ অঞ্চলে শান্তি বজায় রাখতে নতুন করে চুক্তি করবে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া।

রুশ সরকার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, মূলত গত বছরের যুদ্ধবিরতি চুক্তিটিই নবায়ন করা হবে।

এতে আরও বলা হয়, দুই প্রতিবেশীর মধ্যে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে নতুন একটি খসড়া চুক্তিও করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর নাগোরনো কারাবাখ অঞ্চলটি নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে ৪৪ দিনের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে দুই দেশের ৬ হাজারেরও বেশি সেনাসদস্য নিহত হন।

১৯৯১ সালের পর কারাবাখ অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ চলে আসে আজারবাইজানের হাতে। পরে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় গত বছরের নভেম্বরে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে উপনীত হয়।

কিন্তু গত মাসে নতুন করে সীমান্ত অঞ্চলে নতুন করে সংঘাত শুরু হয়। এ জন্য রাশিয়ার মধ্যস্থতায় আবারও যুদ্ধবিরতি চুক্তি নবায়ন করছে দুই প্রতিবেশী।

কারাবাখ নিয়ে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় শুক্রবার আবারও চুক্তি

 অনলাইন ডেস্ক 
২৪ নভেম্বর ২০২১, ০৯:৩২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ার সোচি অবকাশকেন্দ্রে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় মঙ্গলবার আলোচনায় বসেছিলেন আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ এবং আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিয়ান।

কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে নতুন করে সংঘাত সৃষ্টি হওয়ায় রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এ উদ্যোগ নিয়েছেন। খবর আনাদোলুর।

এতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, আগামী শুক্রবার কারাবাখ অঞ্চলে শান্তি বজায় রাখতে নতুন করে চুক্তি করবে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া।

রুশ সরকার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, মূলত গত বছরের যুদ্ধবিরতি চুক্তিটিই নবায়ন করা হবে।  

এতে আরও বলা হয়, দুই প্রতিবেশীর মধ্যে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে নতুন একটি খসড়া চুক্তিও করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর নাগোরনো কারাবাখ অঞ্চলটি নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে ৪৪ দিনের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে দুই দেশের ৬ হাজারেরও বেশি সেনাসদস্য নিহত হন।

১৯৯১ সালের পর কারাবাখ অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ চলে আসে আজারবাইজানের হাতে। পরে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় গত বছরের নভেম্বরে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে উপনীত হয়।

কিন্তু গত মাসে নতুন করে সীমান্ত অঞ্চলে নতুন করে সংঘাত শুরু হয়। এ জন্য রাশিয়ার মধ্যস্থতায় আবারও যুদ্ধবিরতি চুক্তি নবায়ন করছে দুই প্রতিবেশী।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাত