আফগানিস্তানে গাঁজা প্রক্রিয়াকরণ সেন্টার খুলছে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিষ্ঠান
jugantor
আফগানিস্তানে গাঁজা প্রক্রিয়াকরণ সেন্টার খুলছে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিষ্ঠান

  অনলাইন ডেস্ক  

২৪ নভেম্বর ২০২১, ২০:৩৩:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

অস্ট্রেলিয়ার একটি ফার্মাসিটিক্যাল কোম্পানি আফগানিস্তানে গাঁজা প্রক্রিয়াকরণ সেন্টার খুলতে চায়। এ লক্ষ্যে তারা তালেবান সরকারের সঙ্গে প্রায় চার হাজার কোটি টাকার এক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

তালেবানের একজন মুখপাত্র এক টুইট বার্তায় এই তথ্য জানিয়েছেন।

তালেবানের প্রেস ডিরেক্টর এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ক্বারী সাইদ খোস্তি বলেন, অস্ট্রেলিয়ার সিফার্মেসির সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়েছে। কয়েক দিনের মধ্যে এই প্রকল্প শুরু হবে।

আফগানিস্তানের পাঝোক নিউজ এজেন্সির খবরে বলা হয়েছে, অস্ট্রেলিয় কোম্পানির একজন প্রতিনিধি এ লক্ষ্যে আফগানিস্তানের মাদক বিষয়ক উপমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। মঙ্গলবার ফার্মেসি কোম্পানির ওই প্রতিনিধি ৪৫০ মিলিয়ন ডলারের অঙ্গীকার করেছেন।

তবে এ বিষয়ে ফার্মেসিটিক্যাল কোম্পানি সিফার্ম তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য করেনি।

তালেবান নেতা সাইদ খোস্তি জানিয়েছেন, ফার্মাসিটিক্যাল কোম্পানিটি গাঁজা থেকে ওষুধ প্রস্তুত করবে।

গত ১৫ আগস্ট তালেবানের হাতে কাবুলের পতন হয়। এর মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানের হাতে যায়। আগস্টের শেষ দিকে আফগানিস্তান ত্যাগ করে মার্কিন বাহিনী। এর মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ২০ বছরের আফগান যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটে।

ক্ষমতা দখলের পর গাঁজা উৎপদান করা হবে না বলে অঙ্গীকার করেছিল তালেবান।

অক্টোবর মাসে কান্দাহারে তালেবানের গভর্নর ইউসেফ ওয়াফা বলেন, তারা মাদক চাষীদের গ্রেফতার করছেন। যদিও কৃষকরা আফগানিস্তানে গাঁজা চাষে নীতির কোনো পরিবর্তন হয়েছে বলে মনে করছেন না।

আফগানিস্তানে গাঁজা প্রক্রিয়াকরণ সেন্টার খুলছে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিষ্ঠান

 অনলাইন ডেস্ক 
২৪ নভেম্বর ২০২১, ০৮:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অস্ট্রেলিয়ার একটি ফার্মাসিটিক্যাল কোম্পানি আফগানিস্তানে গাঁজা প্রক্রিয়াকরণ সেন্টার খুলতে চায়। এ লক্ষ্যে তারা তালেবান সরকারের সঙ্গে প্রায় চার হাজার কোটি টাকার এক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

তালেবানের একজন মুখপাত্র এক টুইট বার্তায় এই তথ্য জানিয়েছেন।

তালেবানের প্রেস ডিরেক্টর  এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ক্বারী সাইদ খোস্তি বলেন, অস্ট্রেলিয়ার সিফার্মেসির সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়েছে। কয়েক দিনের মধ্যে এই প্রকল্প শুরু হবে। 

আফগানিস্তানের পাঝোক নিউজ এজেন্সির খবরে বলা হয়েছে, অস্ট্রেলিয় কোম্পানির একজন প্রতিনিধি এ লক্ষ্যে আফগানিস্তানের মাদক বিষয়ক উপমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। মঙ্গলবার ফার্মেসি কোম্পানির ওই প্রতিনিধি ৪৫০ মিলিয়ন ডলারের অঙ্গীকার করেছেন।   

তবে এ বিষয়ে  ফার্মেসিটিক্যাল কোম্পানি সিফার্ম তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য করেনি। 

তালেবান নেতা সাইদ খোস্তি জানিয়েছেন, ফার্মাসিটিক্যাল কোম্পানিটি গাঁজা থেকে ওষুধ প্রস্তুত করবে। 

গত ১৫ আগস্ট তালেবানের হাতে কাবুলের পতন হয়। এর মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানের হাতে যায়। আগস্টের শেষ দিকে আফগানিস্তান ত্যাগ করে মার্কিন বাহিনী। এর মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ২০ বছরের আফগান যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটে।

ক্ষমতা দখলের পর গাঁজা উৎপদান করা হবে না বলে অঙ্গীকার করেছিল তালেবান।

অক্টোবর মাসে কান্দাহারে তালেবানের গভর্নর ইউসেফ ওয়াফা বলেন, তারা মাদক চাষীদের গ্রেফতার করছেন। যদিও কৃষকরা আফগানিস্তানে গাঁজা চাষে নীতির কোনো পরিবর্তন হয়েছে বলে মনে করছেন না। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন