ধর্ষককে হত্যার পর কারাগারে নারী
jugantor
ধর্ষককে হত্যার পর কারাগারে নারী

  অনলাইন ডেস্ক  

২৪ নভেম্বর ২০২১, ২২:২৫:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

মেক্সিকো

ধর্ষককে হত্যার অভিযোগে এক নারীকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। এটা নিয়ে নারী অধিকারকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। তারা আত্মরক্ষার অধিকারের দাবিতে বিক্ষোভ করছেন।

উত্তর আমেরিকার দেশ মেক্সিকোতে এই ঘটনা ঘটেছে। খবরে বলা হয়েছে, রোক্সানা রুইজ নাম এই নারী এখন নিজেকে নির্দোষ প্রমাণের জন্য লড়াই করছেন।

২১ বছর বয়সী মেক্সিকান এই নারী কারাগার থেকে লিখেছেন, আমাকে যে ধর্ষণ করেছে তার থেকে নিজেকে রক্ষা করাই আমার অপরাধ! মেক্সিকোর নিকটবর্তী একটি শহরে গত মে মাস থেকে তিনি কারাগারে আছেন।

দেশটির নারী অধিকার কর্মীরা তার মুক্তির জন্য আন্দোলন করছেন। এই অধিকারকর্মীরা রুইজের লেখা একটি চিঠি প্রকাশ করেছে।

এই চিঠিতে তিনি জানিয়েছেন, বন্ধুর সঙ্গে বিয়ার পানে যাওয়ার পর ওই ব্যক্তি তার সঙ্গে শয্যাসঙ্গিনী হতে পীড়াপীড়ি করেছিল। ঘুমানোর একপর্যায়ে ওই ব্যক্তি তাকে যৌন হয়রানী করেছিল, তাকে মারধর করেছিল এবং হত্যার হুমকি দিয়েছিল। তবে নিজেকে রক্ষায় তিনি প্রতিরোধ শুরু করেন। একপর্যায়ে শ্বাসরোধে ওই ব্যক্তিকে হত্যা করেন তিনি।

রোক্সানা নামে এই নারী আরও বলেন, তিনি তাকে আঘাত করতে চাননি। সমাজ ব্যবস্থা অন্যায্য উল্লেখ করে তিনি বলেন, কারাগারে থেকে আমার মনে হচ্ছে আক্রমণকারী ব্যক্তি যা করতে চেয়েছিল আমাকে তা করতে দেওয়া উচিত ছিল। সে আমাকে হত্যা করত।

গত জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মেক্সিকোতে ৭৩৬ জন নারী হত্যার শিকার হয়েছে। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ৯৭৫ জন।

নারীদের প্রতি দেশটিতে এমন সহিংসতা থাকা সত্ত্বেও রুইজের মতো নারীদের নিজেকে নির্দোষ প্রমাণে লড়তে হচ্ছে।

ধর্ষককে হত্যার পর কারাগারে নারী

 অনলাইন ডেস্ক 
২৪ নভেম্বর ২০২১, ১০:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মেক্সিকো
মেক্সিকো শহরে নারীরা আত্মরক্ষার প্রশিক্ষণ ক্লাসে অংশ নেন

ধর্ষককে হত্যার অভিযোগে এক নারীকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। এটা নিয়ে নারী অধিকারকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। তারা আত্মরক্ষার অধিকারের দাবিতে বিক্ষোভ করছেন।

উত্তর আমেরিকার দেশ মেক্সিকোতে এই ঘটনা ঘটেছে। খবরে বলা হয়েছে, রোক্সানা রুইজ নাম এই নারী এখন নিজেকে নির্দোষ প্রমাণের জন্য লড়াই করছেন।

২১ বছর বয়সী মেক্সিকান এই নারী কারাগার থেকে লিখেছেন,  আমাকে যে ধর্ষণ করেছে তার থেকে নিজেকে রক্ষা করাই আমার অপরাধ! মেক্সিকোর নিকটবর্তী একটি শহরে গত মে মাস থেকে তিনি কারাগারে আছেন।

দেশটির নারী অধিকার কর্মীরা তার মুক্তির জন্য আন্দোলন করছেন। এই অধিকারকর্মীরা  রুইজের লেখা একটি চিঠি প্রকাশ করেছে।

এই চিঠিতে তিনি জানিয়েছেন, বন্ধুর সঙ্গে বিয়ার পানে যাওয়ার পর ওই ব্যক্তি তার সঙ্গে শয্যাসঙ্গিনী হতে পীড়াপীড়ি করেছিল। ঘুমানোর একপর্যায়ে ওই ব্যক্তি তাকে যৌন হয়রানী করেছিল, তাকে মারধর করেছিল এবং হত্যার হুমকি দিয়েছিল। তবে নিজেকে রক্ষায় তিনি প্রতিরোধ শুরু করেন। একপর্যায়ে শ্বাসরোধে ওই ব্যক্তিকে হত্যা করেন তিনি।

রোক্সানা নামে এই নারী আরও বলেন, তিনি তাকে আঘাত করতে চাননি। সমাজ ব্যবস্থা অন্যায্য উল্লেখ করে তিনি বলেন, কারাগারে থেকে আমার মনে হচ্ছে আক্রমণকারী ব্যক্তি যা করতে চেয়েছিল আমাকে তা করতে দেওয়া উচিত ছিল। সে আমাকে হত্যা করত। 

গত জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মেক্সিকোতে ৭৩৬ জন নারী হত্যার শিকার হয়েছে। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ৯৭৫ জন।

নারীদের প্রতি দেশটিতে এমন সহিংসতা থাকা সত্ত্বেও রুইজের মতো নারীদের নিজেকে নির্দোষ প্রমাণে লড়তে হচ্ছে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন