ভোট দিয়ে মৃত প্রার্থীকে জেতাল এলাকাবাসী
jugantor
ভোট দিয়ে মৃত প্রার্থীকে জেতাল এলাকাবাসী

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৭ নভেম্বর ২০২১, ২২:৪৭:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোট দিয়ে মৃত প্রার্থীকে জেতাল এলাকাবাসী

ভোটের মাত্র কয়েকদিন আগে মারা গিয়েছিলেন এক প্রার্থী। কিন্তু তার শেষ ইচ্ছার প্রতি সম্মান জানাতে পরিবারের সদস্যরা তার মৃত্যুর ব্যাপারটি গোপন রেখেছিল। এলাকাবাসীও সহানুভূতি থেকে তাকে ভোট দিয়েছেন। আর ভোট গণনার পর দেখা গেছে নির্বাচনে মৃত প্রার্থীই নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন।

শনিবার এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতের বিহারের জামুই জেলায় ২৪ নভেম্বর অনুষ্ঠিত পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রার্থী ছিলেন সোহান মুর্মু। ভোটের কয়েকদিন আগে ৬ নভেম্বর তার মৃত্যু হয়।

এ ব্যাপারে ব্লক ডেভেলপমেন্ট অফিসার (বিডিও) রাঘবেন্দ্র ত্রিপাঠী জানান, তদন্তে আমরা জানতে পেরেছি সোহান ৬ নভেম্বর মারা গেছেন।তার পরিবারের সদস্যরা বলেছেন নির্বাচনে জয়ী হওয়া তার শেষ ইচ্ছা ছিল। তাই তার মৃত্যুর বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানায়নি তারা। এমনকি গ্রামের কোনো বাসিন্দাও আমাদের জানাননি। নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর দেখা গেছে, সবাই তার শেষ ইচ্ছাকে সম্মান জানাতে তার পক্ষে ভোট দিয়েছে।

সোহান তার প্রতিদ্বন্দ্বীকে ২৮ ভোটে পরাজিত করেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

তবে যেহেতু বিজয়ীর সনদ অন্য কাউকে দেওয়ার নিয়ম নেই তার ওই পদের জন্য নতুন করে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানিয়েছেন ত্রিপাঠী।

ভোট দিয়ে মৃত প্রার্থীকে জেতাল এলাকাবাসী

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৭ নভেম্বর ২০২১, ১০:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভোট দিয়ে মৃত প্রার্থীকে জেতাল এলাকাবাসী
ছবি : প্রতীকী

ভোটের মাত্র কয়েকদিন আগে মারা গিয়েছিলেন এক প্রার্থী। কিন্তু তার শেষ ইচ্ছার প্রতি সম্মান জানাতে পরিবারের সদস্যরা তার মৃত্যুর ব্যাপারটি গোপন রেখেছিল। এলাকাবাসীও সহানুভূতি থেকে তাকে ভোট দিয়েছেন। আর ভোট গণনার পর দেখা গেছে নির্বাচনে মৃত প্রার্থীই নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন। 

শনিবার এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতের বিহারের জামুই জেলায় ২৪ নভেম্বর অনুষ্ঠিত পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রার্থী ছিলেন সোহান মুর্মু। ভোটের কয়েকদিন আগে ৬ নভেম্বর তার মৃত্যু হয়।

এ ব্যাপারে ব্লক ডেভেলপমেন্ট অফিসার (বিডিও) রাঘবেন্দ্র ত্রিপাঠী জানান, তদন্তে আমরা জানতে পেরেছি সোহান ৬ নভেম্বর মারা গেছেন।তার পরিবারের সদস্যরা বলেছেন নির্বাচনে জয়ী হওয়া তার শেষ ইচ্ছা ছিল। তাই তার মৃত্যুর বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানায়নি তারা। এমনকি গ্রামের কোনো বাসিন্দাও আমাদের জানাননি। নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর দেখা গেছে, সবাই তার শেষ ইচ্ছাকে সম্মান জানাতে তার পক্ষে ভোট দিয়েছে।

সোহান তার প্রতিদ্বন্দ্বীকে ২৮ ভোটে পরাজিত করেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

তবে যেহেতু বিজয়ীর সনদ অন্য কাউকে দেওয়ার নিয়ম নেই তার ওই পদের জন্য নতুন করে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানিয়েছেন ত্রিপাঠী। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন