হুইলচেয়ারে বিক্ষোভ দেখাতে এসেছিলেন ফিলিস্তিনি যুবক ফাদি

  অনলাইন ডেস্ক ১৬ মে ২০১৮, ১৪:১২ | অনলাইন সংস্করণ

ফাদি
ফাদি আবু সালাহ-এএফপি

ফিলিস্তিনি যুবক ফাদি আবু সালাহ ২০০৮ সালে গাজায় বিক্ষোভে দুটি পা হারিয়েছিলেন। সোমবার বিক্ষোভে ইসরাইলি গুলিতে নিহতদের মধ্যে তিনিও রয়েছেন। তিনি হুইলচেয়ারে করে বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিলেন।

তার বন্ধু ওয়ালিদ মাহমুদ রওক টুইটারে লিখেছেন, ইসরাইলি গোলার আঘাতে কয়েক বছর আগে তার দুটি পা হারাতে হয়েছে। পা ছাড়া তার বাকি শরীরটুকু বেঁচে ছিল। সোমবার ইসরাইলি সেনাবাহিনী তার শরীরের সেই অংশটুকুও হত্যা করেছে। খবর মেইল অনলাইন ও আরব নিউজের।

২০০৮ সালে মারাত্মকভাবে আহত হওয়ার পর চিকিৎসকরা অস্ত্রোপচার করে তার দুই পা কেটে ফেলেছিলেন। মঙ্গলবার আবু সালাহর জানাজায় হাজার হাজার মানুষ অংশ নেন।

ইসরাইলি সেনাবাহিনী এই প্রথম কোনো প্রতিবন্ধীকে হত্যা করেছে, তা কিন্ত না। গত জানুয়ারিতে ইব্রাহিম আবু থুরায়া নামের ২৯ বছর বয়সী এক প্রতিবন্ধী যুবককেও তারা হত্যা করে। এক দশক আগে ইসরাইলি হামলায় তিনি তার দুই পা হারিয়েছিলেন।

ইসরাইল সরকার সালাহ হত্যার তদন্ত করেছে। তবে তারা এতে সেনাবাহিনীর কোনো নৈতিক কিংবা পেশাগত ব্যর্থতা দেখতে পায়নি।

সোমবার ইহুদিবাদী ইসরাইলের হামলায় ফিলিস্তিনিদের রক্তের বন্যা বয়ে গেছে। মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ যেটিকে রক্তগোছল বলে আখ্যায়িত করেছে।

নিহত ৫৮ নিরপরাধ ফিলিস্তিনির মধ্যে আটটি শিশুও ছিল। যাদের সবার বয়স ১৬ বছরের নিচে। তাদের মধ্যে সবচেয়ে কম বয়স ছিল লাইলার। শিশুটি সবে আট মাসে পা দিয়েছিল।

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter