‘স্পাই’ বিমান এড়াতে রুশ বিমানের যাত্রাপথ পরিবর্তন
jugantor
‘স্পাই’ বিমান এড়াতে রুশ বিমানের যাত্রাপথ পরিবর্তন

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:০৭:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

কৃষ্ণসাগরের উপর দিয়ে উঠে যাওয়ার সময় একটি ‘স্পাই’ বিমানের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ এড়াতে রাশিয়ান এয়ারলাইনসের একটি বিমান যাত্রপথ পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়েছে বলে মস্কো কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে জানা গেছে।

সংবাদ সংস্থা ইন্টারফ্যাক্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়ার ফেডারেল এয়ার ট্রান্সপোর্ট এজেন্সি শনিবার গভীর রাতে জানায় মস্কো থেকে তেল আবিবগামী রুশ বিমানসংস্থা অ্যারোফ্লট সার্ভিসের বিমানটি ১৪২ জন যাত্রী নিয়ে নির্ধারিত যাত্রাপথ দিয়েই যাচ্ছিল। সেখানে হঠাৎ কথিত স্পাই বিমানটি দেখতে পান পাইলট।

সংঘর্ষ এড়াতে অ্যারোফ্লট সার্ভিসের বিমানটির দিক ও উচ্চতা অবিলম্বে পরিবর্তন করা হয় বলে সংস্থাটি জানিয়েছে। এদিকে অজ্ঞাত বিমানটি এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের রেডিওতে সাড়া দেয়নি বলে জানা গেছে।

ইন্টারফ্যাক্স জানায়, অ্যারোফ্লট ফ্লাইটের বিমানটি অজ্ঞাত বিমানের কাছ থেকে সংঘর্ষ এড়াতে ১৬ হাজার ফুট নিচে নেমে যায়।

অ্যারোফ্লটের সঙ্গেই সোচির ব্ল্যাক সি রিসোর্ট থেকে উত্তর মেসিডোনিয়ার রাজধানী স্কোপজে যাচ্ছিল আরেকটি রুশ প্রাইভেট জেট। ওই বিমানটিকেও সংঘর্ষ এড়াতে যাত্রাপথ পরিবর্তন করতে হয় বলে রুশ বিমান পরিবহন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

ইন্টারফ্যাক্স জানায়, রুশ সীমান্তে ন্যাটোর বিমানের কার্য়ক্রম বেড়ে যাওয়ায় বেসামরিক বিমানসহ সব ধরনের বিমানে দুর্ঘটনার ঝুঁকি বেড়ে গেছে। কর্তৃপক্ষ এই ঘটনায় কূটনৈতিক প্রতিবাদ জানাবে বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

স্পাই বিমানটি কোন দেশের ছিল সে ব্যাপারে রুশ কর্তৃপক্ষ অবশ্য কিছু জানায়নি।

শনিবারের এই ঘটনা রাশিয়া ও পশ্চিমা দেশগুলোর মধ্যে উত্তেজনা আরও বাড়িয়ে দেবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পূর্ব ইউরোপের দেশ ইউক্রেনের সীমান্তে রুশ সেনা সমাবেশকে কেন্দ্র করে সম্ভাব্য আগ্রাসনের শঙ্কা তৈরি হয়েছে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে। ফলে দেশ দুটির মধ্যে উত্তেজনা বেড়েছে।

‘স্পাই’ বিমান এড়াতে রুশ বিমানের যাত্রাপথ পরিবর্তন

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কৃষ্ণসাগরের উপর দিয়ে উঠে যাওয়ার সময় একটি ‘স্পাই’ বিমানের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ এড়াতে রাশিয়ান এয়ারলাইনসের একটি বিমান যাত্রপথ পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়েছে বলে মস্কো কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে জানা গেছে। 

সংবাদ সংস্থা ইন্টারফ্যাক্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়ার ফেডারেল এয়ার ট্রান্সপোর্ট এজেন্সি শনিবার গভীর রাতে জানায় মস্কো থেকে তেল আবিবগামী রুশ বিমানসংস্থা অ্যারোফ্লট সার্ভিসের বিমানটি ১৪২ জন যাত্রী নিয়ে নির্ধারিত যাত্রাপথ দিয়েই যাচ্ছিল। সেখানে হঠাৎ কথিত স্পাই বিমানটি দেখতে পান পাইলট।

সংঘর্ষ এড়াতে অ্যারোফ্লট সার্ভিসের বিমানটির দিক ও উচ্চতা অবিলম্বে পরিবর্তন করা হয় বলে সংস্থাটি জানিয়েছে। এদিকে অজ্ঞাত বিমানটি এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের রেডিওতে সাড়া দেয়নি বলে জানা গেছে। 

ইন্টারফ্যাক্স জানায়, অ্যারোফ্লট ফ্লাইটের বিমানটি অজ্ঞাত বিমানের কাছ থেকে সংঘর্ষ এড়াতে ১৬ হাজার ফুট নিচে নেমে যায়।

অ্যারোফ্লটের সঙ্গেই সোচির ব্ল্যাক সি রিসোর্ট  থেকে উত্তর মেসিডোনিয়ার রাজধানী স্কোপজে  যাচ্ছিল আরেকটি রুশ প্রাইভেট জেট।  ওই বিমানটিকেও সংঘর্ষ এড়াতে যাত্রাপথ পরিবর্তন করতে হয় বলে রুশ বিমান পরিবহন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

ইন্টারফ্যাক্স জানায়, রুশ সীমান্তে ন্যাটোর বিমানের কার্য়ক্রম বেড়ে যাওয়ায় বেসামরিক বিমানসহ সব ধরনের বিমানে দুর্ঘটনার ঝুঁকি বেড়ে গেছে। কর্তৃপক্ষ এই ঘটনায় কূটনৈতিক প্রতিবাদ জানাবে বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

স্পাই বিমানটি কোন দেশের ছিল সে ব্যাপারে রুশ কর্তৃপক্ষ অবশ্য কিছু জানায়নি। 

শনিবারের এই ঘটনা রাশিয়া ও পশ্চিমা দেশগুলোর মধ্যে উত্তেজনা আরও বাড়িয়ে দেবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পূর্ব ইউরোপের দেশ ইউক্রেনের সীমান্তে রুশ সেনা সমাবেশকে কেন্দ্র করে সম্ভাব্য আগ্রাসনের শঙ্কা তৈরি হয়েছে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে। ফলে দেশ দুটির মধ্যে উত্তেজনা বেড়েছে।  
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন