ট্রেন আসার মুহূর্তে রেললাইনে আটকা পড়ল যাত্রীবাহী গাড়ি
jugantor
ট্রেন আসার মুহূর্তে রেললাইনে আটকা পড়ল যাত্রীবাহী গাড়ি

  অনলাইন ডেস্ক  

০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:৪৫:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

অরক্ষিত একটি ক্রসিং পার হয়ে গিয়ে রেললাইনে আটকে যায় একটি যাত্রীবাহী গাড়ি। এ সময় গাড়িটিকে ধাক্কা দেয় একটি ট্রেন। ধাক্কা দেওয়ার পর গাড়িটিকে প্রায় ১০০ মিটার টেনে নিয়ে যায় ট্রেনটি।

ভাগ্যক্রমে দুর্ঘটনার আগেলাফিয়ে পড়ায় ওই গাড়ির চালক ও যাত্রীরা প্রাণে বেঁচে গেছেন।

পশ্চিমবঙ্গের তমলুক রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন তমলুক পৌরসভার ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাপনেদিয়া রেল ক্রসিংয়ে রোববার এই ঘটনা ঘটে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

এ ব্যাপারে প্রত্যক্ষদর্শী লক্ষ্মীকান্তবলেন, রেললাইন পর হওয়ার সময় গাড়িটির চাকা আটকে যায়। সেই সময় একটি লোকাল ট্রেন আসছিল। বিপদ বুঝতে পেরে গাড়ি থেকে ঝাঁপ দিয়ে রক্ষা পান চালক ও যাত্রীরা। এই ক্রসিং দিয়ে বহু লোক যাতায়াত করেন। আমরা বহু বার জানানো পরও কর্তৃপক্ষ রেলগেট করেনি।

এদিকে, দুর্ঘটনার পর এলাকাবাসী রেল ক্রসিংয়ের দাবিতে রেললাইন অবরোধ করেন। পরে দুর্ঘটনাস্থলে এসে অবরোধকারীদের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনা চালান রেলের কর্মকর্তারা।

এ ব্যাপারে তমলুকের তৃণমূল নেতা চঞ্চল খাঁড়া বলেন, দলমত নির্বিশেষে মানুষ এখানে লেভেল ক্রসিংয়ের দাবি জানিয়েছেন। এলাকাবাসীদের দাবি মেনে সোমবার থেকে এখানে দুজন পুলিশ মোতায়েন রাখা হবে। পাশাপাশি রেল কর্তৃপক্ষ দ্রুত প্রহরীসহ লেভেল ক্রসিং তৈরিতেও সম্মতি দিয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

ট্রেন আসার মুহূর্তে রেললাইনে আটকা পড়ল যাত্রীবাহী গাড়ি

 অনলাইন ডেস্ক 
০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:৪৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অরক্ষিত একটি ক্রসিং পার হয়ে গিয়ে রেললাইনে আটকে যায় একটি যাত্রীবাহী গাড়ি। এ সময় গাড়িটিকে ধাক্কা দেয় একটি ট্রেন। ধাক্কা দেওয়ার পর গাড়িটিকে প্রায় ১০০ মিটার টেনে নিয়ে যায় ট্রেনটি।

 ভাগ্যক্রমে দুর্ঘটনার আগে লাফিয়ে পড়ায় ওই গাড়ির চালক ও যাত্রীরা প্রাণে বেঁচে গেছেন।  

পশ্চিমবঙ্গের তমলুক রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন তমলুক পৌরসভার ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাপনেদিয়া রেল ক্রসিংয়ে রোববার এই ঘটনা ঘটে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার। 

এ ব্যাপারে প্রত্যক্ষদর্শী লক্ষ্মীকান্ত বলেন, রেললাইন পর হওয়ার সময় গাড়িটির চাকা আটকে যায়। সেই সময় একটি লোকাল ট্রেন আসছিল। বিপদ বুঝতে পেরে  গাড়ি থেকে ঝাঁপ দিয়ে রক্ষা পান চালক ও যাত্রীরা। এই ক্রসিং দিয়ে বহু লোক যাতায়াত করেন। আমরা বহু বার জানানো পরও  কর্তৃপক্ষ রেলগেট করেনি।

এদিকে, দুর্ঘটনার পর এলাকাবাসী রেল ক্রসিংয়ের দাবিতে রেললাইন অবরোধ করেন। পরে দুর্ঘটনাস্থলে এসে অবরোধকারীদের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনা চালান রেলের কর্মকর্তারা। 

এ ব্যাপারে তমলুকের তৃণমূল নেতা চঞ্চল খাঁড়া বলেন, দলমত নির্বিশেষে মানুষ এখানে লেভেল ক্রসিংয়ের দাবি জানিয়েছেন। এলাকাবাসীদের দাবি মেনে সোমবার থেকে এখানে দুজন পুলিশ মোতায়েন রাখা হবে। পাশাপাশি রেল কর্তৃপক্ষ দ্রুত প্রহরীসহ লেভেল ক্রসিং তৈরিতেও সম্মতি দিয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন